অতিরিক্ত চুল ওঠার কয়েকটি কারণ

অতিরিক্ত চুল ওঠার কয়েকটি কারণ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

চুল উঠে যাওয়ার সমস্যা নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সবারই দেখা যায় | অতিরিক্ত পরিমাণে চুল উঠে যেতে থাকলে তা আটকাতে কিছু না কিছু ব্যবস্থা অবশ্যই নেওয়া দরকার | অল্প কিছু চুল পড়া স্বাভাবিক | কারণ একটা নির্দিষ্ট সময়ের পরে চুল আপনিই পড়ে যায় | প্রতিদিন একজন মানুষের স্বাভাবিকভাবেই ৭৫ থেকে ১০০ টি চুল পড়তে পারে | কিন্তু যদি এর থেকেও বেশি পরিমাণে চুল পড়ে তাহলে বুঝতে হবে নিশ্চয়ই কোনও সমস্যা হচ্ছে | আসুন জেনে নেওয়া যাক কী কী কারণে চুল পড়ে যেতে পারে |

১| অতিরিক্ত চিন্তা করলে দেহে যেসব খারাপ প্রভাব দেখা যায় তার মধ্যে একটি হল চুল পড়া | মুম্বইয়ের কিউটিস স্কিন স্টুডিওর ত্বকবিশেষজ্ঞ ড. অপ্রতিম গোয়েল জানাচ্ছেন যেসব যেসব কমবয়সের মানুষেরাও অতিরিক্ত চিন্তা করেন তাঁদের বেশি মাত্রায় চুল পড়ে যেতে দেখা যায় | যদিও বেশি চিন্তা করলে কেন চুল পড়ে তার সঠিক বৈজ্ঞানিক কোনও কারণের কথা জানা যায়নি‚ তবু বিশেষজ্ঞরা মনে করেন অতিরিক্ত চিন্তা করলে দেহের কার্যকর হরমোনগুলির মাত্রা বাড়তে বা কমতে থাকে | সেই কারণেই চুল পড়ে যায় |

২| পুষ্টিকর খাবার খাওয়ার না অভ্যাস না থাকলে বা অনিয়মিত‚ অপুষ্টিকর খাওয়াদাওয়া করলে চুল পড়ে | শুধুমাত্র ম্যাক্রোনিউট্রিয়েন্টই শরীরের পুষ্টির জন্য যথেষ্ট নয় | সঙ্গে সঙ্গেই প্রয়োজন আছে মাইক্রোনিউট্রিয়েন্টেরও | দেহের জন্য জরুরি যেসব নিউট্রিয়েন্ট‚ ভিটামিন‚ মিনারেল উপাদান সেগুলি সঠিক পরিমাণে না গ্রহণ করলে চুলের স্বাস্থ্য খারাপ হতে থাকে | চুল তখন রুক্ষ‚ শুষ্ক ও প্রাণহীন হয়ে পড়ে এবং অতিরিক্ত চুল পড়তে দেখা যায় | চুল পড়া কমাতে আয়রল‚ ফলিক অ্যাসিড‚ সেলেনিয়াম‚ ভিটামিন ও মিনারেল সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া খুবই জরুরি |

৩| এখন নিয়মিত শরীরচর্চা ও পুষ্টিকর খাবার না খাওয়ার জন্য শরীরের রোগ প্রতিরোধ শক্তি কমে যায় এবং খুব সহজেই আমরা নানা রোগে আক্রান্ত হই | সেইসব রোগকে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য অনেকরকমের ওষুধ খেতে হয় | অনেক ওষুধ খাওয়ার জন্য শরীরে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয় | ফলে চুলও উঠতে থাকে বেশি | অ্যান্টিডিপ্রেসেন্ট‚ অ্যানাবলিক স্টেরয়েড‚ অ্যান্টি-ক্যান্সার‚ পেইন কিলার ও বিপি নিয়ন্ত্রণ ইত্যাদির ওষুধ যাঁরা খান তাঁদের শরীরে এইসব ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হওয়ার জন্য চুল পড়ে | যদি এইসব ওষুধের মধ্যে কোনওটি আপনার জন্য একান্তই জরুরি হয় তাহলে চুল পড়া কমানোর জন্য কোনও বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেওয়ার দরকার | কারণ এই ধরণের ওষুধগুলি হেয়ার ফলিকলগুলিকে শকড করে দেয় যার জন্য চুল পড়ে যেতে থাকে |

৪| জটিল ও মারাত্মক কোনও রোগে বা অসুখে আক্রান্ত হলেও চুল পড়তে পারে | ক্যান্সারের রোগীদের চুল পড়ে যায় একথা অনেকেই জানেন | এছাড়াও ম্যালেরিয়া‚ টাইফয়েড ইত্যাদি রোগে আক্রান্ত হলেও চুল পড়তে পারে |

৫| দীর্ঘকাল ধরে কেউ ডায়বেটিস‚ থাইরয়েড বা আর্থারাইটিসের সমস্যায় ভুগলে তাঁরও চুল পড়তে পারে | এইসব রোগ থাকলে হেয়ার ফলিকলে রক্ত চলাচল সঠিকভাবে হয় না এবং মেটাবলিজমের ক্ষেত্রেও নানা সমস্যা হয় যার ফলে চুল পড়ে যেতে থাকে |

৬| আপনার পরিবারের সদস্যদের যদি চুল পড়ার সমস্যা থাকে তবে জিনগত কারণেও আপনার চুল পড়তে পারে | এক্ষেত্রে জিনগত কারণে চুল পড়ে তাই আপনার এতে কোনও দায় নেই | আপনার বাবা-মায়ের বা দাদু-ঠাকুমারও যদি টাক পড়ার সমস্যা থেকে থাকে তাহলে খুব কম বয়সে আপনারও টাক পড়ে যেতে পারে | সেক্ষেত্রে যাতে চুল পড়ার পরিমাণ কমানো যায় সেই চেষ্টা করতে হবে |

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

pandit ravishankar

বিশ্বজন মোহিছে

রবিশঙ্কর আজীবন ভারতীয় মার্গসঙ্গীতের প্রতি থেকেছেন শ্রদ্ধাশীল। আর বারে বারে পাশ্চাত্যের উপযোগী করে তাকে পরিবেশন করেছেন। আবার জাপানি সঙ্গীতের সঙ্গে তাকে মিলিয়েও, দুই দেশের বাদ্যযন্ত্রের সম্মিলিত ব্যবহার করে নিরীক্ষা করেছেন। সারাক্ষণ, সব শুচিবায়ু ভেঙে, তিনি মেলানোর, মেশানোর, চেষ্টার, কৌতূহলের রাজ্যের বাসিন্দা হতে চেয়েছেন। এই প্রাণশক্তি আর প্রতিভার মিশ্রণেই, তিনি বিদেশের কাছে ভারতীয় মার্গসঙ্গীতের মুখ। আর ভারতের কাছে, পাশ্চাত্যের জৌলুসযুক্ত তারকা।

Pradip autism centre sports

বোধ