পরিত্যক্ত ভূতুড়ে গ্রামের একমাত্র বাসিন্দা ! দীর্ঘ কারাবাসের পরেও অতীতের আসামী ফিরতে চান জেলেই

1181

চমকে যাচ্ছে পিথোরাগড় জেলা প্রশাসন | এ যে সত্যি মামারবাড়ির আব্দার | দীর্ঘদিন সশ্রম কারাদণ্ড খাটা আসামী ছাড়া পেয়ে আবার ফিরতে চাইছেন জেলে !

জেলাস্তরের প্রশাসনিক কর্তাব্যক্তিদের দোরে দোরে হত্যে দিচ্ছেন পুষ্করদত্ত ভট্ট | তাঁকে আবার ফেরানো হোক কারাগারে | তাঁর বাড়ি উত্তরাখণ্ডের বস্তাড়ি গ্রামে | কুড়ি বছর আগে রাগের বশে খুন করে ফেলেছিলেন স্ত্রী ও কন্যাকে | অপরাধ প্রমাণ হতে ২০ বছরের কারাদণ্ড হয় | জেলে আচরণ বিধি ভাল হওয়াতে পুষ্করদত্ত শাস্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই ছাড়া পান গত বছর অগাস্টে |

ফিরে আসেন গ্রামে | কিন্তু পা দিয়ে মনে হয় এর থেকে জেল ভাল ছিল | নিজের গ্রামকে চেনাই যাচ্ছে না | পুষ্করদত্ত যখন জেলে‚ তখন ২০১৬-র জুলাইয়ে বিধ্বংসী হড়পা বানে ভেসে গেছে পিথোরাগড় জেলার বস্তাড়ি গ্রাম | পুরো গ্রাম পরিণত হয়েছে ধ্বংসস্তূপে | 

সেই বন্যায় ওই গ্রামে ২১ জন প্রাণ হারান | এরপর বাকি জীবিত গ্রামবাসীরা চলে যান অন্যত্র | কারণ গ্রামের এতটাই ক্ষতি হয়েছিল‚ বসবাস করা ছিল অসম্ভব | তারপর থেকে ভূতুড়ে হয়ে পড়ে আছে অতীতের পাহাড়ি গ্রাম | সরকার থেকে উদ্যোগ না নেওয়ায় ফেরেননি গ্রামবাসীরা |

সেই ভূতুড়ে গ্রামেই ৬ মাস ছিলেন পুষ্করদত্ত | আর পারছেন না ৫২ বছর বয়সী এই ব্যক্তি | পানীয় জল‚ বিদ্যুৎহীন পরিত্যক্ত গ্রামটা যেন গিলে খেতে আসছে | সূর্য ডুবলেই ঘরবাড়ির ধ্বংসস্তূপে ঘুরে বেড়ায় আশেপাশের জঙ্গলের হিংস্র জন্তু | 

তাই প্রশাসনের কাছে পুষ্করদত্তর একান্ত অনুরোধ | হয় তাঁর গ্রামকে আগের চেহারায় ফেরানো হোক | করে তোলা হোক বসবাসযোগ্য | যাতে ফিরতে পারেন পুরনো বাসিন্দারা | নয়তো তাঁকেই আবার ঢুকিয়ে দেওয়া হোক উধম সিং নগরের সিতারগঞ্জ কারাগারে | ভূতুড়ে গ্রামে ৬ মাস একা থেকে দমবন্ধ হয়ে আসছে তাঁর |  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.