সারাক্ষণ রাশি রাশি কাজের বোঝা, সংসারের চাপ, হাজার চিন্তায় ক্লান্ত প্রতিটি মানুষ| এই ক্লান্তি যত না শরীরে মনে তার থেকেও বেশি| আর শরীর-মন ক্লান্ত হলে রক্তচাপ বাড়বেই| এই দুই সমস্যার একটাই কারণ, শরীরে ম্যাগনেশিয়ামের অভাব| খনিজ পদার্থের এই অভাব মেটাতে কত ওষুধ খাবেন? তার থেকে রোজের ডায়েট-এ রাখুন এমন কিছু খাবার যা সহজেই আপনার ক্লান্তি দূর করবে| রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখবে| ম্যাগনেশিয়ামের অভাব পূরণ করবে| জেনে নিন সেই খবরগুলি কী কী—

Banglalive

কলা: বাজারে কলা আকছার মেলে| কলা গাছ থেকে পাওয়া কাঁচকলা, থোড়, মোচা যেমন রক্তে লোহিত কণিকার মাত্রা বাড়ায় তেমনি পাকা কলা ঘাটতি মেটায় ম্যাগনেশিয়ামের| একটি মাঝারি মাপের কলায় ৮% ম্যাগনেশিয়াম থাকে| এই জন্যেই ডাক্তারবাবুরা ব্রেকফাস্টে রোজ কলা খাওয়ার পরামর্শ দেন| আর আপনিও নিশ্চিন্তে কমসেকম ২টি কলা তো খেতেই পারেন|

ঢ্যাড়স: ১ কাপ ঢ্যাড়স সেদ্ধয় আপনি পাবেন ১৪% ম্যাগনেশিয়াম| অল্প দামের এই সবজি খেলে যদি এতটাই খনিজ পদার্থ মেলে তাহলে রোজ খেতে ক্ষতি কী?

মুসুর ডাল: মুসুর ডাল এতটাই পুষ্টিকর যে ডাক্তারবাবুরা বাচ্চাদের নিয়মিত ডালের জল খাওয়ার পরামর্শ দেন| এই ডাল যতটা বাচ্চাদের জন্য উপকারী ঠিক ততটাই বড়দের জন্যও| কারণ, এতে আছে ১৮% ম্যাগনেশিয়াম| তাই নিয়মিত ভাতের পাতে এ ডাল থাকলে আপনি অনেকটাই চনমনে| ম্যাগনেশিয়ামের গুণে!

কুমড়োর দানা: বাড়িতে নিশ্চয়ই কুমড়ো আসে? আর আপনি দানা ছাড়িয়ে সেই কুমড়ো দিয়ে তরকারী, চচ্চড়ি রেঁধে খান? আসলে আপনি তো জানেনই না, কুমড়োর দানায় প্রায় ১৯% ম্যাগনেশিয়াম থাকে| তাই ফেলে না দিয়ে বরং দানা রোদে শুকিয়ে কৌটোয় ভরে রাখুন| পরে রান্না করেও খেতে পারেন| কিংবা ওষুধের মতো করে জল দিয়ে গিলে নিতে পারেন| ফল একই পাবেন|

ডুমুর: খুব সস্তায় পুষ্টিকর খাবার এই ডুমুর| ডুমুরে প্রচুর আয়রন আছে| তাই যাঁরা অনিমিয়ায় ভোগেন তাঁরা রোজ এই ফলটি খেতে পারেন| এছাড়াও, ডুমুরে আছে ২৫% ম্যাগনেশিয়াম| শরীরের ক্লান্তি মেটাতে এর থেকে ভালো উপাদান আর কী হতে পারে? তবে কম দামে পাওয়া যায় বলে ডুমুরকে কোনো মতেই হেলাফেলা করবেন না!

পালং শাক: শীত সবে যাই যাই করছে| এখনো একেবারে চলে যায়নি| তাই বাজার থেকে পালং শাক এখনো উধাও হয়নি| আর মাত্র এক কাপ পালং শাকে প্রায় ৩৯% ম্যাগনেশিয়াম থাকে| তাহলে আর দেরি কেন? আজই বাজার থেকে নিয়ে আসুন এই শাক| যে ক’দিন আছে নিয়মিত খান| শরীরে ম্যাগনেশিয়াম-এর ঘাটতি যতটা পারেন মিটিয়ে নিন|

সয়াবিন বড়ি বা দানা: এতে আছে ৫০% ম্যাগনেশিয়াম| এর পরেও এটি আপনার পাতে থাকবে না! সস্তার এই পুষ্টিকর খাবার বাড়ির ছোট-বড় সবাইকে খাওয়ান| যাতে কারো শরীরে ম্যাগনেশিয়ামের অভাব না ঘটে|

ডার্ক চকোলেট: চকলেট খেতে কে না ভালবাসে? আর চকলেটপ্রেমী মাত্রেই জানেন ডার্ক চকোলেটের কী অপূর্ব স্বাদ| অনেকেই ভাবেন চকোলেট খেলে ওজন বাড়ে| দাঁত নষ্ট হয়ে যায়| খুব ভুল কথা| ডার্ক চকোলেটে ম্যাগনেশিয়ামের পরিমাণ ৫৮%! এই কারণেই অনেক চিকিত্সক দ্রুত ক্লান্তি কাটাতে ডার্ক চকোলেট খাওয়ার পরামর্শ দেন| ভালো করে মুখ ধুয়ে নিলেই দাঁত নষ্ট হওয়ার ভয় কম থাকবে|

কাজু: একমুঠো বাদাম শরীরে পুষ্টি বাড়ায়| একমুঠো কাজু শরীরে ২০% ম্যাগনেশিয়ামের ঘাটতি পূরণ করে| তাহলে হইচই করে রোজের ডায়েটে একমুঠো কাজুকে সাদর অভ্যর্থনা জানান!

ব্রাউন রাইস: অর্থাত ঢেঁকি ছাটা মোটা, লালচে ভাত| শুনে অনেকেই নাক কোঁচকাবেন| খুব স্বাদু না হলেও এই চাল অত্যন্ত পুষ্টিকর| এই চাল থেকে কমসেকম ২১% ম্যাগনেশিয়াম পাবেন আপনি| সুতরাং নাক না কুঁচকে আজ থেকে ব্রাউন রাইস খাওয়া চালু করুন| পরিবারের সবার সুস্বাস্থ্যের খাতিরে|           

আরও পড়ুন:  মা পরকীয়ায় জড়িত, পড়াশোনা ছেড়েছে সন্তান! কী করবেন অভিভাবক?

NO COMMENTS