একটি ছবি ও কিছু প্রতিক্রিয়া

558

বিভোর… আরিব্বাস! দারুণ ছবি আপলোড করেছিস তো | সত্যি তুই পারিস বটে | বলা নেই, কওয়া নেই হঠাৎ এমন ডুব মারলি যে কোথাও কেউ বলতে পারছে না, তুই কোথায় | না তোকে ফেসবুকে পাওয়া যায়, না মোবাইলে | অতীন তোর ল্যান্ডলাইন জোগাড় করেছিল কিন্তু সেখানেও তো ফোন বেজে গেল শুধু | আমি প্রথমে একটু ভয় পেয়ে গিয়েছিলাম কিন্তু পরে আমার মনে হল তুই নির্ঘাত বম্বে গেছিস, লাক ট্রাই করতে | আর তোর এই ছবিটা দেখে আমি শিওর যে তুই চান্স পাচ্ছিসই | লুকিয়ে লুকিয়ে এত কিছু, কবে খাওয়াবি?

লোপামুদ্রা… শুধু তোকে খাওয়ালেই চলবে? আমরা কি ম্যাটার করি না নাকি? তুই তো শুধু মোবাইল আর ল্যান্ডলাইনে না পেয়ে হাল ছেড়ে দিয়ে বসেছিলি | আর আমরা যে দুদিন সেঁজুতির বাড়ি ধাওয়া করলাম? উফ, সে কি কম দূর? সেই ডানলপের কাছাকাছি | তারপর ওদের অ্যাপার্টমেন্টে লিফট নেই, চারতলা উঠতে গিয়েই অসুস্থ হয়ে গেলাম, কী ঝামেলা বলে বোঝানো যাবে না | আর এখন তুই একা ক্রেডিট নিচ্ছিস?

অতীন… তোর বাড়ি যদি সাউথের শেষপ্রান্তে হয়, তার জন্য তো পৃথিবীর সবাই দায়ী হতে পারে না, লোপা | ডানলপ একটা প্রমিনেন্ট জায়গা | সেখানে যেতেই যদি অসুস্থ হয়ে পড়িস না গেলেই পারতিস | আর তাছাড়া গিয়েই বা কী করতে পারলি? কোনও খোঁজ তো দিতে পারিসনি, সেঁজুতির | তাহলে এখন ওর ছবি দেখে বড় বড় কথা বলছিস কেন?

মেঘলা আকাশ.. ইউ আর রিয়ালি ভেরি বিউটিফুল | তবে একজন এডমায়ারার হিসেবে বলছি, তোমার এই প্রেটি ফেসটার সঙ্গে লম্বা চুল কিন্তু অনেক বেশি মানাবে | আই হোপ তুমি আমার কথায় কিছু মাইন্ড করলে না |

সুইট সেভেন্টিন… আমি একদম একমত | এইরকম নিখুঁত মুখ আর একইসঙ্গে এমন লম্বা গলা চট করে পাওয়া যায় না | এর সঙ্গে যদি একঢাল সিল্কি এন্ড শাইনি চুল থাকত তাহলে তুমি যে কোনও বিউটি কন্টেস্টে তুড়ি মেরে জিততে পারতে | ইন ফ্যাক্ট মিস ইন্ডিয়া হওয়ার দৌড়েও থাকতে পারতো |

প্রীতম লাভারবয়… আপনি যে একজন উন্মাদ সেটা বলাই যায় | মেয়েটা সুন্দর দেখতে মানছি কিন্তু তাই বলে একদম মিস ইন্ডিয়া! আপনি কি ঐশ্বর্য রাই, প্রিয়াঙ্কা চোপড়াদের দেখেননি নাকি কখনও? অবশ্য আমি জানি না, ইদানিং আপনার চোখে ছানি পড়েছে কি না |

লোপামুদ্রা… আরে আমরা আমাদের বন্ধুর ব্যাপারে কথা বলছি, এর মধ্যে ঐশ্বর্য, প্রিয়াঙ্কা, মডেলিং, মিস ইউনিভার্স এল কোনখান থেকে? পিকুলিয়ার সব পাবলিক মাইরি | হ্যাঁ, অতীন, আমি বড় বড় কথা বলতেই পারি কারণ আমি তবু কিছু চেষ্টা করেছি | তোদের মতো পায়ের ওপর পা তুলে গাঁজা খেতে খেতে লেকচার দিইনি | অতই যদি দরদ তো যেতিস আমাদের সঙ্গে সেঁজুতির খোঁজে | অ্যাপার্টমেন্টের প্রতিটা ফ্ল্যাটে বেল বাজিয়ে জিজ্ঞেস করতিস, সেঁজুতি কেন ইউনিভার্সিটিতে আসছে না, ওদের ফ্ল্যাট কেন তালাবন্ধ?

