সন্তানের জন্ম দিল ১১ বছরের কিশোরী‚ জন্মদাতা নাকি তার নিজের ১৪ বছর বয়সী দাদা

সন্তানের জন্ম দিল ১১ বছরের কিশোরী‚ জন্মদাতা নাকি তার নিজের ১৪ বছর বয়সী দাদা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

সন্তানের জন্ম দিয়েছে ১১ বছর বয়সী বালিকা | এবং শোনা যাচ্ছে নবজাতকের বাবা ওই কিশোরীর ১৪ বছরের দাদা | এই ঘটনা স্পেনের | ওই বালিকা বা তার পরিবার কেউ নাকি আঁচ করতে পারেনি মেয়েটি সন্তানসম্ভবা |

স্পেনের মার্কিয়া প্রদেশের বাসিন্দা ওই বালিকা | কদিন ধরেই অসহ্য পেটে ব্যথার কথা বলছিল বাড়িতে | মেয়েকে নিয়ে বাবা মা যান ভার্জিন দ্য লা অ্যারিক্সাকা হাসপাতালে | হতভম্ব চিকিৎসকরা আবিষ্কার করেন ওই বালিকা সন্তানের জন্ম দিতে চলেছে | তাকে ডেলিভারি রুমে নিয়ে যাওয়ার আগেই ভূমিষ্ঠ হয় সন্তান | হাসপাতাল সূত্রে জানানো হয়েছে বালিকা মা তার সদ্যোজাত শিশু সুস্থ আছে |

বালিকার বয়ান অনুযায়ী তার ১৪ বছর বয়সী দাদাই সদ্যোজাত সন্তানের বাবা | তবে নিশ্চিত হতে ডিএনএ পরীক্ষা করবে পুলিশ | স্প্যানিশ আইন অনুযায়ী সম্মতিক্রমে যৌনসঙ্গমের বয়স ছিল ১৩ বছর | পাঁচ বছর আগে সেই বয়স বাড়িয়ে করা হয়েছে ১৬ বছর | কিন্তু তার চেয়ে কম বয়সীরা সম্মতিক্রমে যৌনতায় লিপ্ত হলে‚ বিচার বিবেচনা করেই শাস্তি দেওয়া হয় | যদি ছেলেটি প্রাপ্তবয়স্ক হয় তবে একমাত্র কঠিন শাস্তির কথা ভাবা হয় | ফলে এক্ষেত্রে বালিকা-মায়ের দাদা যদি সন্তানের বাবা হিসেবে প্রমাণিত হয়‚ তবে তাকে আদৌ কোনও শাস্তি দেওয়া হবে কিনা সন্দেহ |

তাছাড়া এই পরিবারটি আদতে বলিভিয়ার | শরণার্থী হয়ে আছেন স্পেনে | এই বালিকা স্পেনের সর্বকনিষ্ঠ মা নয় | বছর আটেক আগে সন্তানের জন্ম দিয়েছিল ১০ বছর বয়সী এক স্প্যানিশ বালিকা |

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

pandit ravishankar

বিশ্বজন মোহিছে

রবিশঙ্কর আজীবন ভারতীয় মার্গসঙ্গীতের প্রতি থেকেছেন শ্রদ্ধাশীল। আর বারে বারে পাশ্চাত্যের উপযোগী করে তাকে পরিবেশন করেছেন। আবার জাপানি সঙ্গীতের সঙ্গে তাকে মিলিয়েও, দুই দেশের বাদ্যযন্ত্রের সম্মিলিত ব্যবহার করে নিরীক্ষা করেছেন। সারাক্ষণ, সব শুচিবায়ু ভেঙে, তিনি মেলানোর, মেশানোর, চেষ্টার, কৌতূহলের রাজ্যের বাসিন্দা হতে চেয়েছেন। এই প্রাণশক্তি আর প্রতিভার মিশ্রণেই, তিনি বিদেশের কাছে ভারতীয় মার্গসঙ্গীতের মুখ। আর ভারতের কাছে, পাশ্চাত্যের জৌলুসযুক্ত তারকা।