তার বয়স ১১ বছর। নাম ফ্যাবি। না কোনও মানুষ নয়। সুমাত্রার চিড়িয়াখানার বেশ জনপ্রিয় ১১ বছর বয়সী বাঘ। বেশ কয়েক বছর ধরেই ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রা দ্বীপের একটি চিড়িয়াখানায় বসবাস করছে বাঘটি। এই চিড়িয়াখানার মূল আকর্ষণই হচ্ছে ফ্যাবি।

সম্প্রতি চিড়িয়াখানার কর্মীরা লক্ষ করেন, বেশ কয়েকদিন ধরেই ঠিক মতো খাবার খেতে পারছিল না ফ্যাবি । এরপরই এ ঘটনা তারা জানায় চিড়িয়াখানার কর্তৃপক্ষকে। প্রথম দিকটায় তারা ভেবেছিলেন হয়তো শরীর ভাল নেই ফ্যাবি-র। তাই ঠিক মতো খেতে পারছে না । কিন্তু বেশ কয়েকদিন লক্ষ্য করার পর দেখা গেল খাবার বা মাংস দিলেই ছুটে আসছে সে, কিন্তু মুখে নেওয়ার পর আর ঠিকমতো ছিঁড়ে খেতে পারছে না। এই ঘটনা দেখেই কপালে ভাঁজ পড়ে চিড়িয়াখানার কর্তৃপক্ষের। তড়িঘড়ি চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয় তার জন্য।

চিকিৎসক পরীক্ষা করে জানান, সমস্যা অন্য কিছু নয়, বাঘটির সমস্যা হয়েছে দাঁতে। আর সে কারণেই মাংস ছিঁড়ে খেতে পারছে না ফ্যাবি। ফ্যাবির ক্যানাইন দাঁতটি ৮ সেন্টিমিটার লম্বা হওয়ায় তা তুলে ফেলা সম্ভব নয়, তাই ‘রুট ক্যানাল’ পদ্ধতির সিন্ধান্ত নেন চিকিৎসক ।

ফ্যাবির দাঁতে রুট ক্যানাল করতে ২ ঘন্টা সময় লেগেছিল। সেই ভিডিয়টি সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করেছে চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ। পোস্ট করার সঙ্গে সঙ্গে সেটি ভাইরাল হয়ে যায়। বাঘের দাঁতে রুট ক্যানাল করার ভিডিওটি প্রচুর মানুষ দেখেছেন। আপনিও দেখে নিন ফ্যাবির দাঁতে রুট ক্যানাল করার ভিডিও টি।

Banglalive-8

 

Banglalive-9

এই চিকিৎসা হওয়ার পরেই পুরোপুরি সুস্থ আছে ফ্যাবি । আবার আগের মতোই খাবার খাচ্ছে সে ।

আরও পড়ুন:  ঘরে ঘরে এখন সদ্যোজাতরা অভিনন্দন

NO COMMENTS