বলাকা… আরে তুই তো আসল কথাটাই বললি না! সেই যে একটা ফ্ল্যাটের দরজা খোলা ছিল বলে, আমি আর তুই একটু উঁকি মেরেছি আর তখনই সেই বিরাট বড় বুলডগ না গ্রে হাউন্ড আমাদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ল | আমাদের অনেক ভাগ্য যে পিছন থেকে একটা লোক টেনে ধরে রেখছিল, নইলে আমাদের কামড়ে ক্ষতবিক্ষত করে দিত কুকুরটা | সেঁজুতির খোঁজ নিতে গিয়ে আমাদের হসপিটালে যেতে হত সেদিন | মরেই যেতাম হয়তো |

প্রমিত… বুঝলাম, কিন্তু তোরা খামোখা অন্যের ফ্ল্যাটে উঁকি মারতে গেলি কেন? চোর-জোচ্চোর ভেবেও তো তোদের হ্যারাস করতে পারত | এইরকম কেউ করে?

প্রীতম লাভারবয়… ওটাই তো মজা | ওরা নিজেরা যেখানে যখন খুশি উঁকি-ঝুঁকি মারবে আর অন্য কেউ একটা সুন্দর মেয়ের ছবি দেখে ফেসবুকে কমেন্ট অব্দি করতে পারবে না | করলেই ওই বুলডগের মত ঝাঁপিয়ে পড়বে; প্রাইভেসি নষ্ট হচ্ছে, সবকিছু সবার সামনে ওপেন হয়ে যাচ্ছে বলে এমন চিলচিতকার জুড়বে যে মরাও জেগে উঠবে ঘুম ভেঙে | কিন্তু নিজেদের বেলা?

রূপকথার আয়না… ফেসবুক একটা ফ্রি ফোরাম | এখানে যার যা খুশি কমেন্ট করতে পারে | তাই নিয়ে অন্য কারও রাগ করা মানায় না | অতই যদি প্রাইভেসি দরকার তাহলে জানলা-দরজা বন্ধ করে ঘরে বসে থাকুক | রাস্তায় যেন না বেরোয় |

প্রমিত… বাইরে থেকে প্রচুর মশা ঘরে ঢুকে পড়ছে বলে দরজা-জানলা বন্ধ করে ফেসবুক করছি | তাতে কার কি আপত্তি? সেঁজুতির বাড়িতে গিয়ে তোরা কোনও খোঁজ পাসনি, লোপা?

বলাকা… কোনও খোঁজ পাইনি, বিলিভ মি | ও যেন একদম হাওয়া হয়ে গেছে | যে কটা ফ্ল্যাটে বেল বাজালাম, তাদের মধ্যে সেলসের লোক ভেবে দরজাই খুলল না অর্ধেক | একজন, গুজরাটি না মারাঠি কি বলল বুঝতেই পারলাম না | আর বাঙালির বাড়িতে তো সেই কুকুর তেড়ে এল, কোনও কথাই হল না | আচ্ছা সেই আমাদের এক্সকারশানের সময় ওই পাহাড়ি ঝরনার সামনে একটা বুনো কুকুর আমাদের তাড়া করেছিল তোর মনে আছে?

বিভোর… আমি এতক্ষণ এই ক্যাচকেচির ভিতর ঢুকিনি কিন্তু এবার একটা কথা বলতে বাধ্য হচ্ছি যে ওটা নেড়ি কুকুর ছিল, পাহাড়ি কুকুর ছিল না |

প্রীতম লাভারবয়… বুলডগ, পাহাড়ি, নেড়ি, সব ধরনের কুকুর আপনাকেই তাড়া করে কেন? আপনাকে কখনও সামনে থেকে দেখিনি বলে জিজ্ঞেস করছি, কুকুরের কি সেন্স অফ বিউটি বেশি নাকি কম? আপনার কী মনে হয়?

