ডায়েটিশিয়ান‚ নিউট্রিশনিস্ট এবং ডাক্তাদের মধ্যে নিরন্তর ডিবেট চলে হোয়াইট রাইস নাকি ব্রাউন রাইস কোনটা আমাদের শরীরের জন্য ভালো |

প্রমাণিত হয়ে গেছে পালিশ করা সাদা চাল খেলে শরীরে তার অ্যাডভার্স এফেক্ট দেখা যায় | কারণ সাদা চালের ভাত খাওয়া মাত্র দেখা গেছে শরীরে Glycemic Index বেড়ে যাচ্ছে | এবং এর ফলে রক্তে চিনির মাত্রাও বেড়ে যাচ্ছে | এবং শরীরে ইনসুলিন রেজিস্টেন্স দেখা দিতে পারে |

আসলে সাদা চাল আগে রিফাইন এবং পালিশ করা হয় | ফলে এর মধ্যে যে নিউট্রিয়েন্ট বিশেষত ফাইবার আছে তা বেরিয়ে যায় | দেখে নিন ১০০ গ্রাম চালের নিউট্রিশনাল ফ্যাক্টস :

Calories – 130
Total fat – 0.3 g
Total carbohydrates – 28 g
Protein – 2.7 g
Dietary fiber – 0.4 g

সোজা কথায় পালিশ করা সাদা চাল খেলে শরীরের মেটাবলিসম কমে যায় | ব্লাড সুগার এবং Serum Triglycerides এর লেভেল বেড়ে যায় এবং টাইপ ২ ডায়বেটিস হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায় |

এইবার আসা যাক ব্রাউন রাইসের দিকে | এই ধরণের চালের অসংখ্য উপকারিতা আছে | কারণ Glycemic Index বেশ কম | এবং একই সঙ্গে টাইপ ২ ডায়বেটিস হওয়ার সম্ভাবনাও কমিয়ে দেয় |

দেখা গেছে নিয়মিত ব্রাউন রাইস খেলে ওয়েট লস হয় | একই সঙ্গে খাওয়ার পর রক্তে চিনির মাত্রাও অনেক কম হয় | দুমাস ব্রাউন রাইস খাওয়ার পর পরীক্ষা করে দেখা গেছে শরীরে ইনসুলিনের রেজিস্টেন্স ও অনেক কম | এবং হার্ট হেল্থও ভালো থাকছে |

নিয়মিত ব্রাউন রাইস খেলে শুধু যে ওজনই কমবে না একিসঙ্গে শরীর থেকে কোলেস্ট্রোলের মাত্রাও কমতে দেখা গেছে |

এছাড়াও ব্রাউন রাইস যেহেতু রিফাইন বা পলিশ করা হয় না তাই এর নিউট্রিয়েন্টস ও বেরিয়ে যায় না | ফলে আমাদের শরীরের যা ফাইবার আর roughage-এর দরকার তা ব্রাউন রাইস থেকেই পাওয়া যাবে |

ব্রাউন রাইস খাওয়ার আগে তা একঘন্টা জলে ভিজিয়ে রাখতে হবে | সব থেকে ভালো হয় যদি ওরগ্যানিক ব্রাউন রাইস খেতে পারেন তো | ভাত রান্না করার আগে অবশ্যই ভালো করে চাল ধুতে ভুলবেন না যেন |

দেখা যাচ্ছে সাদা ভাতের তুলনায় ব্রাউন রাইস অনেক বেশি উপকারী | কিন্তু মাথায় রাখুন ব্রাউন রাইস কিন্তু হোয়াইট রাইসের থেকে হজম করা বেশ কঠিন | তাই বাচ্ছা‚ বয়স্ক এবং অসুস্থ ব্যক্তিদের এটা না খাওয়ানোই ভালো | সাদা ভাত কিন্তু অনেক নরম হয় এবং হজমও হয় তাড়াতাড়ি |

যদি অসুস্থ থাকেন তাহলে সেই কদিন সাদা ভাতই খান | পুরোপুরি ঠিক হয়ে গেলে তবেই আবার ব্রাউন রাইস খওয়া শুরু করুন |

রোজ যদি ব্রাউন রাইস খাওয়া সম্ভব না হয় তাহলে সপ্তাহে অন্তত ৪-৫ বার এটা খাওয়ার চেষ্টা করুন | তবে ব্রাউন রাইস সাদা ভাতের তুলনায় সেদ্ধ হতে বেশি সময় নেয় |

আপনি যদি হাই রিস্ক ক্যাটেগরির মধ্যে পড়েন তাহলে অবশ্যই সাদা ভাতের বদলে ব্রাউন রাইস খাওয়া শুরু করুন | যদি একেবারেই সাদা ভাত ছাড়তে না পারেন তাহলে দিনে অন্তত একবার ব্রাউন রাইস খাওয়ার চেষ্টা করুন |

আরও পড়ুন:  জেনে রাখুন হোটেলের রুম সার্ভিসে কখনো কোন কোন খাবার অর্ডার করতে নেই

NO COMMENTS