ভারতীয় চলচ্চিত্রে তিনি বটবৃক্ষের ছায়া | মহামানবতুল্য ভাবমূর্তি | সেই অমিতাভ বচ্চনের জন্মদিন বুধবার | তাঁর কাজ ও জীবনের অন্যান্য দিক নিয়ে বহুচর্চা হয়েছে | এখানে নয় তুলে ধরা হোক তাঁর নাম | অমিতাভনামটির অর্থ ও ব্যুৎপত্তি |

নানা ক্ষেত্রে এই নামে বহু দিকপাল রয়েছেন | তাঁদের সবাইকে শ্রদ্ধা জানিয়েই নয় একটু খননকার্য চলুক চার অক্ষরের নামটির উৎস সন্ধানে | 

সম্পূর্ণ তৎসম শব্দ অমিতাভ-র অর্থ হল অমিত আভা যাঁর | এবং স্বয়ং গৌতম বুদ্ধের আর এক নাম অমিতাভ | বৌদ্ধ ধর্মের মহাযান শাখায় তথাগতকে অমিদা এবং অমিতায়ুস বলেও উল্লেখ করা হয়েছে | পূর্ব এশিয়ার বৌদ্ধ ধর্মে অমিতাভই মূল বুদ্ধ | বজ্রযান বৌদ্ধ ধর্মে অমিতাভ হলেন অশেষ জ্ঞানের প্রতীক | চির শাশ্বত আলোকবর্তিকা |

মহাযান শাখায় প্রচলিত আছে অমিতাভ সূত্রও | বলা হয়‚ বহু জন্ম ধরে জ্ঞানের সন্ধান করেছেন তিনি | অবশেষে সেই বোধিজ্ঞান বা বুদ্ধত্ব প্রাপ্ত হয়ে সুখবতী লোকে বিচরণ করেন তিনি | 

তিব্বত ও মঙ্গোলিয়াতেও যে বৌদ্ধ ধর্ম প্রচলিত সেখানে অমিতাভ রূপে পূজিত হন বুদ্ধদেব | তাঁর বিগ্রহের হাতে অমৃতপূর্ণ পাত্র দেখা যায় | চিনে চিনাভাষায় বুদ্ধকে বলা হয়  ফো | অমিতাভকে বলা হয় আমিতুওফো বা এমিতুওফো | এমনকী সন্তানের নামকরণের সময়েও চিনবাসীরা অমিতাভ শব্দকে গুরুত্ব দেন | অনেকেরই নাম হয় উলিয়াংগুয়াং বা উলিয়াংশুও | প্রথমটির অর্থ শাশ্বত আলো এবং দ্বিতীয়টির শাশ্বত জীবন | ভিয়েতনাম‚ কোরিয়া এবং জাপানেও প্রচলিত অমিতাভ নাম | তবে ভাষা বিশেষে পাল্টে যায় উচ্চারণ ও রূপ |

বহু মুদ্রায় পাওয়া যায় অমিতাভ মূর্তি | তার মধ্যে সবথেকে বিখ্যাত হল ধ্যানরত বা সমাহিত অমিতাভ | এখনও অবধি যে অমিতাভ মূর্তিগুলো আবিষ্কৃত হয়েছে সেগুলোর মধ্যে প্রাচীনতমটি উদ্ধার করা হয়েছে পাকিস্তানের গোবিন্দপুর থেকে | এখন সংরক্ষিত মথুরার সংগ্রহশালায় | মনে করা হয় খ্রিস্টিয় দ্বিতীয় শতকে কুষাণ সাম্রাজ্যের শেষে যখন বিকশিত হয়েছিল হুবিষ্কা শাসন‚ তখন এটি নির্মিত হয়েছিল | 

মধ্য এশিয়ায় গান্ধার যুগেও অত্যন্ত জনপ্রিয় ও প্রভাবশালী ছিল অমিতাভ সূত্র | সমসাময়িক বহু মূর্তি আবিষ্কৃত হয়েছে | আরও একটি বিখ্যাত অমিতাভ বিগ্রহ আছে‚ কালো পাথরের | পূর্ব ভারতে পাল বংশের শাসনকালে নির্মিত | ভারতবর্ষে বৌদ্ধযুগের শেষ লগ্নে ক্ষমতায় এসেছিলেন পাল বংশের রাজারা | তাঁরাই ভারতের শেষ রাজবংশ‚ যাঁরা বৌদ্ধ ধর্মের পৃষ্ঠপোষক ছিলেন | এরপর মধ্যযুগে ভারতবর্ষে ইসলামিক আক্রমণে ধুয়ে মুছে যায় বৌদ্ধ প্রভাব |

নাম অমিতাভ নিয়ে যখন এত কথা হল‚ তখন পদবী বচ্চনই বা বাকি থাকে কেন ?

অমিতাভের বাবা হিন্দি ভাষার বিখ্যাত সাহিত্যিক হরিবংশ রাই শ্রীবাস্তব | তাঁদের পিতৃপুরুষের বংশ আদপে অওয়ধি শ্রীবাস্তব কায়স্থ পরিবার | পরে এসেছিলেন ইলাহাবাদে | হরিবংশের ডাকনাম ছিল  বচ্চন | যার অর্থ‚ বাচ্চা | পরে তিনি সেটিকে নিজের পদবীর সঙ্গে জুড়ে নেন | পুরো নাম হয় হরিবংশ রাই শ্রীবাস্তব বচ্চন | তাঁর সুপুত্র শ্রীবাস্তব-কে বাদ দিয়ে বেছে নেন শুধু বচ্চন | স্বনামধন্য বাবার ডাকনাম সুযোগ্য উত্তরসুরীর কল্যাণে হয়ে ওঠে একটি প্রতিষ্ঠান |

আরও পড়ুন:  প্লাস্টিক সার্জারি করে হতে চেয়েছিলেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি...পরিবর্তে যেমন হলেন কিশোরী !

NO COMMENTS