লোপামুদ্রা… ওর কী মনে হয় তাতে তোর কী রে হারামজাদা? আর তোর বাবারই বা কী? এই হারামজাদাগুলোকে ব্লক করে দিতে হয় একদম |

সুইট সেভেন্টিন… একদম ঠিক বলেছ | আমি মেয়েটার রূপের প্রশংসা করলাম বলে কত কী শোনাল, ঐশ্বর্য, প্রিয়াঙ্কা | আরে, এরকম একটা মেয়ের থেকে আগে পাত্তা পেয়ে দেখা, তারপর ফিল্মস্টারদের সঙ্গে বন্ধু পাতাতে যাবি | তোর যা থোবড়া দেখছি তাতে তো ওই বুলডগও কামড়াতে আসবে না |

রূপকথার আয়না… আপনি কিন্তু এবার ওভাররিয়্যাক্ট করছেন বলে মনে হচ্ছে | এমন কি হয়েছে?

সুইট সেভেন্টিন… হয়নি মানে? আমি একজন ট্রেইন্ড বিউটিশিয়ান, আমি বুঝি না কে সুন্দর কে নয়? ওই লোফারটা আমায় পাগল বলল কেন?

লোপামুদ্রা… এগুলোকে তাড়ানো যায় না?

প্রমিত… ছাড় না, এদের ইগনোর কর একদম | তাহলেই চুপ করে যাবে | পাত্তা দিলেই বাড় খেয়ে মাথামুন্ডু নেই এরকম কমেন্ট পোস্ট করতেই থাকবে |

অতীন… এক্সকারশানে কিন্তু ব্যাপক মজা হয়েছিল, তাই না? আর সবাইকে সবচেয়ে বেশি মাতিয়ে রেখেছিল, সেঁজুতি | মেয়েটার মধ্যে কেমন একটা চুম্বকের মত জিনিস ছিল, সবাইকে টানত | অথচ ও যে দুর্দান্ত গান গাইত বা নাচত তা কিন্তু নয়্ | কিন্তু প্রত্যেকটা ব্যাপারে সেঁজুতির মত সহজে এগিয়ে যেতে পারত না কেউ | সেই আমরা যে হোটেলটায় ছিলাম, তার বাইরে প্রবল বৃষ্টি হচ্ছে আর আমরা রীতিমতো ঠাণ্ডায় কুঁকড়ে গিয়ে চাদর খুঁজছি, এস কে ডি বললেন যে এখনকার ছেলেমেয়েরা নাকি ভিতু, তারা বৃষ্টিতে ভিজতেও ভয় পায়, সেঁজুতি সঙ্গে সঙ্গে কী করল খেয়াল আছে?

প্রমিত… তুই যে বললি, এগিয়ে যাওয়া, আমার কিন্তু তা মনে হয় না | সেঁজুতির মধ্যে নেতা হওয়ার কোনও ইচ্ছে ছিল না | ওর ভিতরে এমন একটা স্পন্টেইনিটি ছিল যে ও ভীষণ সহজে সাড়া দিতে পারত |

প্রীতম লাভারবয়… যদি নাম ধরে তারে ডাকো, সে যে সবুজ পাতার আগে সাড়া দেয় |

অভীপ্সা.. অ্যাই তোরাও নিশ্চয়ই আমার মতো অবাক, হঠাৎ করে সেঁজুতির ছবি দেখে? আমি তো একদম আকাশ থেকে পড়লাম | ওকে অনেকটা স্লিম দেখাচ্ছে না এই ছবিটায়? মধ্যে ও ভীষন ওয়েট গেইন করেছিল তোদের খেয়াল আছে? তার থেকে কিন্তু ওকে ফার বেটার লাগছে এই ছবিটায় |

বলাকা… আমরা এখানে সেঁজুতি রোগা হয়েছে না মোটা তাই নিয়ে থিসিস লিখতে বসিনি | তুই পাতলা হ |

