ফিরতে চলেছে টয় ট্রেনের সুদিন?

১৪ বছর আগেই ইউনেস্কোর কাছ থেকে হেরিটেজ তকমা পেয়ে গিয়েছে দার্জিলিঙের টয় ট্রেন্ | কিন্তু তাতে পাল্টে যায়নি পরিষেবার চালচিত্র | বরং আরও ধুঁ্কছে ঐতিহ্য়বাহী এই আকর্ষণ্ | এবার টয় ট্রেন ঘিরে আনন্দের খবর্ | যেন গুমোট হয়ে থাকা পাহাড়ে এক ঝলক ভেজা বাতাস্ | শোনা যাচ্ছে ৫০ কোটি টাকার বেশি বরাদ্দ পেতে চলেছে Darjeeling Himalayan Railway | অতিরিক্ত ব্য়য় বরাদ্দ হিসেবে এই ঘোষণা করতে পারেন রেলমন্ত্রী পবন কুমার বনশল্ |

১৮৮১ তে ব্রিটিশদের তৈরি মাত্র দু ফুট লম্বা এই ‘খেলনা ট্রেন’-এর গতিপথ ৭৮ কিলোমিটার্ | কিন্তু ২০১০-এর জুনে ভূমিকম্পের জেরে রুদ্ধ হয়ে গেছে সেই রুট্ | নিউ জলপাইগুড়ি থেকে কার্শিয়ং নয়, টয় ট্রেনের কালো ধোঁ্য়া এখন কার্শিয়ং থেকে দার্জিলিঙের মধ্য়েই সীমাবদ্ধ |

বরাদ্দ অর্থের অভাবে আটকে আছে রেলপথ সং্স্কারের কাজ্ | কিন্তু গত তিন বছরে কেন মেলেনি এই বরাদ্দ? আর এখন এত সহজেই তা কী করে চলে আসছে? রাজনৈতিক মহলের ব্য়াখ্য়া, গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার সঙ্গে তৃণমূলের বর্তমান সম্পর্কের রসায়নকে কাজে লাগাতে চাইছে কেন্দ্র | ইতিমধ্য়েই দুই কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী অধীর চৌধুরী আর দীপা দাশমুন্সির সঙ্গে সাক্সাৎ করেছে মোর্চা নেতৃত্ব | রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, কেন্দ্রের সঙ্গে তৃণমূলের এই দূরত্বকে বিফলে যেতে দিতে রাজি নয় মোর্চা | আর পাহার নিয়ে মমতার দলকে চাপে রাখার সুযোগ হাতছাড়া করতে চায় না কং্গ্রেসও | তাই ন্য়ারো গেজ টয় ট্রেনের জন্য় বরাদ্দ একটা উপলক্স মাত্র |

সে, রাজনৈতিক সমীকরণ যাই হোক না কেন,এই ঐতিহ্য়ের রক্সণাবেক্সণ হলে আখেরে লাভ রাজ্য়বাসীর্ | ফলে সেই দিকেই তাকিয়ে বঙ্গজরা |

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here