বার্ধক্য একটি স্বাভাবিক প্রক্রিয়া | সময়ের সঙ্গে সঙ্গেই বাড়তে থাকে জীবিত প্রাণীর বয়স | তাই বয়সের ছাপ পড়া কোনও অস্বাভাবিক জিনিস নয় | বয়সের ছাপ পড়াকে সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেওয়া কোনওভাবেই সম্ভব নয় | তবুও কিছু আয়ুর্বেদিক শাস্ত্রে উল্লিখিত ভেষজ গুণসম্পন্ন জিনিস রয়েছে যা সাময়িকভাবে বয়সের ছাপকে প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে | এই উপাদানগুলি ত্বকের কোষগুলিকে রিজেনারেট করতে সাহায্য করে | আসুন দেখে নেওয়া যাক সেই ভেষজ উপাদানগুলি |

ব্রাহ্মী : ব্রাহ্মীর ভেষজ গুণের কথা জানেন অনেকেই | শুধুমাত্র বয়েসের ছাপ প্রতিরোধ করতেই নয় বরং স্মৃতিশক্তি ভাল রাখার ক্ষেত্রেও এর ভূমিকা রয়েছে | ব্রাহ্মী মস্তিষ্ককে সতেজ করে তুলতে সাহায্য করে |

কাঁচা হলুদ : কাঁচা হলুদে থাকা কারকিউমিন ত্বকের বার্ধক্য রোধ করার ক্ষেত্রে বহুল পরিচিত | অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ কাঁচা হলুদ প্রদাহ রোধকারী উপাদান হিসেবেও কাজ করে |

আমলকি : আমলকি বা আমলা প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ত সমৃদ্ধ | নানা রোগের হাত থেকে ও বার্ধক্যের হাত থেকে প্রতিরোধ গঠনে বিশেষ ভাবে সহায়ক এই আমলকি |

অশ্বগন্ধা : বার্ধক্য প্রতিরোধের ক্ষেত্রে অশ্বগন্ধাও কার্যকরী একটি ভেষজ উপাদান | এটি ত্বকের কোষগুলির পুনরুৎপাদনের কাজে সাহায্য করে | এর ফলে ত্বক নবজীবন লাভ করে এবং ত্বকে বার্ধক্যের ছাপ পড়তে পারে না |

আরও পড়ুন:  খালি পেটে ফল খাওয়ার উপকারিতা অনেক। জেনে নিন কী কী...

NO COMMENTS