বর্তমান কর্মব্যস্ততায় সংসারে মেয়েদের অংশগ্রহণ পুরুষদের তুলনায় অনেক বেশি। অফিসের যাবতীয় কাজের চাপ সামলে, ঘর-সংসারের কাজও সমান দক্ষতা ও নৈপূণ্যের সঙ্গে প্রতিদিন সামলে চলেন। তবে যে সব মহিলারা শুধু হাউজওয়াইফ বা গৃহবধূ তাঁদের পরিশ্রমের সঠিক মূল্যায়ন বেশিরভাহ ক্ষেত্রেই করা হয় না। অনেকেরই এ বিষয়ে ভ্রান্ত ধারণা রয়েছে। তারা মনে করেন ঘরোয়া কাজ মানেই, সহজ কাজ। 

গবেষকদের মতে, দৈনন্দিন গৃহস্থালীর কাজে যে পরিমাণ ক্যালোরি খরচ হয় তা সারাদিন বাসে-ট্রামে যাতায়াতের ঝক্কি, অফিসের কাজের চাপের তুলনায় কোনও অংশেই কম নয়, বরং বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই বেশি! এ বার জেনে নেওয়া যাক, রোজকার গৃহস্থালীর কোন কাজে খরচ হয় কত ক্যালরি। 

যাঁরা প্রতিদিন রান্না-বান্না করেন, আমাদের মা-ঠাকুমা বা হাউজওয়াইফরা তাঁদের এই কাজে অন্তত ১০০ ক্যালোরি খরচ হয়।

সকালের জলখাবার থেকে শুরু করে নৈশভোজের পর, সব মিলিয়ে সারাদিনে কম বাসন জমা হয় না। সারাদিনে এই বাসন ধোয়ায় অন্তত ১২৫ ক্যালোরি খরচ হয়।

Banglalive-8

ঘর পরিষ্কার রাখতে প্রতিদিন অন্তত একবার ঘর ঝাঁট দিতেই হয়। আর এই কাজটা যারা নিজে করেন তারা প্রতিদিন অন্তত ১২৫ ক্যালোরি খরচ করেন।

Banglalive-9

পরিষ্কার করে প্রতিদিন ঘর মোছা মোটেই সহজ কাজ নয়। মাত্র ২০ মিনিট ঘর মুছতে প্রায় ১৫০ ক্যালরি খরচ হয়। তাহলেই ভাবুন কত পরিশ্রমের কাজ ঘর মোছা!

রুটি বানানোর জন্য গিয়ে আটা মাখতেই খরচ হয় প্রায় ৫০ ক্যালোরি।

কাপড় কাচার জন্য এখন অনেকেই ওয়াশিং মেশিনের ব্যবহার করেন। তবে যারা ওয়াশিং মেশিন ছাড়া নিজেরাই প্রতিদিন কাপড় কাচাকাচি করেন তাদের এ কাজে অন্তত ১৩০ ক্যালোরি খরচ হয়।

এইভাবেই ঘরের সব কাজ মিলিয়ে প্রতিদিন প্রায় ৬৮০ থেকে ৭০০ ক্যালোরি খরচ হয়। গৃহস্থালীর এমন আরও অনেক কাজ রয়েছে, যার হিসেব আমরা অনেকেই রাখি না। তাই যে সব মহিলা শুধু ঘর-সংসারের দায়িত্ব সামলান তাদের কাজও যথেষ্ট পরিশ্রমসাধ্য। এতে আর কোনও সন্দেহ প্রকাশ করবেন না!

আরও পড়ুন:  খালি পেটে ফল খাওয়ার উপকারিতা অনেক। জেনে নিন কী কী...

Tags: household jobs, calories burn, home service, ঘরোয়া কাজ, পরিশ্রম,

NO COMMENTS