অমিতাভ-রেখা থেকে শুরু করে ছিলেন আমির খানের মত তারকারাও‚ তবু কেন মুক্তি পেল না এই ছবিগুলো?

শুধুমাত্র বিনোদনের জন্য সিনেমা বানানো হয় না |এতে থাকে বার্তাও। আর সেই ছবি তৈরি করতে যেমন একদিকে থাকে নির্মাতাদের ভাবনা চিন্তা পরিশ্রম,অন্যদিকে থাকে অভিনেতা অভিনেত্রীদের কঠোর চর্চা ও পরিশ্রম। ছবির পরিচালক প্রযোজক থেকে শুরু করে মেকাপম্যান, ক্রিউ, সহ পরিচালক, অভিনেতা, অভিনেত্রী, চিত্রনাট্যকার, সুরকার সবাই একজোট হয়েই তৈরি করেন একটি ছবি। যার জন্য সময় লেগে যায় মাসের পর মাস কখনও বা কয়েকবছরও। তবে গিয়ে দর্শক দেখতে পান একটি পরিপূর্ণ ছবি। ব্যস্ত জীবনে একটুকু বিনোদন পেতেই অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে থাকেন দর্শকেরা। তবে ভাবুনতো কোন ছবি যদি শুটিং শেষের পরও রিলিজ না হয় তাহলে কতটা ব্যর্থ হয়ে যায় সেই পরিশ্রম। হ্যাঁ, বলিউডে এমন অনেক ছবি আছে শুটিং শেষ হয়ে গেলেও রিলিজ হয়নি কোনদিনও। 

১। আপনা পরায়া

প্রথম রেখা-অমিতাভের জুটি বেঁধেছিলেন ১৯৭৬ সালে ‘দো অঞ্জানে’ ছবির মাধ্যমে। তাই জানতেন তো এতদিন? হ্যাঁ,দর্শকদের সামনে এই ছবিতে তাঁদের প্রথম দেখা গেলেও  ১৯৭২ সালে ‘আপনা পরায়া’ ছবিতে  প্রথম জুটি বেঁধেছিলেন অমিতাভ-রেখা। সেই ছবির শুটিংও শেষ হয়ে এসেছিল তবে কোনদিন সেই ছবি রিলিজ হয়নি । 

২। দেবা

বলিউডে আজ অবধি কোনদিন পরিচালক সুভাষ ঘাই এর সঙ্গে অমিতাভ বচ্চনকে কাজ করতে দেখেননি দর্শক। তাঁর পিছনে কারণ হল ১৯৮৭-এর ‘দেবা’ ছবিটি। এই ছবিতে সুভাষ ঘাই-এর সঙ্গে কাজ করতে শুরু করলেও পরবর্তীকালে পারস্পরিক মতবাদ হওয়ায় সেই ছবি থেকে বেরিয়ে আসেন বিগ-বি। তাই সেই ছবির শুটিং কয়েক সপ্তাহ এগোলেও ছবিটি না করার সিদ্ধান্ত নেন পরিচালক।  

৩। বঁধুয়া

Related image

১৯৮৯ সালে ‘বঁধুয়া’ নামের একটি ছবির শুটিং হয়,যেই ছবিতে ছিলেন অমিতাভ বচ্চন ওয়াহিদা রহমন ও পূজা বেদীও। জে পি দত্ত-এর পরিচালনায় এই ছবিতেই প্রথম কাজ করেছিলেন অমিতাভ। তবে শেষ অবধি নাদিয়াওয়ালা প্রযোজিত ছবিটি রিলিজ হতে পারেনি থিয়েটারে। 

৪। আলিশান

১৯৮৮ সালে ‘আলিশান’ নামক একটি ছবিতে কাজ করেছিলেন অমিতাভ বচ্চন। সেখানে একজন দাম্ভিক বিদূষকের চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি। ছবির শুটিং-এর পাশাপাশি পোস্টারও রিলিজ হয়ে যায়।তবে ছবিটি শেষ অবধি পৌঁছোতে পারে না থিয়েটারে।  

৫। সরফরোশ

১৯৭৯ সালে মনমোহন দেসাই-এর পরিচালনায় ‘সরফরোশ’ নামক একটি ছবিতে কাজ করেছিলেন বিগ-বি। সঙ্গে ছিলেন পরবিন ববি,ঋষি কপূর কাদের খান সহ আরও অনেক তারকাই। তবে শেষ অবধি দর্শকদের কাছে পৌঁছাতে পারেনি ছবিটি। 

৬। টাইম মেশিন

১৯৯২ সালে শেখর কপূরের পরিচালনায় আরও একটি সাইন্স ফিকশন ছবি তৈরি হয়েছিল বলিউডে। নাম ‘টাইম মেশিন’।  মূল চরিত্রে ছিলেন আমির খান এবং রবিনা টন্ডন। ছিলেন নাসিরুদ্দিন শাহও। তবে দর্শকদের কাছে পৌঁছাতে পারেনি ছবিটি। 

৭। জমিন

১৯৮৮ সালে আরও একটি ছবি দর্শকদের সামনে আনতেন রমেশ সিপ্পি। নাম ‘জমিন’। ছবিটিতে অভিনয় করার কথা ছিল শ্রীদেবী এবং মাধুরী দীক্ষিত দুই অভিনেত্রীরই। শুটিংও শেষ হয়ে গিয়েছিল অনেকখানি। তবে মাঝপথেই বাজেটের সমস্যার জেরে দুই অভিনেত্রী বেরিয়ে আসায় ছবির গতি আটকে যায়। ছবিটিতে মূল চরিত্রে ছিলেন বিনোদ খান্না।

৮। শু-বাইট

সুজিত সরকারের পরিচালনায় এবং অমিতাভ বচ্চন অভিনীত ‘পিকু’ ছবিটি দর্শকদের পছন্দের ছবির মধ্যে একটি। তবে জানেন কি এই পরিচালক-অভিনেতা জুটি ২০১৮ সালেও ‘শু-বাইট’ নামে একটি ছবি করেছিলেন। তবে কোনপ্রকার বাজেটের সমস্যা এসে পড়ায় ছবিটি রিলিজ হতে পারে না। এই ছবিটি রিলিজের জন্য বিশেষভাবে বিগ-বিকে মিনতি করতে দেখা যায় নিজের সোশ্যাল ওয়ালে। এমনকি পরিচালক এমনও বলেন “এই ছবির জন্য আমি নিজের সবকিছু বিক্রি করে দিতে পারি। শুধু ছবিটি রিলিজ হওয়ার অনুমতি দিয়ে দিন।” 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.