অভীপ্সা… বাই দা ওয়ে, ওর কোনও খবর পাইনি কেন এতদিন? সেঁজুতি কলকাতায় নেই সে বিষয়ে আমি শিওর কিন্তু গেল কোথায়? আমার একটা নোটসের খাতা ওর কাছে রয়ে গিয়েছিল, অদ্ভুত মেয়ে সেটা ফেরত না দিয়েই কোথায় হারিয়ে গেল | আমার এক রিলেটিভ ওর বাবার অফিসে যায় মাঝেসাঝে, সে বলল যে ওর বাবাও নাকি অফিস ডুব মেরেছে বেশ কিছুদিন | কি ব্যাপার, সবাই মিলে ইউরোপ বেড়াতে গেল নাকি? বলা যায় না | সেঁজুতি যেরকম বৃষ্টির মধ্যে ট্যাক্সি না চেপে হাঁটত কিংবা ট্রামে উঠত তাতে হয়ত ওদের হোল ফ্যামিলির ইউরোপ যাওয়ার পয়সা জমে গেছে |

প্রমিত… তুই জীবনে কখনও বৃষ্টিতে ভিজেছিস অভীপ্সা? আমাদের এক্সকারশানে তো তুইও ছিলিস | সেঁজুতি যখন একাই বৃষ্টির মধ্যে বেরিয়ে গেল আর আমরা সবাই ওকে পাগল হতে দেখে, কে জানে কীভাবে, নিজেরাও একটু একটু পাগল হয়ে উঠলাম, বাইরে বেরিয়ে এসে গাইতে শুরু করলাম, নাচতে থাকলাম, তখন কোথায় ছিলি তুই? ওখানেই তো? তাও তোর মনে হল, সেঁজুতি পয়সা বাঁচানোর জন্য বৃষ্টিতে হাঁটত? সত্যি কত কম চিনি মানুষকে |

অতীন… আমি তো বলব তুই একদমই চিনিস না | চিনলে পড়ে জানতি আমাদের সঙ্গে শুধু মানুষরাই নয়, শেয়াল, শকুনরাও পড়ত | আর এইসব কথা যারা লিখতে পারে তারা ওই দলেই পড়ে |

লোপামুদ্রা… যখন আমরা বৃষ্টিতে ভিজছিলাম তখন তো ও মওকা খুঁজছিল কোনও স্যারের গায়ে গা ঘষলে নাম্বার একটু বাড়বে কিনা, কিংবা যার নোটস লিখলেই ফার্স্টক্লাস পাওয়া যাবে এমন কোনও সিনিয়র শোবে কিনা ওর সঙ্গে |

বলাকা… অভীপ্সা তুই ফালতু ফালতু নোটসের খাতার কথা তুলছিস কেন? খাতাটা তো তুই পরীক্ষার সময় টুকলি করবি বলে নিয়ে এসেছিলি | ধরা পড়ে যাচ্ছিলি বলে পিছনের সিটে বসা সেঁজুতিকে পাচার করে দিয়ে বলেছিলে যেন জানলা দিয়ে ফেলে দেয় | তোকে বাঁচানোর জন্য সেঁজুতি তাই করে | তারপর আবার খাতাটা ও তোকে ফেরত এনে দেবে কী করে? তিনতলার জানলা থেকে ফেলে দেওয়ার পর ওটা কোথায় পড়েছে, ওর পক্ষে জানা সম্ভব?

লোপামুদ্রা… কত বড় অকৃতজ্ঞ ভাব একবার | যে মেয়েটা না বাঁচালে খাতা ক্যান্সেল হয়ে যেত, ইউনিভার্সিটি বাঁশ দিয়ে দিত পিছনে, তাকেই দোষ দিচ্ছে?

অতীন… এদের থেকে এর চাইতে বেটার কিছু আশা করিস?

বলাকা… যত সব আবর্জনা | এগুলোকে কর্পোরেশানের গাড়িতে চাপিয়ে ভাগাড়ে ফেলে দিয়ে আসা উচিত |

সুইট সেভেন্টিন… সবাই যে যার মত কথা বলে যাচ্ছে কিন্তু যার ছবি সে শুধু আপলোড করেই ক্ষান্ত | কই তার কোনও কমেন্ট তো এখনও অব্দি চোখে পড়ল না | আমার দেখে যা মনে হচ্ছে তা হল, মেয়েটা হয়তো ইচ্ছে করেই চুপ করে আছে আর মজা দেখছে |

প্রীতম লাভারবয়… আপনার দেখার চোখ সত্যি খুব ভাল | আমি শিওর যে ছানি পড়েনি দুটোর একটাতেও | কিন্তু প্রোফাইল পিকচার দেখে তো আপনার বয়স প্রায় ষাটের কাছাকাছি বলে মনে হয় | আর কতদিন সেভেন্টিন থাকবেন?

