সব সন্তানই চায় বাবা-মা তাদের প্রশংসা করুক | আর এই প্রশংসা যদি করা হয় ফাদার্স ডে তে তাহলে এর থেকে আর ভালো কিছুই হতে পারে না | এমনটাই হয়েছে অক্ষয় কুমার ও টুইঙ্কল খান্নার ছেলে আরভের সঙ্গে | ফাদার্স ডে তে ওকে বেস্ট সান অফ দ্য ওয়ার্ল্ড ‘- ঘোষণা করলেন অক্ষয় এবং টুইঙ্কল |

অন্যরা ফাদার্স ডে-তে যখন সোশ্যাল মিডিয়াতেতাদের বাবাদের ছবি পোস্ট করতে ব্যস্ত ছিল তখন অক্ষয় আরাভের সঙ্গে নিজের একটা ছবি পোস্ট করেন ইনস্টাগ্রামে | ছবির ক্যাপশনে উনি লেখেন প্রতিদিনই ফাদার্স ডে হতে পারে যদি আরাভের মতো ছেলে থাকে | আমরা সত্যি ধন্য এমন ছেলে পেয়ে | অন্যদিকে টুইঙ্কলও এই ছবির তলাই কমেন্ট লেখেন বেস্ট সান ইন দ্য ওয়ার্ল্ড |

অন্য স্টার কিডরা যখন বলিউডে পা রাখার জন্য তৈরি হচ্ছে সেখানে আরাভ কিন্তু নিজের পড়াশোনা নিয়ে থাকতেই ভালোবাসে | এছাড়াও ও মার্শাল আর্টের প্রতিও খুব আগ্রহী | সে ইতিমধ্যেই ব্ল্যাক বেল্ট হয়ে গেছে |

অক্ষয় এমনিতে পিতা হিসেবে সব সময়ই ছেলের পাশে থাকেন | কিন্তু একই সঙ্গে উনি চান ওঁর ছেলের স্বতন্ত্র চিন্তাধারা হোক | অক্ষয় চান আরাভ বড় হয়ে একজন অভিনেতা হোক | এই ব্যাপারে কথা বলতে গিয়ে উনি বলেন আমি আশা করি ও এই ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে যুক্ত হবে | এই ইন্ডাস্ট্রি মারফত আমি আমার পরিবারের লালন পালন করেছি | কিন্তু আরভকে একটা কথা স্পষ্ট জানিয়ে দেবো আমি ওকে কোনো রকম সাহায্য করবো না | ওকে নিজের জায়গা নিজেকেই তৈরি করতে হবে | কিন্তু এখনি এইসব ভেবে কোনো লাভ নেই | এখনো বহুদিন বাকি | ওর বয়স এখন খুবই কম | আগে পড়াশোনা শেষ করুক |

এমনিতে আরাভ বা অক্ষয়-টুইঙ্কলের মেয়ে নিতারাকে খুব একটা সাংবাদিকদের ক্যামেরার ধরা পড়তে দেখা যায় না | আরভকে কয়েক মাস আগে বন্ধুদের সঙ্গে মুম্বাইয়ের একটা সিনেমা হলের সামনে শেষ দেখা গিয়েছিল |

আরও পড়ুন:  নিজের প্রথম সন্তানকে হারিয়েছিলেন গোবিন্দা‚ বয়স ছিল মাত্র চার মাস
- Might Interest You

NO COMMENTS