৬০ লক্ষ টাকা প্রতারণায় অভিযুক্ত গায়িকা এ বার পুলিশের ফাঁদে

হরিয়ানার বাসিন্দা সাতাশ বছরের শিখা রাঘব। পেশায় একজন গায়িকা। দিল্লি, হরিয়ানা-সহ বিভিন্ন জায়গায় ধর্মীয় অনুষ্ঠানে গান করেন তিনি। ২০১৬ সালের ৮ নভেম্বর নোটবন্দি হওয়ার কয়েকদিনের পরের ঘটনা। দিল্লিতে একটি রামলীলার গানের অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন শিখা। সেখানে ছিলেন তাঁর প্রেমিক পবন। সেখানেই, অনুষ্ঠানের এক উদ্যোক্তা রানাপ্রতাপ বাগ নিবাসী সন্তোষ ভরদ্বাজ-এর সঙ্গে আলাপ হয় দু’জনের। তিনি একজন অবসরপ্রাপ্ত আধাসেনা কর্মী। কথায় কথায় তিনি নোট বাতিলের সমস্যার কথা বলেন। পুরনো নোটের বদলে নতুন নোট দেওয়ার টোপ দিয়েই সন্তোষ ভরদ্বাজ-এর থেকে ৬০ লক্ষ টাকা নেয় এই পবন ও শিখা।

ওই জুটি সন্তোষ ভরদ্বাজ-কে আশ্বাস দেয়, তাঁরা পুরনো নোট বদলে নতুন নোট দিয়ে দেবেন। এই প্রতিশ্রুতিতেই বৃদ্ধের থেকে ৬০ লাখ টাকা নেয় দু’জন। কিন্তু নির্দিষ্ট সময়ের দীর্ঘদিন পরও ফিরে না আসায় সন্দেহ হয় বৃদ্ধের। দু’জনের নামে রূপনগর থানায় এফআইআর দায়ের করেন তিনি। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, দু’জনই গা ঢাকা দিয়েছে। সম্ভাব্য সব জায়গায় খুঁজেও তাদের ধরতে পারেনি পুলিশ।

দুই বছরের পুরনো মামলায় দিল্লির আদালত শিখাকে পলাতক ঘোষণা করেছিল৷ বৃহস্পতিবার হরিয়ানার, বাহাদুরগড় থেকে শিখা রাঘব-কে গ্রেফতার করেছে জিজ্ঞাসাবাদ করা শুরু করেছে পুলিশ। বুধবার গ্রেফতারের পর ট্রানজিট রিমান্ডে দিল্লিতে নিয়ে আসা হয়েছে বৃহস্পতিবার। তবে শিখার থেকে এখনও ৬০ লাখ টাকা উদ্ধার হয় নি বলে পুলিশের তরফ থেকে জানানো হয়েছে। আরও জানা গিয়েছে, পুরনো নোট শিখা বদল করতে পেরেছিল না এবং সন্তোষ ভরদ্বাজ নিজে ব্যাঙ্কে টাকা না পাল্টে কেন ওই জুটিকে দিলেন! সে বিষয়েও আলাদা আলাদা তদন্ত হবে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Please share your feedback

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ওয়র্থ ব্রাদার্স সংস্থার লেটারহেড

মায়ার খেলা

চার দিকে মায়াবি নীল আলো। পেছনে বাজনা বাজছে। তাঁবুর নীচে এ প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে উড়ে বেড়াচ্ছে সাদা ঝিকমিকে ব্যালে