আপনার কি সহজেই নখ ভেঙে যায় বা চুল আঁচড়ানোর সময় গোছা গোছা চুল উঠে যায়? দুটোই কিন্তু বেশ চিন্তার বিষয় | শরীরে কোন বড় ধরণের অসুখ হলে এই দুটো সাইড এফেক্টস হিসেবে দেখা দেয় | কিন্তু শরীর সুস্থ থাকা সত্ত্বেও যদি এই দুটো হয় তাহলে অবশ্যই নিজের ডায়েটের দিকে লক্ষ্য রাখুন | বিভিন্ন ধরণের ভিটামিন আর মিনারেল যা বিভিন্ন খাবারে পাওয়া যায় সেগুলো এই সময় বেশি করে খেতে হবে | আসুন দেখে নিন সেই সব খাবারের নাম |

) আমন্ড বাদাম : এতে প্রোটিন তো থাকেই তার সঙ্গে এতে প্রচুর পরিমাণে ম্যাগনেসিয়াম পাওয়া যায় | তাই আমন্ড নখ আর চুল এর জন্য খুবই ভালো |

) অয়স্টার : চুল ও নখ মজবুত করতে জিঙ্ক ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ | আর অয়স্টারের প্রতিটা সার্ভিং-এ প্রায় ৭৪ গ্রাম জিঙ্ক থাকে | তবে সব জায়গায় অয়স্টার পাওয়া যায় না | তখন অন্য খাবার যাতে জিঙ্ক বেশি থাকে যেমন ল্যাম্ব‚ কোকো পাউডার‚ কাবলি ছোলা‚ কুমড়োর বিচি‚ কাজু বাদাম‚ দই‚ মাশরুম‚ পালং শাক এইসব খাবার বেশি করে খান |

) ডিম আর দুধ : যাদের শরীরে বায়োটিন কমে যায় তাদের নখ আর চুল কমজোরি হয়ে যায় | দুধ আর ডিম দুটোতেই প্রোটিন‚ ভিটামিন ডি আর বায়োটিন থাকে যা কেরাটিন ডেভলপমেন্টে সাহায্য করে |

) গ্রিন টি : ওজন কামানো ছাড়াও নিয়মিত গ্রিন টি পান করলে চুল আর নখও মজবুত হবে |

) সবুজ পাতা যুক্ত শাক ও সব্জি : সবুজ পাতাযুক্ত শাক সব্জিতে ম্যাগেসিয়াম থাকে যা চুল পড়া বন্ধ করে এবং নখ শক্ত করে |

) বিভিন্ন ধরণের বাদাম : বাদামের মধ্যেও জিঙ্ক পাওয়া যায় | ফলে ডায়েটে রোজ বিভিন্ন ধরণের বাদাম রাখুন |

এছাড়াও যেসব খাবারে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট থাকে যেমন রাজমা‚ ডার্ক চকোলেট‚ ধনে পাতা‚ লবঙ্গ‚ দারচিনি‚ হলুদ‚ জিরে‚ Dried Parsley‚ আদা এবং থাইম এইসব বেশি করে খাবার চেষ্টা করুন |

আরও পড়ুন:  ‘অভিমান’ তাঁর জীবনগাথা? ভালো বাজাতেন বলে স্ত্রী অন্নপূর্ণা দেবীর আঙুল কেটে দিয়েছিলেন রবি শংকর!?

NO COMMENTS