কৈলাসের কমল সরোবরে জলকেলিরত দুই কুবেরপুত্রকে অভিশাপ দেবর্ষি নারদের‚ কীভাবে মুক্ত হলেন তাঁরা ?

1779

কাঞ্চন কৌলীন্য থাকলেই যে জীবন সুখকর হয় না তা অবগত হয় কুবেরের দুই পুত্রের আখ্যান শুনলে | কুবের তো ধনভাণ্ডারের মালিক | তাঁর কাছে আর্থিক প্রাচুর্যের অভাব নেই | দুই পুত্র নলকুবের ও মণিগ্রীবা ধনসম্পত্তি পেয়ে মদমত্ত প্রমত্ত হয়ে আছেন | মহাদেবের কৈলাসের মনোহর উদ্যানে অপ্সরাদের সঙ্গে উন্মত্ত উপভোগে ভেসে যাচ্ছিলেন দুই কুবেরপুত্র , পদ্ম প্রস্ফুটিত গঙ্গায় | সেই পুণ্যতোয়ায় নেমে চলছিল জলকেলি | মদীরার নেশা‚ অসামান্যা সুন্দরী অপ্সরা‚ তাঁদের কণ্ঠসঙ্গীতের প্রভাবে দুই কুবের তনয় বাহ্যজ্ঞানরহিত হয়েছিলেন | মদমত্ত হস্তীর মতো আচরণ করছিলেন | 

ইত্যবসরে উপস্থিত হলেন দেবর্ষি নারদ | কিন্তু প্রমত্ত অবস্থায় তাঁকে খেয়াল করলেন না নলকুবের বা মণিগ্রীবা কেউই | অপ্সরাগণ অতো মত্ত ছিলেন না |  জলকেলিরত অবস্থায় নারদকে দেখে লজ্জায় অবনত হয়ে পড়লেন | আব্রু রক্ষায় সচেষ্ট হলেন নগ্নসুন্দরীরা | কিন্তু কুবেরতনয়দ্বয় স্খলিত বসন সংয্ত করতে পারলেন না |

এই দৃশ্য থেকে কুপিত নারদ উপলব্ধি করলেন অভিশাপ না দিলে দুই মূঢ় উপদেবতার সমুচিত শিক্ষালাভ হবে না | তাই প্রকারান্তরে তাঁদের অন্ধকার থেকে আলোয় আনতে তিনি শাপ দিলেন | ১০০ বছর ধরে তাঁরা বৃক্ষ হয়ে থাকবেন | এরপর তাঁদের সাক্ষাৎ হবে স্বয়ং শ্রীকৃষ্ণের সঙ্গে | সম্মুখ সেই সাক্ষাতের পরই মুক্তি পাবেন নলকুবের ও মণিগ্রীবা | কৃষ্ণের হাতে উৎপাটিত হবে দুই বৃক্ষ | তারপরেই বেরিয়ে আসবেন শাপমুক্ত কুবেরপুত্ররা | 

নারদের অভিশাপে দুই কুবেরতনয় অর্জুন গাছে রূপান্তরিত হলেন | গোকুলে কৃষ্ণের পালক পিতা নন্দর উঠোনে জন্ম হল তাঁদের | যদিও তখনও শ্রীকৃষ্ণের আবির্ভাব হয়নি | একশো বছর অতিবাহিত হল | নির্দিষ্ট সময়ে জন্ম হল কৃষ্ণের | তাঁর বাল্যলীলায় তখন নন্দর উঠোন আলোকিত | তিনি তো সম্যক জানেন তাঁর ভক্ত নারদের অভিশাপে বৃক্ষে পরিণত হয়েছেন দুই কুবের আত্মজ | 

একদিন বালকৃষ্ণ খেলাচ্ছলে উৎপাটিত করলেন দুই বৃক্ষ | তাঁর দুষ্টুমিতে দিশেহারা যশোদা বেঁধে রেখেছিলেন দড়ি দিয়ে | কোমরে দড়ি বাঁধা অবস্থায় দুটি অর্জুন বৃক্ষের মাঝে হামাগুড়ি দিয়ে অগ্রসর হলেন কৃষ্ণ | সমূলে উৎপাটিত হল দুই বৃক্ষরাজি | অভ্যন্তর থেকে আবির্ভূত হলেন নলকুবের ও মণিগ্রীবা | নতজানু হলেন ভগবান শ্রীকৃষ্ণের সামনে | তাঁকে প্রদক্ষিণ-আরাধনা করে বিদায় নিলেন শাপভ্রষ্ট থেকে শাপমুক্ত দুই উপদেবতা |

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.