বিয়ের ভোজ নেই,দম্পতিকে জোর করে ‘তালাক’ পঞ্চায়েতের

38

গরিব বিধবা মা মেয়ের বিয়ের ভোজ দিতে পারেননি| সেই ‘অপরাধে’ তাঁর জামাইকে বাধ্য করা হল মেয়েকে ডিভোর্স করতে | এই অভিযোগ উঠেছে উত্তরপ্রদেশের বেরিলির নবাবগঞ্জ ব্লকের কিফায়াতুল্লাহ গ্রামে |

এই গ্রামে চার সন্তানকে নিয়ে থাকেন মাজিদা | সম্প্রতি তিনি কলকাতায় ভাইয়ের বাড়িতে বেড়াতে এসে মেয়ের বিয়ে দেন | এরপর গ্রামে ফিরতেই শুরু হয় নির্যাতন | অভিযোগ, গ্রামে ফেরার পর থেকেই শুরু হয় মানসিক নির্যাতন | গ্রামের মোড়ল এবং খাপ পঞ্চায়েতের মাথারা বলতে থাকে, মাজিদা কলকাতায় মেয়েকে বিক্রি করে দিয়েছে |

শেষে বিধান হয়, গ্রামের লোকদের পেটপুরে খাওয়াতে হবে | নইলে মেয়ে-জামাইকে হাজির করতে হবে | ভোজসভার টাকা জোগাড় করতে না পারায় মাজিদা গ্রামে মেয়ে-জামাইকে ডেকে পাঠায় | অভিযোগ, সেখানেই মাজিদার জামাইকে বাধ্য করা হয় নতুন বৌকে তালাক দেওয়ার জন্য | এবং মাজিদাকে বলা হয়, গ্রামের কোনও ছেলের সঙ্গে মেয়ের বিয়ের দেওয়ার জন্য |

গ্রাম প্রধান নাকি এই ঘটনার বিন্দুবিসর্গ জানেন না | অন্যদিকে জেলা প্রশাসন জানিয়েছে, অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গৃহীত হবে |

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.