তাঁর নামে অশ্লীল পুস্তিকা ছড়াচ্ছেন গম্ভীর‚ বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়লেন শিক্ষাব্রতী

প্রাক্তন ক্রিকেটার ও বর্তমান নির্বাচনের বিজেপি-প্রার্থী গৌতম গম্ভীরের বিরুদ্ধে মারাত্মক অভিযোগ আনল অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আপ (আম আদমি পার্টি)। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি নাকি পূর্ব দিল্লি লোকসভা কেন্দ্রে আপ-এর প্রার্থী আতিশির সম্পর্কে কুৎসিত পুস্তিকা ছড়াচ্ছেন। আতিশি এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ বিষয়ে অভিযোগ জানাতে গিয়ে কেঁদে ফেলেন।

আগামী রবিবার ওই কেন্দ্রে ভোট। তার আগে গম্ভীরের বিরুদ্ধে ওই অভিযোগ তুলে সোচ্চার কেজরিওয়ালের দল। আতিশি জানিয়েছেন, ‘‘আমি গৌতম গম্ভীরকে মাত্র একটাই প্রশ্ন করতে চাই। যদি একজন মহিলার বিরুদ্ধে তিনি এমন করতে পারেন, তাহলে পূর্ব দিল্লির লক্ষ লক্ষ মহিলার কী হবে যাঁরা নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত ?’’

অরবিন্দ কেজরিওয়ালও গম্ভীরের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে টুইট করেছেন— ‘কখনও ভাবিনি গৌতম গম্ভীর এত নীচে নামতে পারে।’ কেজরিওয়ালের সহকারী মনীশ সিসোদিয়ার মতে, ওই পুস্তিকার ভাষা এতই অশ্লীল, যারাই এটা পড়বে তারাই লজ্জিত হবে।

গৌতম গম্ভীর অবশ্য তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। তিনি একাধিক টুইটের মাধ্যমে অভিযোগ নস্যাৎ করে দিয়ে জানিয়েছেন, অরবিন্দ কেজরিওয়ালের মতো মানুষকে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে পেয়ে তিনি লজ্জিত। জেতার জন্যই এই সব অভিযোগ তুলছে আপ, দাবি করেন প্রাক্তন জাতীয় ক্রিকেটার। তিনি জানান, যদি আপ এই অভিযোগ প্রমাণ করতে পারে তাহলে তিনি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে নিজেকে সরিয়ে নেবেন।

প্রসঙ্গত গত মাসেই বিজেপিতে যোগদান করেছেন গম্ভীর। পূর্ব দিল্লি কেন্দ্রে আতিশি ছাড়াও তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেসের অরভিন্দার সিংহ। আতিশি এর আগেও গম্ভীরের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছিলেন। তিনি দাবি করেছিলেন, গম্ভীরের দু’-দু’টি লোকসভা কেন্দ্রের ভোটার কার্ড আছে। কিন্তু সেই অভিযোগ প্রমাণ করা যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

afgan snow

সুরভিত স্নো-হোয়াইট

সব কালের জন্য তো সব জিনিস নয়। সাদা-কালোয় উত্তম-সুচিত্রা বা রাজ কপূর-নার্গিসকে দেখলে যেমন হৃদয় চলকে ওঠে, এ কালে রণবীর-দীপিকাকে দেখলেও ঠিক যেমন তেমনটা হয় না। তাই স্নো বরং তোলা থাক সে কালের আধো-স্বপ্ন, আধো-বাস্তব বেণী দোলানো সাদা-কালো সুচিত্রা সেনেদের জন্য।স্নো-মাখা প্রেমিকার গাল নিশ্চয়ই অনের বেশি স্নিগ্ধ ছিল, এ কালের বিবি-সিসি ক্রিম মাখা প্রেমিকাদের গালের চেয়ে।