হোলির পর রঙ তোলার সহজ উপায় জেনে নিন

650

হোলি হল রঙের উৎসব। কিন্তু হোলির সময়ে মন ভরে আনন্দ করে নেওয়ার পর যখন সময় আসে রঙ তোলার তখনই কপালে আসে ভাঁজ। আজকাল বাজারে হার্বাল আবীর পাওয়া গেলেও বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ব্যবহার করা হয় বিষাক্ত কেমিকেল, যা ত্বক এবং চুলের পক্ষে খুবই ক্ষতিকর। কিন্তু কয়েকটি ঘরোয়া পদ্ধতি মেনে চললেই, ত্বক এবং চুলের কোনও ক্ষতি না করেই দোলের রঙ উঠে যাবে সহজে।

* নারকেল তেল বা অলিভ অয়েল- রঙ খেলতে যাওয়ার আগে যদি ত্বকের খোলা অংশে নারকেল তেল বা অলিভ ওয়েল লাগিয়ে নেওয়া যায়, তাহলে রঙ তুলতে খুবই সুবিধা হয়। তা যদি নাও করে থাকেন তাহলে রঙ খেলার পরেও নারকেল তেল বা অলিভ অয়েল-এর সাহায্যে রঙ তুলে ফেলুন সহজে। তবে অবশ্যই বেশি জোড় দিয়ে ঘসবেন না।

* দই ও বেসন-এর প্যাক- আপনার ত্বক যদি এমনিই খুব শুষ্ক হয়, তাহলে রঙ খেলার পরে আরও শুষ্ক দেখাতে পারে। দই ও বেসন একসঙ্গে মিশিয়ে একটা প্যাক তৈরি করুন। রঙ খেলে এসে তা মুখে লাগিয়ে নিন। ২০ মিনিট মতো রেখে স্নানে যান। দুর্দান্ত ফল পাবেন।

* আমন্ড ও মধুর মিশ্রণ- ত্বকের রঙ তুলতে কার্যকরী ভুমিকা পালন করে আমন্ড এবং মধুর মিশ্রণ। আমন্ড বেটে নিয়ে তাতে কয়েক ফোঁটা মধু এবং লেবির রস মিশিয়ে নিয়ে তা মুখে মাখলেও হোলির রঙ উঠতে সাহায্য করে।

* মুসুর ডাল ও কমলালেবুর খোসা- মুসুর ডাল এমনিতেই ত্বকে ব্লিচের কাজ করে। মুসুর ডালের সঙ্গে কমলালেবুর খোসা বেটে নিয়ে একটা পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে। পেস্টটি মুখেই শুকিয়ে গেলে তারপর তা জল দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। বিশেষত তৈলাক্ত ত্বকের জন্য এই পেস্ট বিশেষভাবে কার্যকরী।

* মুলতানি মাটি ও গ্লিসারিন- তৈলাক্ত ত্বক থেকে রঙ তোলার আর একটা উপায় হল- মুলতানি মাটি এবং গ্লিসারিনের মিশ্রণ। এই মিশ্রণে যদি অল্প পরিমাণে নুন যোগ করা যায় তাহলে আরওই ভাল। এই মিশ্রণটি দিয়ে দশ মিনিট মুখে স্ক্রাব করলে রঙ উঠে যাবে সহজেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.