দেশে নিষিদ্ধ হল তিন তালাক প্রথা | যুগান্তকারী রায় দিল সুপ্রিম কোর্ট | এই ঐতিহাসিক পালাবদলের পিছনে সক্রিয় পাঁচ রমণীর আইনি লড়াই | আগামী ছ মাসের মধ্যে তিন তালাক নিয়ে তৈরি হবে নতুন আইন | তার মধ্যে স্বামী তিন তালাক দিলে আদালতের দ্বারস্থ হতে পারবেন স্ত্রী |

আসুন দেখে নিই‚ সেই বীরাঙ্গনাদের‚ যাঁরা স্বামী পরিত্যক্তা হয়ে  তালাক  প্রথাকে কফিনবন্দি করলেন | আইনি যুদ্ধ করে |

শায়ারা বানো :

উত্তরাখণ্ডের কাশীপুরের নিম্নবিত্ত পরিবারের মেয়ে | বিয়ে হয়েছিল ইলাহাবাদের রিজওয়ানুর আহমেদের সঙ্গে | অভিযোগ‚ ১৫ বছরের দাম্পত্যে পণ ও যৌতুকের দাবিতে অকথ্য অত্যাচার তো ছিলই | আর ছিল গর্ভপাতের অসহনীয় যন্ত্রণা | স্বামী কোনও জন্ম নিরোধক ব্যবহার করতে দেবেন না | ফলশ্রুতি‚ দুই সন্তানের পরে অন্তত সাত আটবার গর্ভপাত | শেষে অবসাদগ্রস্ত শায়ারার সঙ্গী একরাশ ওষুধ | সুস্থ হতে স্বামী পাঠিয়েছিল বাবা মায়ের কাছে‚ উত্তরাখণ্ডে | দুই কিশোর-কিশোরী সন্তানকে শ্বশুরবাড়িতে রেখে সুস্থ হতে এসেছিলেন শায়ারা | স্বামী বলেছিল‚ নিতে আসবে | ছ মাস অপেক্ষা করেও আসেনি | বদলে এসেছিল তালাকনামা | ২০১৫-র অক্টোবরে | জঘন্য এই প্রথার বিরুদ্ধে আদালতে আবেদন করেন শায়ারা |

আফ্রিন রেহমান :

রীতোমতো ম্যাট্রিমোনিয়াল সাইট দেখে সম্বন্ধ করে বিয়ে | অভিযোগ‚ বিয়ের দু তিন মাস পরেই শুরু হল পণের দাবিতে মানসিক অত্যাচার | বাবা-মায়ের পছন্দ করা জামাইও দাঁড়াল না আফ্রিনের পাশে | ২০১৪ সালে বিয়ে হয়েছিল জয়পুরের মেয়ে আফ্রিনের | গত বছর এসেছিলেন বাবা মায়ের কাছে | তাঁর আসার কদিন পরে শ্বশুরবাড়ি থেকে এসেছিল আর একটা জিনিস | স্পিড পোস্টে চিঠি‚ লেখা তালাক তালাক তালাক !

গুলশন পারভীন :

উত্তরপ্রদেশের মেয়ে | বিয়ে হয়েছিল ২০১৩ সালে | অভিযোগ‚ পণের দাবিতে নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে সন্তানকে নিয়ে চলে আসেন বাবা মায়ের কাছে | দু বছর আগে | ১০ টাকার স্ট্যাম্প পেপারে তালাকনামা আসতে দেরি করেনি |

 

ইশরত জাহান :

হাওড়ার মেয়ের বিয়ে হয়েছিল তথাকথিত  ভাল পাত্রের সঙ্গে | স্বামী থাকে দুবাইয়ে | ভাল উপার্জন | দাম্পত্যের ১৫ টা বসন্তের পরে উপহার পেয়েছিলেন তিন তালাক | দুবাই থেকে মোবাইল ফোনে |

 

আরও পড়ুন:  তরুণ শ্রমণকে বশ করতে ব্যর্থ হয়ে নিজেও সন্ন্যাস নিয়েছিলেন রূপের আগুন নগরবধূ আম্রপালী

 

আতিয়া সাবরি :

বিয়ে হয়েছিল ২০১৫ সালে | অভিযোগ‚ তাঁর কাছে শ্বশুর শাশুড়ি দাবি করে ২৫ লাখ টাকা বরপণ | একরোখা আতিয়া বলেন‚ কিছুতেই দেওয়া হবে না | মুখ বুজে সহ্য করছিলেন অত্যাচার | কিন্তু বাবা মায়ের আদেশ অমান্য বরদাস্ত করতে পারেনি আতিয়ার স্বামী | এক টুকরো কাগজে ধরিয়ে দিয়েছে তালকানামা | দুই সন্তানকে নিয়ে আতিয়া এখন বাবা মায়ের কাছে | 

সামাজিক চক্ষুলজ্জাকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে এই পঞ্চকন্যা আদালতে যুঝেছেন | বাকি মেয়েদের কুপ্রথার হাত থেকে রক্ষা করতে | 

NO COMMENTS