‘ধর্মান্ধ হিন্দুরা ‘Sensatinoal’ কাণ্ড ঘটায়’

Samjhauta Express,হায়দ্রাবাদের Mecca Masjid এবংMalegaon |তিনটি বিস্ফোরণের ক্সেত্রেই দায়ীHindu Fanatics | বলছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকেরmonthly report | ধর্মান্ধতার দায়ে এই অভিযুক্তরা National Investigation Agency বা NIA-এর হাতে গত মাসে গ্রেফতার হয়েছে |

শুধু বিভিন্ন বিস্ফোরণ্-কাণ্ডই নয়্ | বেশ কিছু খুনের ঘটনাতেও জড়িত তারা | স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী Sushilkumar Shinde জানিয়েছেন এই অভিযুক্তরা হল Rajender Chaudhary,
Manohar Singh, Dhan Singh এবং Tej Ram | সরকারি আধিকারিকদের দাবি, বিস্ফোরণের ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে অভিযুক্তরা |

জেরায় তারা স্বীকার করেছে মধ্য়প্রদেশের খ্রিস্টান সন্ন্য়াসিনী হত্য়া, জম্মুর মসজিদে গ্রেনেড ছোড়া, মধ্য়প্রদেশে আরও দুটি হত্য়াকাণ্ডে জড়িত থাকার কথাও |

২০০১ সালে মধ্য়প্রদেশের উজ্জয়িনীতে খুন হন খ্রিস্টান সন্ন্য়াসিনী Leena Veena | মোটরবাইকে করে আততায়ীরা এসে ৩০ বছর বয়সী এই নানের মুখে গুলি করে | উজ্জয়িনী থেকে দেওয়াস যাওয়ার রাস্তায় লুটিয়ে পড়েন তিনি |

এরপর মধ্য়প্রদেশেই চাঞ্চল্য় ছড়ায় Ramesh Ninama খুনের ঘটনায়্ | আদালতে সাক্স্য় দিতে যাওয়ার সময় খুন হন তিনি | Manpur থেকে Mhow-এর আদালতে যাওয়ার পথে Nandlai Ghati এলাকায় গুলিবিদ্ধ হয়ে খুন হন তিনি |

এই খুনের ঘটনাগুলোতেও জড়িত থাকার কথা অভিযুক্তরা স্বীকার করেছে বলে পুলিশের দাবি |

অভিযুক্তদের Hindu Fanatics বলেই উল্লেখ করা হয়েছে | তবে এই তকমা নিয়েও দেখা দিয়েছে সমালোচনা | অভিযোগ, UPA সরকারের শাসনে ইচ্ছাকৃতভাবে অভিযুক্তদের গায়ে এই তকমা লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে |

এই না হলে ভারতবর্ষ! এখানে OWAISI-রাও আছেন্ | আবার অমুক তমুক সাধ্বী,বিভিন্ন বাবাজি, গুরুজিরাও আছেন্ | শুধু সব জায়গায় বড় বড় করে লেখা থাকে ‘এই দেশ ধর্মনিরপেক্স’ | এই না হলে ভাবের ঘরে চুরি! সাধু সাধু!

(ব্য়বহৃত ছবিটি প্রতীকী)

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Please share your feedback

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কফি হাউসের আড্ডায় গানের চর্চা discussing music over coffee at coffee house

যদি বলো গান

ডোভার লেন মিউজিক কনফারেন্স-এ সারা রাত ক্লাসিক্যাল বাজনা বা গান শোনা ছিল শিক্ষিত ও রুচিমানের অভিজ্ঞান। বাড়িতে আনকোরা কেউ এলে দু-চার জন ওস্তাদজির নাম করে ফেলতে পারলে, অন্য পক্ষের চোখে অপার সম্ভ্রম। শিক্ষিত হওয়ার একটা লক্ষণ ছিল ক্লাসিক্যাল সংগীতের সঙ্গে একটা বন্ধুতা পাতানো।