প্রবাসের কারাগারে দিন গুনছেন মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্ত ঠাকুমা

প্রবাসের কারাগারে দিন গুনছেন এক ঠাকুমা | যে কোনও সময়ে ঘনাতে পারে মৃত্যুর দিন | মাদক পাচারের অভিযোগে প্রাণদণ্ড হয়েছে তাঁর | মৃত্যুর আগে একটাই আক্ষেপ‚ ৫৮ বছর বয়সী লিন্ডসে স্যান্ডিফোর্ডের | দু বছর বয়সী নাতনিটার মুখ বোধ হয় আর দেখা হল না | লিন্ডসে যখন কারাগারে‚ তখন জন্ম হয় শিশুটির |

ইন্দোনেশিয়ার জেলে বন্দি ব্রিটিশ নাগরিক লিন্ডসে | ২০১২ সালে থাইল্যান্ড থেকে বালি আসেন তিনি | শুল্ক দফতরের অফিসাররা তল্লাশিতে তাঁর স্যুটকেস থেকে পান ২.৪ মিলিয়ন ডলারের কোকেন | আদালতে অপরাধ প্রমাণিত হলে লিন্ডসের মৃত্যুদণ্ড হয় |

ব্রিটিশ সংবাদপত্রে নিবন্ধ লিখেছেন লিন্ডসে | জানিয়েছেন‚ যে কোনও দিন তাঁকে ফায়ারিং স্কোয়াডের সামনে দাঁড়াতে হতে পারে | সেখানে তিনি মুখ ঢেকে যেতে চান না | বরং চান‚ তাঁর চোখে চোখ রেখে যেন তাঁকে গুলি করে ফায়ারিং স্কোয়াড |

ইন্দোনেশিয়ার আদালতে অপরাধ স্বীকার করেছেন‚ আদতে উত্তর পূর্ব ইংল্যান্ডের রেডকারের বাসিন্দা‚ লিন্ডসে স্যান্ডিফোর্ড | কিন্তু তাঁর দাবি‚ ড্রাগ সিন্ডিকেট থেকে তাঁর ছেলেকে মেরে ফেলার হুমকি দেওয়া হয় | তাই‚ তিনি এই কাজ করতে বাধ্য হন |

গত সপ্তাহে সাত বিদেশির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হয় ইন্দোনেশিয়ায় মাদক পাচারের দায়ে | ইন্দোনেশিয়ার সুপ্রিম কোর্টে লড়াইয়ের জন্য লিন্ডসের জন্য ফান্ড জড়ো করছেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা | কারণ তাঁকে আইনি লড়াইয়ে সাহায্য করার ক্ষেত্রে হাত তুলে নিয়েছে ব্রিটিশ সরকার |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here