পণ চাওয়ার অপরাধে বরের মাথা অর্ধেক কামিয়ে ফেরত

পণ চাওয়ার অপরাধে বরের মাথা অর্ধেক কামিয়ে ফেরত

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর প্রদেশের লখনৌ-এর একটি গ্রামে। দুই নিন্ম-মধ্যবিত্ত পরিবারের মধ্যে বিয়ের কথা পাকাপাকি হয়। বিয়ের জন্য যতদূর সম্ভব আয়োজন করা হয়েছিল পাত্রীপক্ষ থেকে। তাতে মন ভরেনি পাত্রের। বিয়েতে তাঁর দাবি একটি মোটরসাইকেল ও একটি সোনার হার।

সংবাদ সংস্থা এএনআই-এর প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিয়ের পাঁচ দিন আগে পাত্রপক্ষ একটি মোটরসাইকেল ও একটি সোনার হার দাবি করেন শ্বশুরবাড়ি থেকে। সেই অবস্থায় পাত্রীপক্ষ সময় চেয়ে নেয়, যে ধীরে ধীরে তাঁর সমস্ত দাবি মিটিয়ে দেওয়া হবে। তবে তা কিছুতেই বিশ্বাস করতে রাজি নন পাত্রপক্ষ। মোটরসাইকেল ও সোনার হার না পেলে কিছুতেই বিয়ে করবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয় পাত্রীপক্ষকে। আর এতেই বেজার চটে যান বিয়েতে উপস্থিত সকলে। শুরু হয়ে যায় কথা কাটাকাটি। এক পর্যায়ে তা হাতাহাতির আকার নেয়।


এই ঝামেলার মাঝেই বিয়েতে উপস্থিত লোকজন রাগে-ক্ষোভে পণ চাওয়ার অপরাধে পাত্রকে চেপে ধরে ক্ষুর দিয়ে মাথা ন্যাড়া করে দেয়। মাথার মাঝের দিকের অংশটা কামিয়ে দেওয়া হয়। বিয়েতে পণ চাওয়ায় এভাবে অপমানিত হতে হবে তা বোধহয় কল্পনাও করতে পারেননি পাত্রপক্ষ। শেষমেশ বিয়েতে পণ চাওয়ার অপরাধে বরের মাথা অর্ধেক কামিয়ে ফেরত পাঠায় গ্রামবাসীরা।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

Handpulled_Rikshaw_of_Kolkata

আমি যে রিসকাওয়ালা

ব্যস্তসমস্ত রাস্তার মধ্যে দিয়ে কাটিয়ে কাটিয়ে হেলেদুলে যেতে আমার ভালই লাগে। ছাপড়া আর মুঙ্গের জেলার বহু ভূমিহীন কৃষকের রিকশায় আমার ছোটবেলা কেটেছে। যে ছোট বেলায় আনন্দ মিশে আছে, যে ছোট-বড় বেলায় ওদের কষ্ট মিশে আছে, যে বড় বেলায় ওদের অনুপস্থিতির যন্ত্রণা মিশে আছে। থাকবেও চির দিন।