শিকারকে সামনে দেখে বরফে ডিগবাজি আনন্দে আত্মহারা ছানার

শিকারকে সামনে দেখে বরফে ডিগবাজি আনন্দে আত্মহারা ছানার

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

যতদূর পর্যন্ত চোখ যায় শুধুই বরফ আর বরফ। তার মধ্যে মা মেরু ভালুকের সঙ্গে সঙ্গে আসছে ছোট ছোট দুটি ছানা। তাদের দেখেই বোঝা যাচ্ছে, একেবারে সদ্য হাঁটতে শিখেছে তারা। তাই মা’কে কোনও মতে কাছছাড়া করতে চাইছে না। তাদের মধ্যে একজন তো আবার মায়ের গা ঘেঁষে বসে রয়েছে ঠায়। অন্যজন আবার মা’য়ের থেকে খানিকটা দূরে গিয়ে খেলছে বরফ নিয়ে। সাদা বরফের মাঝে ছোট্ট লোমশ মেরু-ভালুকের এমনই এক ভিডিও ভাইরাল হয়েছে নেট-দুনিয়ায়।

ভিডিওটি যদিও এখানেই শেষ নয়। এর মজা লুকিয়ে রয়েছে ঠিক অন্য এক জায়গায়। ভিডিওতে একদিকে যেমন দেখা গিয়েছে ছোট্ট এক মেরুভালুক একা একা খেলা করছে, পাশাপাশি দেখা যাচ্ছে একটি সিল মাছ বরফের নীচে থাকা জলের মধ্যে দিয়ে সাঁতার কাটছে। সাঁতরাতে সাঁতরাতে আচমকাই যখন বরফের নীচ থেকে মাথা তুলল সিল। সেই মুহূর্তে টলমল পায়ে একটু একটু করে নিজের ভরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছিল ওই মেরুভালুক। চোখের সামনে তখন তাকে দেখে খানিকটা অপ্রস্তুত হয়ে কার্যত চিৎপাত হয়ে পড়ে গেল মেরু ভালুকের ছানা। হয়তো এমন ধারার প্রাণীর সঙ্গে কোনও পূর্ব-পরিচয় ছিল না ওই মেরুভালুকের ছানার। আর আচমকা সামনে চলে আসাতেই এমন ঘটনা ঘটল।

এই ঘটনার পরে সিল বেচারা, করুণ মুখেই ডুব দিল সেই বরফগলা জলে। ভিডিওটি ভাইরাল হতেই হাসির রোল উঠেছে নেট দুনিয়ায়। ছোট্ট শিশুরা যেমন নতুন হাঁটতে শিখে পড়ে যায়, মেরু ভালুকেরও দুই পায়ে ভর করে দাঁড়ানোর পর আচমকা পড়ে যাওয়ার ঘটনায় খুব মজা পেয়েছেন নেটিজেনরা। প্রসঙ্গত, মেরু ভালুকের খাদ্যতালিকার মধ্যে পড়ে সিল। মেরুভালুকের সিল ধরার বহু ভিডিওই এই আগে দেখেছেন নেটিজেনরা। কিন্তু শিকারকে সামনে থেকে দেখে এমন ডিগবাজি খাওয়ার ঘটনায় আনন্দে মুখর হয়েছে নেট দুনিয়া।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

Handpulled_Rikshaw_of_Kolkata

আমি যে রিসকাওয়ালা

ব্যস্তসমস্ত রাস্তার মধ্যে দিয়ে কাটিয়ে কাটিয়ে হেলেদুলে যেতে আমার ভালই লাগে। ছাপড়া আর মুঙ্গের জেলার বহু ভূমিহীন কৃষকের রিকশায় আমার ছোটবেলা কেটেছে। যে ছোট বেলায় আনন্দ মিশে আছে, যে ছোট-বড় বেলায় ওদের কষ্ট মিশে আছে, যে বড় বেলায় ওদের অনুপস্থিতির যন্ত্রণা মিশে আছে। থাকবেও চির দিন।