রূপকথার আয়না… আচ্ছা সেঁজুতির বয়ফ্রেন্ড কে আমার খুব জানতে ইচ্ছে করছে | আমি ওর সঙ্গে রেলিটেড নই ঠিকই কিন্তু এত সুন্দর মেয়েটা কার সঙ্গে ইনভলভড সেই ব্যাপারে খুব কৌতূহল হচ্ছে | জানি না আমি বেশি কিউরিওসিটি দেখিয়ে ফেলছি কিনা কিন্তু একটা বিষয়ে আমি শিওর আর সেটা হল এই মেয়েটার পিছনে অনেক ছেলে ছিল | আই মিন এখনও নিশ্চয়ই আছে |

প্রীতম লাভারবয়… আই এগ্রি | আর কেউ যদি নাও থাকে আজকের পর থেকে আমি তো আছিই | আমি এই ফেসবুকের সবাইকে সাক্ষী রেখে ডিক্লেয়ার করলাম | কি সেঁজুতি আমায় অ্যাকসেপ্ট করবে তো?

অভীপ্সা… ট্রাই করে যাও, আজ নয় কাল ঠিক অ্যাকসেপ্ট করে নেবে | আমি যা খবর পাচ্ছি তাতে সমুজ্জ্বলের সঙ্গে ওর কোনও রিলেশন নেই এখন | অবশ্য ওদের প্রথম দিন থেকে দেখেই আমার মনে হত যে এই অ্যাফেয়ার চলবে না | আজ বা কাল ব্রেক আপ হল বলে | আর এখন সেটাই হয়েছে | ব্যাপারটা চাপা দেওয়ার জন্য্ই সেঁজুতি গা ঢাকা দিয়েছে, আমি শিওর |

মেঘলা আকাশ… গা ঢাকা দিলে পরে আবার নতুন ছবি আপলোড করবে কেন?

সুইট সেভেন্টিন… হতে পারে যে ও নিজে ছবিটা আপলোড করেনি | ওর কোনও বন্ধু বা আত্মীয় ছবিটা আপলোড করেছে |

অভীপ্সা… দ্যাট ইস হার স্টাইল | এভাবেই কাজ করতে ভালবাসে সেঁজুতি | ওর ওই সামনে এগিয়ে আসা, বৃষ্টিতে নাচা পুরটাই শো-অফ | সেই সময় আসল উদ্দেশ্য ছিল সমুজ্জ্বলকে ক্যাপচার করা | এখন এইসব ছবি-টবি দিয়ে ঘাপ্টি মেরে আছে কারণ একটা নতুন বয়ফ্রেন্ড তো চাই | পুরনো তো ফুরুত |

প্রীতম লাভারবয়…থ্যাঙ্ক ইউ ফর দ্য গুড নিউজ | সেঁজুতি আই অ্যাম ইগার টো ডেট ইউ | প্লিজ গিভ মে ইওর নাম্বার |

অভীপ্সা… ও এখন নাম্বারও দেবে না, রেসপন্সও দেবে না | আগে দেখবে কীরকম অফার পাচ্ছে | তারপর বেস্ট পসিবল মুরগিটাকে জবাই করবে | আমি ওকে চিনি না?

লোপামুদ্রা… দুনিয়ায় এত মেয়ে রেপড হয়, এত মেয়ের সর্বনাশ হয়, তো হয় না রে? সত্যে এমন কিছু হলে আমি খুব আনন্দ পেতাম রে অভীপ্সা |

রূপকথার আয়না… যাই ঘটুক না কেন একটা মেয়ে হয়ে এমন কথা বলা শোভা পায় না | ছি!

