অনাথাশ্রমে শৈশব কাটানো ৮১ বছর বয়সী বৃদ্ধ খুঁজে পেলেন জন্মদাত্রীকে

201

আয়ারল্যান্ডের ডাবলিনে একটি অনাথ আশ্রমে বড় হয়েছেন এলিন ম্যাকেন। তাঁর শৈশব ও কৈশোর কেটেছে একাই। অনাথ আশ্রমে আর পাঁচজন অনাথ শিশুর মতোই কাটত তাঁর দিন । জীবনের প্রতিটি পদক্ষেপে মায়ের অভাব বোধ করতেন তিনি। জন্ম থেকে মা’কে না দেখলেও তিনি বিশ্বাস করতেন এই পৃথিবীর কোথাও না কোথাও তাঁর মা ঠিকই আছেন। কথায় বলে মন থেকে চাইলে নাকি ঈশ্বরকেও পাওয়া যায়। তাই তাঁরও বিশ্বাস ছিল যে একদিন সে তাঁর মা’কে ঠিক খুঁজে পাবেন।

এলিন ম্যাকেন-এর বয়স যখন ১৯ বছর, তখন থেকে তিনি তাঁর মাকে খুঁজতে শুরু করেন। মাঝে কেটে গিয়েছে দীর্ঘ ৬২ বছর। এখন তাঁর বয়স ৮১। গত বছর একটি রেডিও শো-তে অংশ নেন তিনি। সেখানেই জানা যায়, এতদিন ধরে তাঁর পরিবারকে খুঁজে চলেছেন ম্যাকেন। রেডিও শো-তে দুঃখ করে তিনি বলেন যে, তিনি বেঁচে থাকলেও তাঁর পরিবারের কেউ আজ আর তাঁর সঙ্গে নেই। আর অদ্ভুতভাবে এই রেডিও শো-র কিছুদিন পরেই এলিন খুঁজে পেলেন তাঁর হারিয়ে যাওয়া মা’কে। তাঁর মায়ের বর্তমান বয়স ১০৩ বছর। সাধারণভাবে এই বয়সে তাঁর মায়ের বেঁচে থাকার কথাই না। কিন্তু এলিনের বিশ্বাস ছিল, মাকে খুঁজে বের করবেনই। মায়ের মেডিক্যাল রেকর্ড বা কোনও পূর্ব পরিচয় জানা নেই। কিন্তু, মাকে খুঁজে পাওয়ার তিনি বলেন, তাঁর মা’কে যে তিনি ফিরে পেয়েছেন একথা এখনও তাঁর বিশ্বাসই হচ্ছে না। যখন তিনি জানতে পারেন যে তাঁর মা বেঁচে আছে, তাঁর মনে শুধু একটাই ইচ্ছে জেগেছিল যে, কখন তিনি তাঁর মায়ের দেখা পাবেন!

বার্ধক্যজনিত অসুস্থতায় হাসপাতালে এলিন ম্যাকেনের মা। হাসপাতালের চিকিৎসকরা মায়ের মেডিক্যাল রিপোর্ট নিয়ে অনেক প্রশ্ন করেন। তাঁর মা সম্পর্কে এলিন কোনও উত্তর দিতে পারেননি। কারণ তাঁর মা সম্পর্কে তাঁর কোনও ধারণা ছিল না বললেই চলে। চিকিৎসকরা তাঁর মায়ের শারীরিক অবস্থা সংক্রান্ত বিষয়ে নানা কথা জিজ্ঞাসা করায় এলিন তার ঠিকঠাক জবাব দিতে পারছিলেন না। আর তাই চিকিৎসকেরা তাঁকে ভুল বোঝেন। প্রথমে তিনি একটু হতাশ হলেও, তারপর তিনি চিকিৎসকদের জানান, তাঁর ৮১ বছর বয়সে এসে তিনি তাঁর মা’কে খুঁজে পেয়েছেন। তাঁর মা সম্পর্কে কোনও কথাই তিনি জানেন না।  মায়ের সঙ্গে ফোনে তাঁর কথা হয়েছে। কিন্তু তাঁর কোনও কথাই তিনি ঠিকভাবে বুঝতে পারছেন না। তাঁর এবং তাঁর মা-দুজনেরই একটি কানে সমস্যা রয়েছে। এক কানে সব শুনতে পেলেও অন্য কানে কিছুই নাকি শুনতে পান না। কয়েকদিনের মধ্যেই মায়ের সঙ্গে দেখা করতে যাবেন ম্যাকেন। প্রায় ৬০ বছর পর বার্ধক্যে এসে অনাথ ‘শিশু’ ফিরে পেল তাঁর মা’কে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.