গত দু দশক ধরে ভারতীয় পুরুষকে সাজিয়ে এসেছেন তিনি | ছিলেন দেশের ধনীতম শিল্পপতিদের মধ্যে একজন | এখন ডক্টর বিজয়পত সিংহানিয়া থাকেন ভাড়াবাড়িতে | তাঁর সামাজিক অবস্থানের তুলনায় কার্যত দিন আনা দিন খাওয়া অবস্থা | তার জন্য দায়ী তাঁর নিজের ছেলে !

বলছেন ডক্টর বিজয়পত সিংহানিয়া নিজেই | একদিন তিল তিল করে গড়ে তুলেছিলেন রেমন্ডকে | সাজসজ্জায় পৌরুষ-আভিজাত্যের শেষ কথা এই ব্র্যান্ড | এখন সব হারিয়ে বিজয়পত থাকেন মুম্বইয়ের গ্র্যান্ড প্যারাডিতে একটি সোসাইটিতে |

একসময় দেশের সবথেকে ধনী বিজয়পত থাকতেন মালাবার হিল-এ ৩৬ তলা উঁচু বাসভবন জে.কে হাউজে | যা ছিল মুকেশ অম্বানির অ্যান্তিলিয়ার থেকেও বেশি উচ্চতার | প্রথমে এই বাড়ি ছিল ১৪ তলার | পরে এতে আরও দুপ্লে তৈরি হয় | চারটে দুপ্লে দেওয়া হয় রেমন্ড-এর সহযোগী সংস্থা পশমিনা হোল্ডিংকে |

বিজয়পত সিংহানিয়ার আইনজীবী আদালতে অভিযোগ করেছেন‚ এই বাড়ির কোনও অংশই দেওয়া হচ্ছে না তাঁর মক্কেলকে | এমনকী বঞ্চিত করা হচ্ছে বিজয়পতের প্রয়াত বড় দাদার স্ত্রী ও তাঁদের সন্তানদেরও | কাঠগড়ায় সেই বিজয়পতের ছেলে গৌতম সিংহানিয়া | অভিযোগ‚ ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন তিনি | 

বিজয়পত ও গৌতম সিংহানিয়া

অথচ ছেলে গৌতমের হাতে সম্পত্তি সমর্পণ করেছিলেন বিজয় নিজেই | দিয়ে দিয়েছিলেন রেমন্ড-এর এক হাজার কোটি টাকার শেয়ার | অভিযোগ এখন সব পেয়ে গিয়ে বাবাকেই বঞ্চিত করতে চাইছেন ছেলে | কেড়ে নিয়েছেন বাবার গাড়ি এবং ড্রাইভারও | 

আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন ৭৮ বছর বয়সী বিজয়পত সিংহানিয়া | যাতে জে কে হিলের ২৭ ও ২৮ তলার দখল রেমন্ড নিতে না পারে তার জন্য আবেদন করেছেন তিনি | সেইসঙ্গে প্রতি মাসে নিজের জন্য ৭ লক্ষ টাকা দাবি করেছেন |

আদালতের তরফে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে‚ সম্পত্তি নিয়ে এই পারিবারিক বিবাদ বাইরে আলোচনার মাধ্যমে মিটিয়ে নিতে | মামলার পরবর্তী শুনানি ২২ অগাস্ট | 

আরও পড়ুন:  তাঁর কণ্ঠেই শুরু হয় বাঙালির শারদোৎসব‚ সদ্য চলে গেল সেই রায়বাহাদুরপুত্রের ১১২ তম জন্মদিন
Sponsored
loading...

NO COMMENTS