অতীতের কলকাতার কন্যার আঁচলেই এ বার আন্তর্জাতিক মুদ্রা ভাণ্ডারের চাবি বাঁধা

264

আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) প্রধান অর্থনীতিবিদ হিসেবে দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন গীতা গোপীনাথ। এই প্রথম কোনও মহিলা এই দায়িত্বে নিযুক্তে হতে চলেছেন। তাঁকে সোমবার আইএমএফের প্রধান অর্থনীতিবিদ হিসাবে নিযুক্ত করা হয়েছে। ডিসেম্বরে অবসর নেবেন মরিস ওবস্টফেল্ড। তার পরে ওই পদে যোগ দেবেন ৪৬ বছরের গীতা। সোমবার তাঁর নিয়োগের কথা ঘোষণা করেন আইএমএফ প্রধান ক্রিস্টিন ল্যাগার্দে।

হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক গীতার জন্ম মহিশূরে। তবে কলকাতার স্কুলেই পড়াশোনা করেছেন তিনি। দিল্লি ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে উচ্চশিক্ষা নিয়েছেন এবং ২০০১ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রিন্সটন ইউনিভার্সিটি থেকে তিনি অর্থনীতিতে পিএইচডি করেন। এরপরেই শিকাগো বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কাজ করেন তিনি। তাছাড়া জি-২০–এর অর্থ মন্ত্রণালয়ের পরামর্শদাতা কমিটির সদস্য ছিলেন গীতা। এর আগে তিনি কেরালার পিনারাই বিজয়ন সরকারের আর্থিক উপদেষ্টা হিসেবেও কাজ করেছেন। ২০১৪ সালে বিশ্বের ৪৫ বছরের কম বয়সী ২৫ জন প্রথম সারির অর্থনীতিবিদ হিসেবে আইএমএফের স্বীকৃতি পান গীতা। তাঁর বাবা একজন কৃষক এবং মা গৃহবধূ।

২০০৫ সালে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে যোগ দেন এবং ২০১০ সালে সেখানে চুক্তিভিত্তিক অধ্যাপক হিসেবে দায়িত্ব পালন শুরু করেন। হার্ভার্ডের ইতিহাসে গীতা হচ্ছেন তৃতীয় নারী, যিনি অর্থনীতি বিভাগের চুক্তিভিত্তিক অধ্যাপক। শুধু অর্থ ভাণ্ডারের প্রথম মহিলা প্রধানই নয়। ভারতীয় হিসেবে রঘুরাম রাজনের পরেই তিনিই এই পদের অধিকারী হলেন। তবে অর্থনীতিবিদ হিসেবে ২০১৮ থেকেই আইএমএফ-এর অংশ ৪৬ বছরের গীতা গোপীনাথ। আর গীতার নিয়োগের পরে আইএমএফ, বিশ্ব ব্যাঙ্ক এবং ওইসিডি, এই তিন প্রতিষ্ঠানেরই মুখ্য অর্থনীতিবিদ হবেন কোনও মহিলা।

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.