ধনতেরাসে গয়না বা বাসন কেনার রীতি আমর সবাই জানি | কিন্তু জানেন কি এর পিছনে প্রচলিত আখ্যান ? সেই গল্পে এক চতুর নববিবাহিত কন্যের বুদ্ধির জোরে আয়ুবৃদ্ধি হয় তাঁর স্বামীর |

Banglalive

হিম বলে এক পৌরাণিক রাজা ছিলেন | ১৬ বছর বয়সে তাঁর বিয়ে হয় | বিয়ের আগেই তাঁর স্ত্রী জানতেন‚ বিয়ের চতুর্থ রাতে স্বামীর মৃত্যুযোগ আছে | সেই নির্দিষ্ট রাতে এক ফন্দি বের করলেন ওই তরুণী |

ঠিক করলেন রাতভর জাগিয়ে রাখবেন স্বামীকে | তার আগে নিজের সব অলঙ্কার‚ সোনা রুপোর গয়না বের করে জমা করলেন বধূ | স্তূপ করে রাখলেন শয়নকক্ষের দরজায় | সারা প্রাসাদ আলোকিত করলেন প্রদীপের আলোয় |

এ বার গানে গল্পে জাগিয়ে রাখলেন কিশোর স্বামীকে | এক মুহূর্তের জন্যেও ঘুম নেমে আসতে দিলেন না তাঁর চোখে | এদিকে সাপের বেশে যমরাজ তো এসে হাজির | কিন্তু অলঙ্কার-মুদ্রায় প্রদীপের আলো পড়ে চোখ ধাঁধিয়ে গেল তাঁর | মুহূর্তের জন্য হারিয়ে ফেললেন দৃষ্টি |

কোনদিক দিয়ে শয়নকক্ষে ঢুকবেন বুঝতে না পেরে দরজার মুখে গয়নার স্তূপে উঠে বসে থাকলেন তিনি | শুনতে লাগলেন নববধূর মুখে গান-গল্প | রাত পেরিয়ে ভোর হলে যমরাজ ফিরে গেলেন |

নির্দিষ্ট দিন পেরিয়ে যাওয়ায় তাঁর আর রাজার প্রাণহরণ করা হল না | ফলে নববধূর উপস্থিত বুদ্ধিতে রক্ষা পেলেন রাজা হিম | বলা হয়‚ তাঁর এই রক্ষালাভের তিথি ছিল কার্তিক মাসের ত্রয়োদশী | সেই থেকে ধন ত্রয়োদশী বা ধনতেরাস পালনের সূত্রপাত | অমঙ্গলকে দূর করে সংসারে মঙ্গল আর সৌভাগ্যকে আবাহন করতে এই তিথিতে গৃহস্থের বাড়িতে দীপ জ্বালিয়ে সংসারে সোনা-রুপোর মতো মূল্যবান ধাতুর আগমন করানো হয় |

এদিন সারারাত গয়নার দোকান খোলা থাকলেও অলঙ্কার কিনুন ত্রয়োদশী থাকতে থাকতেই | গুপ্ত প্রেস পঞ্জিকা মতে‚ মঙ্গলবার ত্রয়োদশী তিথি থাকবে রাত ১২ টা ৫৬ মিনিট অবধি | তিথি শুরু হচ্ছে আগের দিন রাত থেকে | তাই দিনভরই আছে ধনত্রয়োদশী | তবে গয়না বা বাসন‚ যেটাই কিনুন না কেন‚ প্রকৃষ্ট সময় হল সন্ধ্যা ৭ টা ১৯ থেকে রাত ৮ টা ১৭ মিনিট | এই সময়ের মধ্যেই সেরে ফেলুন গয়না বা বাসন কেনার পর্ব |

আরও পড়ুন:  বিশেষ পাখি একটি‚ ডিম পেড়েছে চারটি; বন্ধ হতে বসেছে বিখ্যাত মিউজিক ফেস্টিভ্যাল

NO COMMENTS