পণ চাওয়ার অপরাধে বরের মাথা অর্ধেক কামিয়ে ফেরত

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর প্রদেশের লখনৌ-এর একটি গ্রামে। দুই নিন্ম-মধ্যবিত্ত পরিবারের মধ্যে বিয়ের কথা পাকাপাকি হয়। বিয়ের জন্য যতদূর সম্ভব আয়োজন করা হয়েছিল পাত্রীপক্ষ থেকে। তাতে মন ভরেনি পাত্রের। বিয়েতে তাঁর দাবি একটি মোটরসাইকেল ও একটি সোনার হার।

সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিয়ের পাঁচ দিন আগে পাত্রপক্ষ একটি মোটরসাইকেল ও একটি সোনার হার দাবি করেন শ্বশুরবাড়ি থেকে। সেই অবস্থায় পাত্রীপক্ষ সময় চেয়ে নেয়, যে ধীরে ধীরে তাঁর সমস্ত দাবি মিটিয়ে দেওয়া হবে। তবে তা কিছুতেই বিশ্বাস করতে রাজি নন পাত্রপক্ষ। মোটরসাইকেল ও সোনার হার না পেলে কিছুতেই বিয়ে করবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয় পাত্রীপক্ষকে। আর এতেই বেজার চটে যান বিয়েতে উপস্থিত সকলে। শুরু হয়ে যায় কথা কাটাকাটি। এক পর্যায়ে তা হাতাহাতির আকার নেয়।


এই ঝামেলার মাঝেই বিয়েতে উপস্থিত লোকজন রাগে-ক্ষোভে পণ চাওয়ার অপরাধে পাত্রকে চেপে ধরে ক্ষুর দিয়ে মাথা ন্যাড়া করে দেয়। মাথার মাঝের দিকের অংশটা কামিয়ে দেওয়া হয়। বিয়েতে পণ চাওয়ায় এভাবে অপমানিত হতে হবে তা বোধহয় কল্পনাও করতে পারেননি পাত্রপক্ষ। শেষমেশ বিয়েতে পণ চাওয়ার অপরাধে বরের মাথা অর্ধেক কামিয়ে ফেরত পাঠায় গ্রামবাসীরা।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Please share your feedback

Your email address will not be published. Required fields are marked *

pakhi

ওরে বিহঙ্গ

বাঙালির কাছে পাখি মানে টুনটুনি, শ্রীকাক্কেশ্বর কুচ্‌কুচে, বড়িয়া ‘পখ্শি’ জটায়ু। এরা বাঙালির আইকন। নিছক পাখি নয়। অবশ্য আরও কেউ কেউ