গ্যাসের উনুনে ডাল প্রেশার কুকারে

ক্রমাগত সিটি দিচ্ছে সে কথা ভাবি না |

পাশেই অপেক্ষারত পাত্রে দু চামচ চা ভেজাতে গিয়ে দেখি

ঘুঘুর ডাকের মত ঠান্ডা হিম জল – –

সুইচ জ্বালতেই ভুল |

এ রকম বার বার এক পথে যেতে গিয়ে অন্য পথে যাই |

হাওয়াকে মনের কথা বলি, বন্ধুদের অথচ জড়াই

এ বাগানে স্মৃতিস্রোত স্বপ্ন ও বেদনা – –

ফাল্গুনের লেবুফুল, আমের মুকুল, পরাগের ধুলোকণা |

লোকারণ্য থেকে এই অযথা নির্জন দেশে যে গিয়েছে

তার সঙ্গে মাঝেমধ্যে একা চলে যাব |

হায় কি স্বান্তনা দেব আমি তোকে বিহ্বল বালিকা,

আজ আকাশের গায়ে মেঘে মেঘে তোরই আঙুল

ঘন ফিকে আবীরে কুঙ্কুমে লেখে

ক অক্ষর, ল অক্ষর আরও প্রত্যবায়

তার পরে দিগন্তের গোল ভেঙে

সূর্যের মুখের ছবি মুছে তাড়াতাড়ি চলে গেল,

বিস্মৃতির কাছে চলে যায় |

Sponsored
loading...

1 COMMENT

এমন আরো নিবন্ধ