আমরা অগেই আলোচনা করেছি ফেং শ্যুই এবং বাস্তু দুটোর মতেই আপনার বাড়িতে এবং অফিসে যত বেশি পজিটিভ এনার্জির উৎপন্ন হবে তত আপনার জীবনে সুখ‚ সমৃদ্ধি বাড়বে | এছাড়াও স্ট্রেস কমাতে‚ বা বাজে মুড ঠিক করতেও দরকার পরে সেই পজিটিভ এনার্জির | অনেক সময় আমরা জীবনের একটা জায়গায় এসে আটকে যাই‚ তখন আমাদের মনে হয় সেই পরিস্থিতি থেকে হয়তো আমরা আর কোনোদিন বেরোতে পারবো না‚ এই রকম পরিস্থিতি থেকে কিন্তু আপনাকে বেরোতে সাহায্য করবে পজিটিভ এনার্জি | এছাড়াও বিভিন্ন রোগের হাত থেকে মুক্তি পেতে বা সৌভাগ্য আনার পিছনেও কিন্তু সেই পজিটিভ এনার্জিই কাজ করে | আমরা অগেই জানিয়েছি কোন কোন জিনিস ঘরে রাখলে পজিটিভ এনার্জি আসবে | আজকে রইলো কয়েকটা পদ্ধতি বা Practices যা প্রাত্যহিক জীবনে মেনে চললে নেগেটিভ এনার্জি বেরিয়ে যাবে এবং তার বদলে পজিটিভ এনার্জির সমাগম হবে |

) নিজেকে ঠিক রাখার সিদ্ধান্ত নিন : আপনি ভালো থাকবেন না খারাপ এই সিদ্ধান্ত কিন্তু আপনাকেই নিতে হবে | আপনি যদি মনে করেন ভালো থাকবো তাহলে কেউ কিন্তু তার পরিবর্তন ঘটাতে পারবে না | যেমন ধরুন আপনার জীবনে এমন কোনো ঘটনা ঘটেছে যার ফলে আপনার জীবনে দুঃখ নেমে এসেছে বা আপনার মুড খারাপ হয়েছে‚ এই পরিস্থিতি থেকে কিন্তু আপনি না চাইলে কেউ আপনাকে বের করতে পারবে না | তাই নিজের জীবন কীভাবে চালাবেন তার সঠিক সিদ্ধান্ত নিন |

) বাড়ি ঘর পরিষ্কার রাখুন : ঘর যত অগোছালো হবে তত কিন্তু পজিটিভ এনার্জির চলার পথে বিঘ্ন ঘটবে | তাই ঘরদোর গুছিয়ে রাখার চেষ্টা করুন |

) ডাস্টিং করুন : জিনিসপত্রে ধুলো ময়লা জমতে দেবেন না‚ তাই নিয়মিত ডাস্টিং করুন | এর ফলে আপনার চিন্তাভাবনা পরিষ্কার হবে | ফেং শ্যুই এবং বাস্তু মতে সব জিনিসেরই একটা এনার্জি আছে | কিছু জিনিস থেকে পজিটিভ এনার্জি বেরোয় আবার কিছু জিনিস থেকে নেগেটিভ এনার্জি | কাঠের ফার্নিচার বা মেটালের জিনিসপত্র পরিষ্কার রাখলে তার থেকে পজিটিভ এনার্জি উৎপাদন হবে |

) ঘরে নিয়মিত ধূপ দিন : সাধারণত ঘরে পুজোআচ্চা করলে তবেই আমরা ধূপ জ্বালাই | ফলে যাদের বাড়িতে পুজোর চল নেই তাদের বাড়িতে ধূপ ও জ্বালানো হয় না | এটা করবেন না | রোজ ঘরে ধূপ জ্বালান | এর ফলে নেগেটিভ এনার্জি বাড়ি থেকে বেরিয়ে যাবে | ধূনো ও দিতে পারেন |

) বিছানা বালিশ গুছিয়ে রাখুন : অন্য জিনিসপত্রের সঙ্গে নিয়মিত বালিশ বিছানা পরিষ্কার এবং গুছিয়ে রাখুন | ঘুমের মধ্যে পজিটিভ এনার্জি তৈরি হয় | কিন্তু চরিদিকে নোংরা থাকলে তাতে বিঘ্ন ঘটবে |

) ঘরের কোণায় গিয়ে তালি বাজান : অনেক সময় পজিটিভ এনার্জি ঘরের কোণায় গিয়ে জমা হয় | পজিটিভ এনার্জি কে জাগাতে ঘরের মধ্যে গোল করে ঘুরে কোণায় গিয়ে তালি বাজান |

) টয়লেট পরিষ্কার রাখুন আর কোমডের ঢাকনা বন্ধ রাখুন : বাথরুমে পজিটিভ এনার্জি আনতে বাথরুম পরিষ্কার রাখুন | একি সঙ্গে মনে করা হয় কমোডের ঢাকনা খোলা থাকলে তার থেকে নেগেটিভ এনার্জি উৎপন্ন হয় তাই ব্যবহার করার পর কমোডের ঢাকনা বন্ধ করে দিন |

) কৃতজ্ঞতা দেখান : আপনি যে এই জীবন পেয়েছেন তার জন্য কৃতজ্ঞ বোধ করুন | মনে রাখবেন grateful = abundant | তাই সুযোগ পেলে ছোট বড় সব জিনিসের প্রতি কৃতজ্ঞতা স্বীকার করুন |

আরও পড়ুন:  গৌরী লঙ্কেশ – একটি দিনগত মৃত্যু

NO COMMENTS