আজ্ঞে হ্যাঁ‚ একদম ঠিকই দেখছেন | সারাজীবন কিছুই করতে হবে না কিন্তু মাসের শেষে ঠিক পেয়ে যাবেন মোটা টাকার মাইনে | আমাদের দেশে যেখানে কাজ করেও বেতন কম হওয়ার জন্য মানুষকে আর্থিক অনটনের সমস্যায় ভুগতে হয়, সেখানে এর থেকে শ্রেষ্ঠ চাকরি আর কী-ই বা হতে পারে ! কিন্তু ভারতে নয়‚ এমন চাকরি পেতে হলে আপনাকে যেতে হবে সুইডেনে |

সুইডেনের গোঠেনবার্গে পরীক্ষামূলক একটি প্রোজেক্টের আওতায় দেওয়া হবে এমনই চাকরি | তবে ঠিক এখনই নয় | ২০২৬ সালে | পৃথিবীর কোনও এক মহাসৌভাগ্যশালী মানুষের কপালেই জুটবে এই জ্যাকপট | কোর্সভেগানের একটি স্টেশনের  স্থায়ী পদ হিসেবেই ঘোষণা করা হয়েছে এই চাকরিটির কথা | বর্তমানে নির্মাণাধীন এই ট্রেন স্টেশনে বিশেষ পদের এই চাকরিতে চাকুরের কাজ হবে শুধুমাত্র ঘড়ি ধরে আসা আর ঘড়ি ধরে চলে যাওয়া | স্টেশনে এসে কর্মীকে শুধু একটি ক্লক পাঞ্চ করতে হবে যার ফলে স্টেশনে জ্বলে উঠবে একরকমের ফ্লুরোসেন্ট আলো | স্টেশনের যাত্রী ও কর্মীরা জানতে পারবে সেই কর্মী উপস্থিত আছে | আবার কাজের সময় পেরিয়ে গেলে ক্লক পাঞ্চ করে ফ্লুরোসেন্ট আলো নিভিয়ে চলে যাবে সে |

কাজের সময়ে সারাক্ষণ যে স্টেশনে উপস্থিত থাকতেই হবে কর্মীকেএমনও কোনও বাধ্যবাধকতা নেই | সেই সময়ে সে অন্য কোনও জায়গায় কাজও করতে পারে | অথবা নিজের ইচ্ছেমত বই পড়তে‚ সিনেমা দেখতে‚ গান শুনতে অথবা স্রেফ ঘুমোতেও পারবে | আর তার বদলে মাস গেলে মাইনে পাবে কত জানেন ? ২‚৩২০ মার্কিন ডলার‚ ভারতীয় মূল্যে যার মান প্রায় এক লক্ষ টাকা |

এছাড়াও বার্ষিক মাইনে বৃদ্ধি‚ ঘুরতে যাওয়ার ছুটি,  রয়েছে পেনশনও | এবং তার থেকেও বড়  সুবিধা  হল যে এই চাকরির পদটি একেবারেই স্থায়ী | তাই চাকরি খোয়ানোর কোনও ভয় নেই | মনের সুখে সুখের জীবনযাপন করতে নেই কোথাও কোনও বাধা | এই পদের জন্য কোনও বিশেষ যোগ্যতার দাবিও করা হয়নি | প্রার্থীদের মধ্যে থেকে যোগ্যতমকে বেছে নেবেন কয়েকজন শিল্পী | এবং এটি সরকারি চাকরি | তাহলে কী ভাবছেন‚ তল্পিতল্পা গুটিয়ে পাড়ি দেবেন নাকি সুইডেনে ?

আরও পড়ুন:  ট্যুইটার থেকে বিরতি নিতে বলছে স্বয়ং ট্যুইটার

তবে এখনই আবেদন করা যাবে না এই পদের জন্য | আবেদন জমা নেওয়া শুরু হবে ২০২৫ সাল থেকে | অপেক্ষার প্রহর গুনতে থাকুন এখন থেকেই |

NO COMMENTS