জমকালো এই বিয়েতে কনে বাদে ছিল বাকি সব‚ আর ছিল মর্মস্পর্শী কাহিনী

আর পাঁচটা গুজরাতি বিয়ের থেকে কোনও পার্থক্য ছিল না | আলো রোশনাই বাজনা নাচগান ঘোড়ার উপরে বর | নতুন বরের পরনে গোলাপি শেরওয়ানি‚ মাথায় গোলাপি পাগড়ি | গলায় লাল সাদ গোলাপের মোটা মালা | তাকে ঘিরে সামনে পিছনে বরাতিদের বিশাল শোভাযাত্রা | সঙ্গীত‚ মেহন্দি পালিত হয়েছে সব রীতিনীতি | ছিল সবই | ছিল না কেবল কনে | উত্তর গুজরাতের সবরকণ্ঠ জেলার হিম্মতনগর এলাকা সাক্ষী থাকল এমনই এক আজব বিয়ের |

বিয়ে হল সাতাশ বছর বয়সী অজয় বারোতের | তাঁর বাবা গুজরাত রাজ্য পরিবহণের কর্মী | অনেকদিন ধরেই বিয়ের শখ অজয়ের | বাবা মাকে প্রায়ই বলেন‚ সবার বিয়ে হয়ে যাচ্ছে | তাঁর কবে হবে ? ছেলের আর্তি শুনে নীরবে লুকিয়ে চোখের জল মুছতেন বাবা মা | কে বিয়ে করবে অজয়কে ? তিনি যে আজন্ম মানসিক প্রতিবন্ধী | নেই একবিন্দু প্রথাগত পড়াশোনা | তাঁকে বিয়ে করা মানে তো নিজের ভবিষ্যৎ জলাঞ্জলি দেওয়া |

কিন্তু অতশত বোঝেন না অজয় | অন্যের বিয়ের অনুষ্ঠানে তিনি প্রাণ খুলে নাচেন | আনন্দ করেন | আর তাঁর নিজেরই কিনা বিয়ে হবে না ! অবুঝ সন্তানের ইচ্ছেপূরণ করলেন বাবা মা | দু লক্ষ টাকা খরচ করে বিয়ে দিলেন | কনে ছড়া ছিল সবকিছু | নিমন্ত্রিত ৮০০ জন | সবাই খুব আনন্দ করেছে অজয়ের বিয়েতে | অজয় নিজেও | আর দুঃখ নেই তাঁর | এ বার বন্ধুদের মতো তিনিও যে বিবাহিত !

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here