লোপামুদ্রা… আমি একটা মেয়ে হয়েও এমন কথা বলছি এবং ডেলিবারেটলি বলছি | যারা সেঁজুতিকে চেনে তারা নিশ্চয়ই বুঝবে ওর সম্পর্কে এইরকম সব কমেন্ট করা অসম্ভব!

অতীন… আর যারা অভীপ্সাকে চেনে তারা বুঝবে এইসব কথা অভীপ্সার মতো ময়েই বলতে পারে |

বলাকা… ও যে মেয়ে এটাই আমাদের লজ্জা | লোপা যা বলছিল সেরকম কিছু ওর সঙ্গে হলে ওর সর্বনাশ হবে না বরং ও মজাই পাবে! এনজয় করবে পুরো টাইমটা! আমি তো ওর মেন্টালিটি জানি | নোংরা কোথাকার |

মেঘলা আকাশ… এইসব কাদা ছোড়াছুড়িতে ফেসবুকটাই নোংরা হয়ে যাচ্ছে | সামবডি মাস্ট প্রোটেস্ট |

অভীপ্সা… হ্যাঁ আমি নোংরা আর তোরা সবাই খুব পরিষ্কার! সমুজ্জ্বলের তো আমাকে ভালো লাগত | ও তো আমাদের ডিপার্টমেন্টের নয় যে ওর সঙ্গে তোদের দহরম মহরম ছিল | আমার থ্রু দিয়েই তোরা ওকে চিনেছিলি আর তারপর আমার পিঠে ছুরি মেরে ওর সঙ্গে প্রেম করিয়ে দিয়েছিলি সেঁজুতির্ | এই বলাকা, এই লোপা আর ওই মধুরা সবাই ইনভলভড ছিল তাতে | সেটা নোংরা ব্যাপার ছিল না?

প্রীতম লাভারবয়… সমুজ্জ্বল বলে ছেলেটা কি বাচ্চা যে ওকে পটি করাবার মতো করে প্রেম করিয়ে দিতে হবে?

লোপামুদ্রা… এই, ওকে ধরে কেউ মারতে পারছিস না?

অতীন… ওদের দোষ দিচ্ছিস কেন? সমুজ্জ্বল আর সেঁ্জুতির কীভাবে প্রেম হয়েছিল তার সবচেয়ে বড় সাক্ষী আমি | আমিই ওদের সঙ্গে ছিলাম যেদিন প্রথম ওরা একসঙ্গে বাইরে বেরিয়েছিল | আর সেটা কোনও ডেটিং ছিল না, সেটা ছিল একটা অ্যাডভেঞ্চার | ছবি তুলবে বলে ভ্যানরিকশা থেকে নেমে আলপথ ধরে ছুটে গেল সেঁজুতি আর ওকে ফলো করতে গিয়ে বারবার থেকে যাচ্ছিল সমুজ্জ্বল | আসলে ও বিশ্বাস করতে পারছিল না, এরকম মেয়ে আজকেও এক্সিস্ট করে যে কোনোকিছুর তোয়াক্কা না করে ধানখেতে নেমে পড়তে পারে |

সুইট সেভেন্টিন… এই ব্যাপারটা আমি বুঝতে পারলাম না | ধানখেতের মধ্যে দিয়ে ছোটার ভিতরে কী এমন আছে যা দেখে কেউ মুগ্ধ হতে পারে?

লোপামুদ্রা… আসলে দুরকমের ছোটা হয় পৃথিবীতে | একরকম হচ্ছে বেডরুম থেকে বেডরুমে ছোটা আর একটা হচ্ছে ধানখেতের ভিতর দিয়ে ছোটা | প্রথমটায় যারা স্পেশালাইজ করে তারা দ্বিতীয়টার মজা ঠিক ধরতে পারে না |

অভীপ্সা… তুই নিজে সব বুঝিস | অবশ্য বুঝবিই তো | তোরা তো গ্রামে থাকতি আগে, আমি শুনেছিলাম | কী করতেন তোর বাবা? চাষবাস?

অতীন… ঠাটিয়ে চড় মারব তোকে এবার সামনে পেলে | তুই নিজের লিমিট ক্রস করে যাচ্ছিস অভীপ্সা |

অভীপ্সা… আর তোরা তোদের লিমিট ক্রস করিসনি? সিটি সেন্টারে তুই আর মধুরা সমুজ্জ্বলকে নিয়ে গিয়ে ব্রেনওয়াশ করিসনি? ও যাতে আমার সাথে কোনও সম্পর্ক না রেখে সেঁজুতির লেজ ধরে ঘোরে সেটা তো তোদের game plan | কিছু জানি না ভেবেছিস?

