পাঁচ পুরুষেও ‘সিঙ্গল’ ৪৯-এর পূজা!?

pooja bedi love life

টিনসেল টাউনের দ্রৌপদী কিন্তু তুলনায় চতুর। বিয়ে করেছেন একজনকে। প্রেম করেছেন পাঁচজনের সঙ্গে। কিন্তু আর বিয়ে করেননি। কে এই বলিমহল্লার পাঞ্চালি? ওয়ান অ্যান্ড ওনলি পূজা বেদি। কাদের তিনি বশ করেও বিয়ে করেননি? আজ সেই গসিপ বাংলালাইভে—

কবির-প্রতিমা বেদির মেয়ে পূজা। সেই প্রতিমা বেদি, যিনি নগ্ন হয়ে সি-বিচে দৌড়ে মুম্বই বালুকাবেলা তপ্ত করে তুলেছিলেন। তাঁদের মেয়ে ‘বহুত কুছ’ না হলেও কিছু তো কাণ্ড ঘটাবেনই। এই কাণ্ড ঘটাতে গিয়েই পাঁচজন পুরুষ এসেছিলেন তাঁর জীবনে।

আদিত্য পাঞ্চোলি: পূজার প্রথম সো-কলড প্রেমিক। শুরুতে কিন্তু আদিত্য-পূজা খুব ভালো বন্ধু ছিলেন। জারিনা ওয়াহবের সঙ্গে বিয়েও হয়ে গিয়েছিল তাঁর। লং টার্ম ফ্রেন্ডশিপ চলতে চলতেই আচমকা বন্ধুত্ব বদলে যায় প্রেমে। তখন তাঁরা যেন স্বাধীন উড়ন্ত কপোত-কপোতি। দিনের বেশির ভাগটাই কেটে যেত পূজার বাড়িতে। জারিনার সঙ্গে বিয়ে প্রায় ভাঙব ভাঙব দশা। এই প্রেম শেষের পিছনে কিন্তু পূজার কোনও হাত ছিল না। এর জন্য দায়ী আদিত্য। পূজার বাড়ির কাজের মেয়েকে বলিউডে জায়গা করে দেবেন বলে তাঁর সঙ্গে নিয়মিত শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন আদি। ঘটনা কানে আসতেই প্রথমে আদিত্যকে জিজ্ঞেস করেন পূজা। আদিত্য স্বীকার করতেই তাঁকে বের করে দেন বাড়ি থেকে। এরপরেই মুখ দেখাদেখি বন্ধ। প্রায় দু’দশক পরে ফের দু’জনে মুখোমু়খি হন এক পার্টিতে। সেখানে একে অপরকে সৌজন্যটুকু দেখিয়েছিলেন।

২. ফারহান ফার্নিচারওয়ালা: আদিত্য পাঞ্চোলি যাওয়ার পর ফের একা পূজা। কিন্তু তিনি যে মোটেই সুশীল, সুবোধ বালিকা নন! আর  নন বলেই ফের প্রেমে ডুব তাঁর। এবার বন্ধুত্ব তৈরি হল ফারহান ফার্নিচারওয়ালার সঙ্গে। সাড়ে তিন বছরের  কোর্টশিপের পর ১৯৯৪-এ ধর্ম পরিবর্তন করে পূজা বিয়ে করেন ফারহানকে। ইনিই পূজার ‘অর্জুন’। চুটিয়ে ১২ বছর সংসার করার পর ২০০৬-এ এই বিয়ে ভাঙে। ততদিনে পূজা দুই সন্তানের মা। দু’জনেরই মনে হয়েছিল কোথাও মিলছে না তাঁদের। কোনও অশান্তির মধ্যে না গিয়ে মিউচুয়ালি ডিভোর্স করেন পূজা-ফারহান। সেদিন ছিল ভ্যালেন্টাইনস ডে!

৩. হানিফ হিলাল: পূজার তিন নম্বর আশিক। ‘নাচ বলিয়ে’-র সিজন থ্রিতে দু’জনের আলাপ। এই সিজনে হানিফ ছিলেন বেদি কন্যার কোরিওগ্রাফার। নাচের ছন্দে একে অন্যের প্রেমে পড়েন দু’জনে। পূজার মতো দামাল হাওয়ার হানিফকে ভাসিয়ে নিয়ে যেতে বেশিদিন সময় লাগেনি। যথারীতি দু’বছর চুটিয়ে প্রেম। তারপরেই কাট্টি।

৪. দ্বিতি বিক্রমাদিত্য: হানিফ যেতেই দ্বিতি এলেন। এঁকে কিন্তু বিয়ে করবেন বলে ঠিক করেছিলেন পূজা। সেই মতো ৪০ বছরের জন্মদিন ছেলেমেয়ে আর দ্বিতিকে নিয়ে গোয়ায় সেলিব্রেট করেন তিনি। কিন্তু দ্বিতির মা-বাবা প্রচীনপন্থী। তাঁরা এমন ‘কেয়ার ফ্রি’ মেয়েকে বউমা বানান কী করে? মা-বাবার জন্যই শেষে সরে যান দ্বিতি।

৫. আকাশদীপ সায়গল: এঁর সঙ্গে পূজার আলাপ বিগ বস ৫-এ। সিজন শেষ হলেও দু’জনের সম্পর্ক কিন্তু বজায় ছিল। যত দিন গেছে তত গাঢ় হয়েছে রসায়ন। আকাশদ্বীপ হাতে ট্যাটুও করেছেন পূজার নামে। কিন্তু পূজা আর বিয়ের পথে ভুলেও পা বাড়াননি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here