কিছুতেই কাটছে না অস্থিরতা | কারাগারের কুঠুরিতে ছটফট করছেন গুরমীত রাম রহিম বাবা | শুধু মানসিক উদ্বেগ নয় | চিকিৎসকদের ধারনা‚ তীব্র যৌন আসক্তি মেটাতে না পেরেই এই অস্থিরতা | ডেরায় এতদিন নিজের সাম্রাজ্যে করে এসেছেন যথেচ্ছ নারীসঙ্গ | কিন্তু জেলে তো সেই সুযোগ নেই | ফলে ছটফটানি কমছেই না | বাবাজির দরকার মানসিক চিকিৎসার | নইলে বাড়তে পারে সমস্যা | এমনই অভিমত জেলের চিকিৎসকদের | প্রকাশিত সংবাদমাধ্যমে |

গুরমীত কাণ্ডে মূল সাক্ষী গুরুদাস সিংহ | প্রাক্তন এই ডেরা সদস্যের দাবি‚ ১৯৮৮ থেকে নিয়মিত মদ্যপান করেন গুরমীত | সঙ্গে আছে মাদকাসক্তিও | এনার্জি ড্রিঙ্ক‚ সেক্স টনিক ছাড়াও চলে না বাবাজির | অস্ট্রেলিয়া থেকে তাঁর জন্য আসত যৌনশক্তি বর্ধক ওষুধ | জেলে তো এই সুখ সঙ্গম বন্ধ | বহুবার চেয়েছিলেন বাবাজি‚ কিছু না হোক‚ অন্তত হানিপ্রীত জেলে থাকুক তাঁর সঙ্গে | পালিতাকন্যা নাকি ভাল ফিজিয়োথেরাপিস্ট | তাঁর হাতের মালিশ না হলে ঘুম হয় না | কিন্তু সে আবেদনও মঞ্জুর হয়নি | এত অভুক্ত থাকতে হচ্ছে বলেই কি অস্থিরতা কাটছে না ধর্ষক গুরুজির?

রোহতক হেলের চিকিৎসকদের অভিমত‚ গুরমীত রাম রহিম তীব্র যৌন-আসক্ত | যাকে বলে সেক্স অ্যাডিক্ট | অথচ গুণধর বাবাজি অতীতে আদালতে দাবি করেছিলেন তিনি নপুংসক | আদালত পাল্টা প্রশ্ন করেছিল‚ তিনি যদি নপুংসক হন‚ তবে কী করে তিন সন্তানের জন্মদাতা হলেন ? এতেই নুন পড়ে মিথ্যের জোঁকের মাথায় |

আরও পড়ুন:  "আচ্ছা মা, তোমার মনে হয় না দশ হাত থাকাটা আনডিউ অ্যাডভান্টেজ ?

NO COMMENTS