বাবা-মায়েরা কারণে অকারণে আজকাল নিজেদের বাচ্চার ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করতে চান | আসলে বাবা মায়েরা তাদের আনন্দ অন্যদের সঙ্গে ভাগ করে নিতে চান | কিন্তু সব কিছু কি সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করা উচিত? বাচ্চার খুঁটিনাটি পোস্ট করে তাকে বিপদে ফেলছেন না তো? এই জিনিসগুলো সত্ত্বর পোস্ট করা বন্ধ করুন |

# বাচ্চাদের চান করার ফটো : বাচ্চার পার্শিয়াল নেকেড বা পুরো নগ্ন চানের ছবি কোনদিন সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করা উচিত নয় | আপনার হয়তো এই ছবি ভীষণ মিষ্টি আর নিষ্পাপ লাগতে পারে কিন্তু এই ছবি খারাপ লোকের হাতে পড়লে কী হবে একবার ভেবে দেখুন |

# বাচ্চার সঙ্গে যেখানেই চেক ইন করেন তার আপডেট দেওয়া : এইভাবে কিন্তু একজনের পক্ষে আপনার এবং আপনার বাচ্চার গতিবিধির ওপর নজর রাখতে সুবিধে হবে | আপনি নিশ্চয়ই চাইবেন না আপনার বাচ্চা কী করছে কোথায় যাচ্ছে তা অন্যরা জানুক | তাই দয়া করে সোশ্যাল মিডিয়াতে এইসব খুঁটিনাটি পোস্ট করা বন্ধ করুন |

# সোশ্যাল মিডিয়াতে বাচ্চার প্রোফাইল তৈরি করা : অনেকেই আছেন যারা সোশ্যাল মিডিয়াতে বাচ্চার প্রোফাইল তৈরি করে থাকে | আর এই প্রোফাইলে বাচ্চার ছবি এবং অন্য খুঁটানিটি পোস্ট করে থকেন | এইভাবে কিন্তু আপনি আপনার বাচ্চার প্রাইভেসিতে হস্তক্ষেপ করছেন | তার বাচ্চাবেলার ছবি আপনি সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করেছেন তা কিন্তু বড় হয়ে তার ভালো নাও লাগতে পারে |

# বাচ্চার নগ্ন ছবি পোস্ট করা : মনে আছে একবার একজন মা তার বাচ্চার নগ্ন প্রাইভেট পার্টের ছবি পোস্ট করেছিলেন | আসলে সেই বাচ্চার সেখানে rash বেরিয়েছিল | উনি সেই ছবি পোস্ট করে রেমিডি খুঁজছিলেন | এই ধরণের ছবি দেখে অন্যদের খারাপ তো লাগবেই | একই সঙ্গে এই ধরণের ছবি পর্নোগ্রাফারদের হাতেও পড়তে পারে |

# বাচ্চার ডিটেলস শেয়ার করা : বাচ্চা কোন স্কুলে পড়ে বা তার বন্ধুদের খুঁটিনাটি সোশ্যাল মিডিয়াতে দেওয়াও বেশ বিপজ্জনক হতে পারে |

অপনি হয়তো ভাবছেন বাচ্চার ছবি সোশ্যাল মিডিয়া থেকে ডিলিট করে দিলেই তা আর কেউ দেখতে পাবে না | এই ধারণা কিন্তু ভুল | ইন্টারনেটে একবার যা পোস্ট করেন তা সম্পূর্ণ রূপে ডিলিট করা খুব কঠিন |

আরও পড়ুন:  জানেন কি তেজপাতা শুধু রান্নায় ফ্লেভার আনতেই সক্ষম নয়? জেনে নিন তেজপাতার ১০ টি স্বাস্থ্যকর গুণ

NO COMMENTS