ধূমকেতুর দিকে

    বেলেতোরের জঙ্গল পেরিয়ে, পাঁচলার জঙ্গল পার হয়ে আমরা চলেছি ধূমকেতুর দিকে। এসি গাড়ির ভিতর থেকে প্রশ্ন করছি এরা কি সব বনপার্টি? এই যে মাটির ঘর, যা ভাঙতে পেরে হাতিরা খুব খুশি হয়, এ সবই কি আদিবাসীদের? এই যে বাবা কপিলেশ্বর, অগতির গতি মহাদেব, বয়সের ভারে ন্যুব্জ অথচ ভক্তদের আবদার মেটাতে গাজনের সারাদিন সারারাত, গাঁজা-শরীরক্ষয়,উনি কি আদিবাসী? লাঠি হাতে হাতি পাহারায় জেগে থাকেন উনি?রাত্রি দেড়টায় মহুয়ার নেশায় উল্টে পড়ে আছেন কপিলেশ্বর, পরপর হেরে গিয়ে আবার বাজি ধরছেন ঝান্ডিতে,কোন কষ্টিপাথরে তৈরি হয় এমন সুঠাম শরীর? ঘরে যে অতগুলো কাচ্চা-বাচ্চা-পার্বতী, বাবা বাড়ি ফিরবেন না?শহুরে প্রশ্ন শুনে হেসে ওঠেন বনপার্টি, আদিবাসী আমাদের কপিলেশ্বর।

    SHARE

    LEAVE A REPLY