জনপ্রিয় সঙ্গীত পরিচালক আদেশ শ্রীবাস্তব-এর পুত্রের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করল পুলিশ

জনপ্রিয় সংগীত পরিচালক প্রয়াত আদেশ শ্রীবাস্তব এবং অভিনেত্রী বিজয়তা পণ্ডিত-এর ছেলে অভিতেশ শ্রীবাস্তবকে আটক করল জুহু পুলিশ। সুত্রের খবর থেকে জানা গিয়েছে যে, অভিতেশ তাঁর স্টডিওতে নাকি এক ব্যক্তিকে আটক করে রাখেন। তারপর পুলিশ গিয়ে তাঁকে উদ্ধার করেন।

পরে জানা যায় যে যে ব্যক্তিকে তিনি আটক করে রেখেছিলেন তাঁর নাম আনন্দ ত্রিপাঠী, উনিও পেশায় একজন সঙ্গীত পরিচালক। ২০১৬ সালের জুলাই মাসে তাঁর কাছ থেকে আদেশ শ্রীবাস্তবের স্টুডিওটি ভাড়া নেন আনন্দ। যার পরিবর্তে অভিতেশকে প্রত্যকে মাসে নগদ এক লক্ষ টাকা এবং এককালীন চার লক্ষ টাকা দেওয়ার একটা চুক্তিও হয় তাঁদের মধ্যে। বছর ৩৬-এর আনন্দ এককালীন চার লক্ষ টাকা দিলেও সম্প্রতি প্রতি মাসে এক লক্ষ টাকা দিতে পারছিলেন না,আর্থিক সমস্যার কারণে। এই নিয়ে প্রায়শই সমস্যা লেগেই থাকত। এর জেরে তাঁদের সম্পর্কের তিক্ততাও বাড়তে থাকে।

এভাবে বেশকয়েকদিন চলার পর অভিতেশ যখন বুঝতে পারলেন যে তাঁকে এইভাবে বলে কোনও কাজ হবে না, তখনই তাঁকে গত বৃহস্পতিবার ফোন করে আনন্দের সঙ্গে দেখা করতে চান অভিতেশ। দেখা হওয়ার পরেই পাওনা টাকা দাবি করে অভিতেশ। আনন্দ তাঁকে জানায় যে, তাঁর কাছে অভিতেশকে দেওয়ার মতো এক টাকাও নেই। আর তারপরেই শুরু হয়ে যায় দু’পক্ষের বিবাদ। বচসা এমন পর্যায়ে চলে যায় যে অভিতেশ আনন্দের উদ্দেশ্যে অশ্রাব্য গালিগালাজ করতে থাকেন। এবং রাগের বশে সারা রাত নিজের ফ্ল্যাটে তাঁকে বন্ধ করে রাখে অভিতেশ। কিছুক্ষণ বন্ধ অবস্থায় থাকার পর আনন্দ তাঁর এক বন্ধুকে ফোন করে গোটা ঘটনাটা জানায়। তারপর তাঁর সেই বন্ধুই পুলিশকে ফোন করে খবর দেয়। পুলিশ সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় এবং অভিতেশ-এর ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার করেন আনন্দকে। পুলিশ তাঁর বিরুদ্ধে ৩৪২ ধারা অনুসারে অন্যায়ভাবে কাউকে বন্দি করে রাখা এবং ৫০৪ ধারা অনুসারে উদ্দেশ্যপণোদিতভাবে কাউকে অপমান করা এবং শান্তি নষ্ট করার দায়ে অভিযোগ দায়ের করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here