মেয়েদের ঋতুস্রাব খুব স্বাভাবিক শারীরবৃত্তীয় প্রক্রিয়া | এর সঙ্গে যে মানুষের জন্মরহস্য জড়িয়ে সেটাই চিকিৎসকরা জানতেন না উনিশ শতক অবধি | এরকম বেশ কিছু চমকপ্রদ তথ্য রজঃস্বলা কন্যা ও ঋতুস্রাব নিয়ে |

# উনিশ শতক অবধি চিকিৎসকরা জানতেন না ডিম্বাণু উৎপত্তির সঙ্গে ঋতুস্রাব সরাসরি জড়িত |

# মনে করা হতো এই রক্ত বেরিয়ে যায় যাতে মেয়েদের মানসিক স্বাস্থ্য সুস্থ থাকে |

# এখনও অনেক দেশে মনে করা হয় রজঃস্বলা মেয়েরা অপবিত্র | তারা গরুকে অনুর্বর করে দেয় | শস্য শুকিয়ে তোলে |

# প্রাচীন রোমের বিশ্বাস ছিল ঋতুমতী মেয়েরা আসলে কালো জাদুর বশবর্তী | চাইলে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে প্রকৃতিকেও |

# মিশরীয় মহিলারা নরম প্যাপিরাসকে ব্যবহার করত tampons হিসেবে |

# রোমানদের কাছে tampons ছিল উল | গ্রীকরা বেছে নিত নরম কাঠ |

# মধ্যুগীয় ইউরোপে বিশ্বাস করা হতো এক টোটকায় | ব্যাঙকে পুড়িয়ে তার ছাই মেয়েরা যৌনাঙ্গে ধারণ করত | যাতে ওই সব দিনে কষ্ট কম হয় |

# ফরাসিরা মনে করত ঋতুস্রাবকালীন সঙ্গমে রাক্ষস জন্ম নেয় |

# মধ্যযুগের ইউরোপ বিশ্বাস করত ঋতুস্রাবের রক্তে সেরে যায় কুষ্ঠর মতো রোগ |

 

# আফ্রিকার উপজাতিদের বিশ্বাস‚ এই রক্তে যৌনক্ষমতা বাড়ে | পুরুষদের খাবারে মেশানো হতো এক সময়ে |

# ১৮৯০ থেকে ইউরোপে মহিলারা এমন কিছু ব্যবহার করতে শুরু করলেন যাকে আধুনিক ন্যাপকিনের পূর্বসূরী বলা যায় |

# প্রথম বিশ্বযুদ্ধে এল বৈপ্লবিক পরিবর্তন | আহত সেনাদের চিকিৎসা করতে গিয়ে ফরাসি নার্সরা দেখলেন ব্যান্ডেজে বেশ দ্রুত রক্ত শুষে নিচ্ছে তুলোর তুলনায় | আস্তে আস্তে রূপ পেল স্যানিটরি ন্যাপকিন |

# ১৯২৯ সালে মার্কিন চিকিৎসক আর্ল হ্যাস আবিষ্কার করলেন আধুনিক tampon |

# অবশেষে ১৯৭০ সাল নাগাদ পাশ্চাত্যে এল self-adhesive pads |

মেয়েদের কাছে যা কিনা মুক্তির দূত | এ তো গেল স্যানিটরি ন্যাপকিনের রূপান্তর | অন্য একদিন বলা যাবে ঋতুস্রাব নিয়ে বিশ্ব জুড়ে প্রচলিত কুসংস্কার |

আরও পড়ুন:  আসল গুরমীত সিং-ই বন্দি ? নাকি ধর্ষক ধর্মগুরুর হয়ে জেল খাটছেন অন্য কেউ ? জল্পনা তুঙ্গে !

NO COMMENTS