নেই বিদ্যুৎ ও জলের সংযোগ | পুতিগন্ধময় পরিবেশে পড়েছিলেন মা ও দুই মেয়ে | প্রতিবেশীদের কাছে জানতে পেরে তিনজনকে উদ্ধার করল পুলিশ | ঘটনা ব্যাঙ্গালোরের হোসুর রোডের এক বহুতলে | তিনজনকে ভর্তি করা হয়েছে হাসপাতালে | শারীরিক চিকিৎসার পাশাপাশি চলবে কাউন্সেলিংও |

পুলিশ জানিয়েছে দুই মেয়েকে নিয়ে ৩০ বছর ধরে ওই ফ্ল্যাটে আছেন ষাটোর্ধ্ব প্রৌঢ়া | বড় মেয়ের বয়স ৩৯ বছর | ছোট মেয়ে ৩৭ | অনেক বছর হল প্রৌঢ়ার স্বামী তাঁদের ফেলে চলে গেছেন |

তার পর থেকে বিভিন্ন ধর্মস্থান এবং হোটেলে ভিক্ষে করেই দিন গুজরান হয়ে আসছে মা ও দুই মেয়ের | ফ্ল্যাটের মালিকানা আছে ঠিকই | কিন্তু অর্থাভাবে চলে গেছে জল ও বিদ্যুৎ সংযোগ | নেই ফ্ল্যাটের মূল দরজাও |

প্রতিবেশীদের অভিযোগ‚ ওই প্রৌঢ়া বহুতলের বাকি বাসিন্দাদের খুবই উত্যক্ত করতেন | মল এবং মূত্র ছুড়ে ফেলতেন অন্য বাড়িতে | সহ্য করতে পারতেন না বাচ্চাদের | চিৎকার করে ভয় দেখাতেন | তাঁদের এহেন আচরণে অনেকেই ফ্ল্যাট ছেড়ে অন্যত্র চলে গেছেন বলে অভিযোগ | কিছু বলতে গেলেই তিনজনে চিৎকার করে এত ভয়ঙ্কর অবস্থা তৈরি করতেন যে সবাই হাল ছেড়ে দেন |

শেষে বাধ্য হয়ে স্থানীয় টিভি চ্যানেলে জানায় পড়শিরা | সেখান থেকে খবর যায় পুলিশে | পুলিশ এসে উদ্ধার করেছে তিনজনকে | জানিয়েছে‚ অত্যন্ত দুর্গন্ধ ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে থাকতেন তাঁরা | প্রৌঢ়ার ছোট মেয়ের মানসিক সমস্যা আছে বলেও দাবি প্রতিবেশীদের | তাঁকে ঘরে বন্ধ করে মা ও বড় মেয়ে ভিক্ষে করতে বেরোতেন বলে জানা গিয়েছে | পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিশ | প্রৌঢ়ার স্বামীর সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা চলছে |

আরও পড়ুন:  ছিল রুমাল‚ হয়ে গেল বিড়াল ! চণ্ডীগড়ের কিশোর আদৌ চাকরিই পাননি গুগলে
Sponsored
loading...

NO COMMENTS