মেঘলা আকাশ… এবার আমিও ওই একই কথা জিজ্ঞেস করব? সমুজ্জ্বল কি মেন্টালি আনডেভেলপড? ওকে কি যে যেভাবে চালাতে চায়,চালাতে পারে?

অতীন… মেঘলা আকাশ আপনি এ ব্যাপারে মাথা না ঘামালেও চলবে | আর অভীপ্সা তুই তখন থেকে মধুরাকে অ্যাকিউজ করছিস কিন্তু তুই জানিস না সেদিন মধুরাই বারবার করে সমুজ্জ্বলকে তোর কথা‚ তুই যাতে আঘাত না পাস সেটা ভেবে দেখতে বলছিল | মধুরা ফেসবুকে নেই বলে ওর হয়ে কথাটা আমিই বললাম |

প্রমিত… সমুজ্জ্বল কি আদৌ কখনও সিরিয়াসলি ইন্ভলভড ছিল অভীপ্সার সঙ্গে?

অতীন… নেভার এভার | ও ওইভাবে কখনও ভাবেইনি | অভীপ্সা ঝুলোঝুলি করত বলে দু-চারবার বেরিয়েছিল হয়ত |

প্রীতম লাভারবয়… আহা, কচি খোকা! কোনও মেয়ে ঝুলোঝুলি করলেই তার সঙ্গে বেরিয়ে পড়ে | একটা কথা না জিজ্ঞেস করে পারছি না | আপনি কি সমুজ্জ্বলের উকিল?

অভীপ্সা… উকিল না দালাল | আমার প্রেমটা নষ্ট করে এখন সেঁজুতির হয়ে দালালি করছে | মিথ্যেবাদি, শয়তান কোথাকার | তোরা যে কথাগুলো বলছিস সেগুলো সমুজ্জ্বলকে দিয়ে বলা একবার | আমি রাস্তায় দাঁড়িয়ে কান ধরে ওঠবস করব |

বলাকা… বাড়াবাড়ি করিস না অভীপ্সা | একদম হাটে হাঁড়ি ভেঙ্গে দেব | মধুরার থেকে সব শুনেছি আমি | তুই মদ খেয়ে সমুজ্জ্বলকে জড়িয়ে ধরতে গিয়েছিলি আর সমুজ্জ্বল তোকে ঠেলে সরিয়ে দিয়েছিল, সেই ঘটনা আর কেউ দেখেনি মনে করিস না | অনেক বাজে বকেছিস এবার চুপ করে যা |

প্রমিত… থাক না এসব কথা | ফেসবুকে এসমস্ত কেন?

লোপামুদ্রা… আমরা বলতে বাধ্য হচ্ছি কারণ সেঁজুতি বা সমুজ্জ্বল কিছুই বলছে না |

বিভোর… আমিও অবাক হচ্ছি ব্যাপারটা দেখে | একটা জিনিস খেয়াল করলাম, সেঁজুতি কিন্তু নিজের অ্যাকাউন্ট থেকে ছবিটা আপলোড করেনি | ‘নিউ লাইফ’ বলে একটা কারও অ্যাকাউন্ট থেকে ছবিটা আপলোড করা হয়েছে | সেটা কে? সেঁজুতি নিজে? সমুজ্জ্বল? ওরা দুজনই খুব স্ট্রেট ফরওয়ার্ড বলে জানি | তাহলে এই ব্যাপারটা নিয়ে এত ধোঁয়াশা তৈরি হতে দিচ্ছে কেন?

লোপামুদ্রা… আর একটা অদ্ভুত ব্যাপার হচ্ছে সমুজ্জ্বলের মোবাইল আউট অফ সার্ভিস | আমি কদিন আগে করে পাইনি, তখন অত কিছু মনে হয়নি কিন্তু আজ একটু আগে এখানে কী চলছে জানানোর জন্য ফোন করলাম, এখন ওই একই কথা শুনছি | সমুজ্জ্বলও কি সেঁজুতির মতো লাপাতা হয়ে গেল নাকি?

