আবারও ঘরছাড়া বৃদ্ধ ফিরে পেলেন ঘর । এবারেও সৌজন্যে মানবিক পুলিশ ও সোশ্যাল মিডিয়া। ভাইরাল হওয়া ভিডিও থেকেই হারিয়ে যাওয়া বৃদ্ধের খোঁজ পেলেন পরিবার। 

Banglalive

মুম্বই বাইকুল্লার বাসিন্দা , ৯০ বছরের বৃদ্ধ ভিখাজি পানসারে । গত ৭ই ফেব্রুয়ারি আচমকাই ঘর থেকে বেরিয়ে উধাও হয়ে যান । পরিবারের লোকেরা প্রথমেই আত্মীয়দের মধ্যে খোঁজ করেন । বৃদ্ধ মানুষ , হঠাৎ করে কোথায় বা গায়েব হয়ে যাবেন । রাস্তায় কোনো বিপদ আপদ হয়নি তো ! অজানা আশঙ্কায় কেঁপে ওঠেন পরিবারের সদস্যেরা । হন্যে হয়ে খুঁজে ফেরেন হাসপাতাল , রেলস্টেশন । মিসিং ডাইরিও লেখান বাইকুল্লা পুলিশ স্টেশনে । দিনের পর দিন কোনো খোঁজ না পেয়ে শেষ পর্যন্ত আশা হারিয়ে ফেলেন পরিবারও । ধরেই নেন আর বোধহয় ফিরবেন না পরিবারের প্রবীণতম সদস্যটি ।

এভাবেই পেরিয়ে যায় ৪ মাস । হঠাৎই ভিখাজির প্রতিবেশী এক পুলিশকর্মী অশোক ভুজবল হোয়াটসঅ্যাপে একটি ভাইরাল ভিডিও পান । ভিডিওতে এক পুলিশকর্মী এক অসুস্থ বৃদ্ধকে খাবার খাইয়ে দিচ্ছেন । তাঁদেরই এক সহকর্মীর এমন মহানুভবতা দেখে গর্বে বুক ভরে ওঠে । সহসা চমকে ওঠেন পুলিশকর্মীর পাশে থাকা বৃদ্ধকে দেখে । আরে ! ইনি তো তাঁরই প্রতিবেশী , হারিয়ে যাওয়া ভিখাজি পানসারে । ফোন হাতেই ছুটে যান ভিখাজির বাড়ি । খোঁজ করতে শুরু করেন ভিডিওর এই পুলিশকর্মী কোন থানার । যদিও নিজে মুম্বই শিবাজি পার্কের হেড কনস্টেবল হওয়ায় খুঁজে পেতে বেগ পেতে হয়নি বিশেষ । আরেক সহকর্মীর থেকেই জানতে পারেন ওই পুলিশকর্মী শোলাপুরের হেড কনস্টেবল নাসিরুদ্দিন শাহ । তৎক্ষণাত যোগাযোগ করেন ওই পুলিশকর্মীকে । তিনি তখন সদ্য নাইট ডিউটিতে যোগ দিয়েছেন । বৃদ্ধের বিষয়ে জানাতেই তড়িঘড়ি ওই বৃদ্ধের খোঁজ করার নির্দেশ দেন । খুঁজে পেতেই সঙ্গে সঙ্গে আবার যোগাযোগ করা হয় ওই ভিখাজির পরিবারের সঙ্গে ।  

আরও পড়ুন:  পর্দা উঠে গেল কয়েকশো বছরের সুপ্রাচীন ইতিহাসের উপর থেকে

চার মাস পর আবার ঘরে ফেরার পালা । মুম্বই থেকে শোলাপুর , মাঝে ৪০০ কিলোমিটার দুরত্ব । রাতের মধ্যেই উদ্ধার করে বাবাকে বাড়িতে ফিরিয়ে আনবে ঠিক করেন সন্তানেরা । পুলিশের ও্ই মানবিকতা ও ভিডিও সংগ্রাহকের দৌলতেই শেষ পর্যন্ত খোঁজ পেয়েছেন বাবার । অসংখ্য ধন্যবাদ জানান শোলাপুরের ওই পুলিশকর্মী ও জনৈক চিত্রসংগ্রাহককে । যিনি হয়তো জানেনও না তাঁর করা এক ভিডিও এইভাবে কাউকে ঘর ফিরে পেতে সাহায্য করবে ।

নাসিরুদ্দিন শেখ জানান , তিনি কয়েকদিন আগে প্রথমবারই বৃদ্ধকে দেখতে পান।বাড়ির কথা জানতে চাওয়ায় অসংলগ্ন উত্তর দেন । প্রচন্ড ক্ষুধার্ত ছিলেন , তাই তাঁকে খাইয়েও দেন ।সেই সময়েই রাস্তার একজন ভিডিও করছিল । সেই ভিডিওই সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন তিনি । ভাইরাল ভিডিওই শেয়ার হতে হতে এসে পৌছয় ভিখাজির প্রতিবেশীর ফোনে ।

পরিবারের অনুমান , রাস্তায় বেরিয়ে হয়তো সাময়িক রাস্তা হারিয়ে ফেলেছিলেন বৃদ্ধ ভিখাজি । হয়তো কোনো ট্রেনে চেপে তাই শোলাপুর পৌছে গেছিলেন ।আর ফিরে আসতে পারেননি । চার মাস কিভাবে কেটেছে সে বিষয়েও বিস্তারিত কিছুই বলতে পারছেন না । তবু , ঘরের মানুষ যে আবার ঘরে ফিরেছেন , এতেই স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছে পরিবার পরিজনেরা ।  

NO COMMENTS