ফেসিয়াল করার পর ত্বকের যত্ন নেবেন কীভাবে?

808

বাজারে চলতি ক্রিম বা লোশন ব্যবহারের পাশাপশি সৌন্দর্য সচেতন মানুষ কিন্তু পার্লারে গিয়ে বিভিন্ন ট্রিটমেন্ট নিয়ে থাকেন, যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল ফেসিয়াল। ফেসিয়াল করলে ত্বকে জমে থাকা ময়লা দূর হয়, স্ট্রেস কমে, শরীরে হালকা ম্যাসাজও হয়ে যায়। তবে ফেসিয়াল করলেই শুধু হয় না। ফেসিয়ালের পর তার প্রভাব যাতে দীর্ঘমেয়াদী হয়, সেজন্য ফেসিয়ালের পরে কয়েকটি বিষয় মাথায় রাখা প্রয়োজন। ফেসিয়ালের পর কী কী করবেন তা নিশ্চয় অনেকেরই জানা, কিন্তু কিছু কিছু কাজ আছে যা ফেসিয়াল করার পর কখনওই করা উচিত নয়। জেনে  নিন সেগুলি কি কি…

* ফেসওয়াশ বা সাবান ব্যবহার না করা- ফেসিয়ালের সময়ে যদি ক্রিম বা ব্লিচ ব্যবহার করা হয়, তাহলে তার পরের ১২ ঘণ্টার মধ্যে মুখে সাবান বা ফেসওয়াশ ব্যবহার করা উচিত নয়। কারণ ব্লিচ বা ক্রিমের সঙ্গে সাবান বা ফেসওয়াশ মিশে ত্বকের ক্ষতি হতে পারে।

* ম্যাসাজ- গায়ের রঙ উজ্জ্বল হলে ফেসিয়ালের পর ত্বকে ম্যাসাজ করলে ত্বকের ওপর লালচে দাগ পরে যাওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়। তাই ফেসিয়াল করার অন্তত তিন দিনের মধ্যে কোনও ম্যাসাজ নেওয়া উচিত নয়।

*ঘরোয়া মাস্ক- সারা বছর অনেকেই ঘরোয়া পদ্ধতিতে তৈরি মাস্ক তৈরি করে মুখে লাগিয়ে থাকেন। কিন্তু ফেসিয়ালের পর এই ধরণের মাস্ক ব্যবহার করা মোটেই ভাল না। কারণ ফলের খোসায় থাকা উপাদান ত্বকের ওপর লালচে ভাব সৃষ্টি করতে পারে, যা আপনার ফেসিয়াল করার উদ্দেশ্যই নষ্ট করে দিতে পারে।

* স্ক্রাব- অনেকেই হয়তো জানেন সপ্তাহে দু থেকে তিন বারের বেশি স্ক্রাব ব্যবহার করা উচিত নয়। এর থেকে বেশিবার স্ক্রাব ব্যবহার করলে ত্বকের ক্ষতি হতে পারে। ফেসিয়ালের সময়ে সাধারণভাবেই স্ক্রাব ব্যবহার করা হয়ে থাকে। তাই ফেসিয়ালের পর আর আলাদা করে স্ক্রাব ব্যবহার না করাই ভাল।

* স্টিম বাথ- অনেকেই স্টিম বাথ নিতে পছন্দ করেন। কিন্তু ফেসিয়াল করার পর কখনওই স্টিম বাথ নেওয়া উচিত নয়। কারণ এতে ত্বকের উজ্জ্বলতা কমে যেতে পারে।

* সরাসরি সূর্যরশ্মি না লাগানো- ফেসিয়ালের পর ত্বক একটু স্পর্শকাতর হয়ে পড়ে। তাই ফেসিয়ালের পর সরাসরি রোদে না বেরনোই ভাল।

* মেক আপ না করা- বিউটি কনসালটেন্টরা বলেন। ফেসিয়ালের পর কমপক্ষে তিনদিন কোনও মেকআপ বা বিউটি প্রোডাক্ট ব্যবহার না করাই ভাল। নয়তো ত্বকের ক্ষতি হতে পারে।

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.