রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে খাদ্যতালিকায় রাখবেন যে খাবারগুলি

1131

খাওয়াদাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নিয়মিত শরীরচর্চা করলে স্বাস্থ্য ভাল থাকে। কিন্তু ব্যস্ত জীবনে পাওয়া যায় না শরীরচর্চা করার মত অবকাশ। তাই খাওয়াদাওয়ার প্রতি আরও বেশি করে নজর দেওয়ার দরকার হয়ে পড়ে।  খাওয়াদাওয়া ঠিক করে না করার জন্য এখন প্রায়ই নানারকম রোগের প্রকোপ দেখা যায়। রোগ থেকে শরীরকে দূরে রাখতে খেতে হবে এমন কিছু খাবার যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করবে।

১. ওমেগা ৩ ও ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ মাছ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। সপ্তাহে অন্তত ৩ থেকে ৪ দিন মাছ খান।

২. বাড়িতে বানানো চিকেন স্যুপ শরীরের জন্য খুব উপকারী। এতে থাকে কারনোসিন নামের একটি রাসায়নিক পদার্থ যা ভাইরাল জ্বরের সংক্রমণ থেকে শরীরকে রক্ষা করে।

৩. কাঁচা রসুন ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস ও ছত্রাকজনিত সংক্রমণের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলে। বিশেষ করে, ত্বকের রোগ সংক্রমণ নিরাময়ে ভালো কাজ করে রসুন।

৪. মধু ও দারচিনি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে। সারাদিনের রান্না করা খাবারে যোগ করে খেতে পারেন।

৫. তরমুজে থাকে গ্লুটাথায়োন অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এটি দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

৬. দুধ ও টকদই জিঙ্ক সমৃদ্ধ খাবার যা প্রতিরোধে সাহায্য করে। দুধ হজম না হলে দুধের তৈরি খাবার খান। দিনে অন্তত ১০০ গ্রাম টকদই অথবা ১ কাপ দুধ খাবার চেষ্টা করুন।

৭. অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের উৎস আদা। ফলমূল বা সবজিতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরে কাজও করে তাড়াতাড়ি। আদা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করবে।

৮. আমলকী ভিটামিন সি সমৃদ্ধ। আমলকীর সঙ্গে বেটে নিন অল্প আদা ও খেজুর। আমলকীর এই চাটনি শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করবে।

৯. পালংশাকে রয়েছে প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও আয়রন। আয়রন এমন একটি খনিজ উপাদান যা লোহিত রক্তকণিকা উত্‍পাদনের জন্য জরুরি। এটি রক্তস্বল্পতাও প্রতিরোধ করে। পাশাপাশি রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা বৃদ্ধিতেও সাহায্য করে।

১০. ভিটামিন সি রোগের বিরূদ্ধে লড়াইয়ের ক্ষমতার জন্য পরিচিত। ভিটামিন সি লেবুজাতীয় সব ধরনের ফলে ( যেমন কমলালেবু, পাতিলেবু, জাম্বুরা ইত্যাদি ) প্রচুর পরিমাণে থাকে।

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.