বি-টাউনের মোস্ট লাভড কাপল ঐশ্বর্য রাই বচ্চন এবং অভিষেক বচ্চন ২০ এপ্রিল মানে আজ বিয়ের দশ বছর পূর্ণ করলেন | আসুন এই উপলক্ষে আরো একবার ফিরে দেখি ওঁদের লাভ স্টোরি |

প্রথমে শুধুমাত্র বন্ধু ছিলেন ওঁরা : অ্যাশ ও অভির প্রথম আলাপ হয় ২০০০ সালে ঢাই অক্ষর প্রেম কে ছবির সেটে | ওঁরা ২০০৩ সালে আরো একবার একসঙ্গে কাজ করেন কুছ না কহো ছবিতে | এই সময় কিন্তু শুধুমাত্র বন্ধুত্ব ছিল ওঁদের মধ্যে |

যখন প্রেমে পড়লেন : শোনা যায় বান্টি ঔর বাবলি ছবির সেটে কাজরা রে গানের শ্যুটিং করতে গিয়ে নাকি একে অপরের প্রতি মুগ্ধতা তৈরি হয় ওঁদের | এর বছর খানেক বাদে ২০০৬-২০০৭ সালে পরপর তিনটে ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেন ওঁরা উমরাও জান গুরু এবং ধূম ২ | এর ফলে একে অপরের সঙ্গে অনেকটা করে সময় কাটানোর সুযোগ পেলেন ওঁরা | বিশেষতঃ ধূম ২ ছবির শ্যুটিং চলাকালীন ওঁরা বুঝতে পারেন একে অপরের প্রেমে পড়েছেন ওঁরা |

দ্য বিগ প্রপোজাল : অভিষেক এই প্রাক্তন বিউটি কুইনকে গুরু ছবির ওয়ার্ল্ড প্রেমিয়ারের পর প্রপোজ করেন | অভিষেক পকেটে আংটি নিয়ে ভালোমতো তৈরি হয়েই গিয়েছিলেন | কিন্তু উনি কোনো দামি আংটি নিয়ে যান নি | গুরু ছবিতে ঐশ্বর্যের আঙুলে একটা আংটি পরিয়েছিলেন অভিষেক | সেই আঙটিটা দিয়েই উনি অ্যাশকে প্রপোজ করতে যান | পরে একটা সাক্ষাতকারে ঐশ্বর্য এই ব্যাপারে কথা বলতে গিয়ে বলেছিলেন অভিষেক ওরিজিনাল এবং রিয়েল ঠিক আমাদের সম্পর্কের মতন | আমাদের জীবনে বোরিং বলে কিছু নেই | ভগবানের আমাদের ওপর অসীম দয়া আছে | ও চাইলেই একটা হীরের আংটি কিনতে পারতো | কিন্তু তাতে নতুনত্ব থাকতো না কিছু | আর আমি ওই নকল আংটিতেই খুব খুশি ছিলাম |

অন্যদিকে অভিষেক বলেছিলেন আমি নিউ উয়র্কে তখন একটা ছবির শ্যুটিং করছিলাম | হোটেলের বারান্দায় দাঁড়িয়ে আমি রোজ ভাবতাম ভবিষ্যতে যদি এমনভাবে ঐশ্বর্যকে নিয়ে এখানে দাঁড়াতে পারতাম তাহলে কী ভালোই না হবে | এর কয়েক বছর পরে নিউ ইয়র্কে আমরা গুরু ছবির প্রেমিয়ারে যাই | সেই হোটেলেই ছিলাম | সেই বারান্দাটায় ঐশ্বর্যকে নিয়ে যাই এবং বিয়ের জন্য প্রপোজ করি |

কোর্টশিপ পিরিয়ড : মুম্বাইতে ফিরে জানুয়ারি ১৪‚ ২০০৭-এ বচ্চন পরিবারের বাড়িতে এনগেজমেন্ট হয় ওঁদের | এর আগে কিন্তু ওঁদের অ্যাফেয়ারের কথা লুকিয়ে রেখেছিলেন ওঁরা | কিন্তু এনগেজমেন্টের পর খোলাখুলি নিজেদের প্রেমের কথা স্বীকার করে নেন ওঁরা |

দ্য গ্র্যান্ড ওয়েডিং : ২০০৭ এর ২০ এপ্রিল বিয়ের পিঁড়িতে বসেন ওঁরা | বচ্চনদের বাড়ি প্রতীক্ষায় বসেছিল বিয়ের আসর | এই বিয়েতে বি-টাউনের অনেকেই উপস্থিত ছিলেন | বিয়ের কয়েকদিন বাদে নবদম্পতিকে নিয়ে অমিতাভ বচ্চন তিরুপতি মন্দিরে পুজো দিতে যান |


বিয়ের চার বছরের মাথায় ১৬ নভেম্বর‚ ২০১১ তে মা হন ঐশ্বর্য | মেয়ে আরাধ্যা জন্মায় |

আরও পড়ুন:  সুবিশাল বৃক্ষ ঢেকে গেল রাশি রাশি স্বর্ণমুদ্রায়

NO COMMENTS