প্রীতম লাভারবয়… স্ট্রেঞ্জ, ভেরি স্ট্রেঞ্জ

অতীন… সেঁজুতি, সমুজ্জ্বল তোরা কোথায়?

বিভোর… সেঁজুতি মাঝে মাঝে মুড্-অফ হয়ে গেলে চুপ করে থাকত কিন্তু তুই তো বরাবরের রেসপনসিবল ছেলে | তুই একটু কিছু বল সমুজ্জ্বল |

লোপামুদ্রা…প্লিজ অন্ধকারে একটু টর্চ জ্বালা |

অভীপ্সা…তুই যা বলবি, আমি মেনে নেব |

সমুজ্জ্বল… এই ছবিটা আপলোড করা নিয়ে এত কিছু হবে, আমার কোনও আইডিয়া ছিল না | কিন্তু একটা জিনিস এর ভিতর দিয়ে প্রমাণিত যে তোরা আমাকে আর সেঁজুতিকে ভালবাসিস | আমি পুরো ব্যাপারটা সংক্ষেপে সেঁজুতিকে জানিয়েছি আর ও তোদের সবাইকে খুব মিস করছে | হ্যাঁ, অভীপ্সাকেও | সেঁজুতি কলকাতায় ফিরে তোদের সবার সঙ্গে জমিয়ে আড্ডা দেবে, এটুকুই ওর এখনকার কথা | তবে ফিরতে এখনও বেশ কিছুদিন লাগবে |

অতীন… শালা, তোরা গেছিস কোথায়? হানিমুনে?

সমুজ্জ্বল…হ্যাঁ, এও একরকম হানিমুনই বটে | তবে সেঁজুতি আর ওর বাবা-মা আগে এসেছিলেন ওকে নিয়ে | আমি পরে ওদের জয়েন করি | জায়গাটা মুম্বই |

লোপামুদ্রা… আমি কিন্তু এখনও কিছু বুঝতে পারছি না |

সমুজ্জ্বল… বুঝতে আমিও প্রথমটা পারিনি রে | সেঁজুতির মত একটা মেয়ে তার গলায় ক্যানসার হয়েছে শুনলেও বোঝা যায় নাকি বিশ্বাস করা যায় আমায় বল তো? কিন্তু ঘটনাগুলো যখন ঘটে তখন বোঝা না গেলেও মোকাবিলা করতে হয় |

লোপামুদ্রা… না, না, না

প্রমিত… আমাদের একবার জানালি না? আমরা কি মরে গেছি?

সমুজ্জ্বল… সেঁজুতি আমাকেই জানাতে বারণ করেছিল | কিন্তু ওর মা মুম্বইতে গিয়ে আর নিজেকে সামলাতে পারেননি | আমি যখন গিয়ে পৌঁছেছি তখন অলরেড্য় ফার্স্ট কেমোটা নেওয়া হয়ে গেছে | এই ছবিটা সেকেন্ড কেমোর পর | আমার কী মনে হল, আপলোড করলাম | নতুন একটা অ্যাকাউন্ট বানিয়ে |

প্রীতম লাভারবয়… ও মাই গড

অভীপ্সা… আমি জানতাম না | প্লিজ আমায় ক্ষমা কর |

সমুজ্জ্বল… দূর, ক্ষমা-টমার প্রশ্নই উঠছে না | আমরা কলকাতায় ফিরব, সেঁজুতি আবার কথা বলবে, চেঁচিয়ে ডাকবে সবাইকে, আমরা ঝগড়া করব, মারপিট করব, ভাব করব, আড়ি করব, সেদিকেই তাকিয়ে আছি | আর তার আগে তোদের আমি টাইম টু টাইম জানাতে থাকব এখানে আমরা কেমন আছি | ভাল কথা, সেকেন্ড কেমোর পরপরই সেঁজুতির এই ছবিটা তোলা | সেঁজুতি দারুণ ছবি তোলে কিন্তু এখন আমিও কম যাই না | দ্যাখ, ওর কিন্তু খুব বেশি চুল উঠে যায়নি! আর সত্যি করে বল ওকে আগের থেকে অনেক সুন্দর লাগছে না?

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.