মৃত বাবার নির্দেশ ! পরিবারের সবাইকে মুখ-চোখ-হাত বাঁধা অবস্থায় ঝুলতে বাধ্য করেছিলেন ছোট ছেলে ?

2251

কিছু ঘটনা আসে যা দুঁদে পুলিশ অফিসারদেরও কেরিয়ারে মাইলফলক হয়ে থেকে যায় | দিল্লির বুরারির সাম্প্রতিক হত্যাকাণ্ড সেরকমই একটি | হতভম্ব অভিজ্ঞ গোয়েন্দারাও | এখনও তল খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না এই বিরলতম ঘটনার | গণহত্যা ? গণ আত্মহত্যা ? নাকি গণমোক্ষলাভের আকাঙ্খা ? থৈ পাচ্ছে না তদন্তকারীরা | প্রাথমিক অনুমান‚ মৃত নারায়ণ দেবীর ছোট ছেলেই এই ঘটনার মূল চক্রী | এবং তাঁরা ভেবেছিলেন এর ফলে কেউ মারা যাবেন না | স্বয়ং ঈশ্বর এসে তাঁদের রক্ষা করবেন |

# ভাটিয়া পরিবারের বাড়িতে তল্লাশিতে পাওয়া গেছে দুটি নোটবুক | যার প্রতি পাতায় ভর্তি তন্ত্রসাধনার কথা | এর সঙ্গে নারকীয় এই ঘটনার সম্পর্ক আছে বলে ধারণা পুলিশের | কারণ দেহগুলিতে কোনও ধস্তাধস্তির চিহ্ন নেই | মনে করা হচ্ছে একজন সদস্য অন্যজনকে সাহায্য করেছে !

# নোটবুকে লেখা‚ মুখ চোখ সম্পূর্ণ ঢেকে‚ দু হাত পিছমোড়া করে বেঁধে পরপর ঝুলতে হবে | অবিকল সেভাবেই পাওয়া গেছে মৃতদেহগুলি | সিলিং থেকে একের পর এক ঝুলছে বাড়ির সদস্যরা | সবার মুখ ঢাকা | দু হাত পিছনে বাঁধা | 

# বৃদ্ধা নারায়ণ দেবীকে পাওয়া গেছে বিছানায় | কিন্তু তাঁর দেহের পাশে বেল্ট আর ওড়না পাওয়া গেছে | মনে করা হচ্ছে তিনিও ওই একইভাবে ঝুলন্ত অবস্থায় প্রাণত্যাগ করেন | পরে কেউ তাঁর দেহ নামিয়ে এনে শুইয়ে দেয় | 

# নোটবুক পড়ে গোয়েন্দাদের ধারণা‚ নারায়ণ দেবীর ছোট ছেলে ললিত ভাটিয়া তাঁর মৃত বাবাকে হ্যালুসিনেট করতেন | দশ বছর আগে মারা গেছেন তাঁর বাবা | 

# ৪৫ বছর বয়সী ললিত সবাইকে বোঝান‚ তাঁদের স্বর্গত বাবা চান পরিবারের সবাই একসঙ্গে মুক্তি লাভ করুক | গত তিন বছর ধরে তাই তিনিই নির্দেশ দিতেন ললিতকে | কীভাবে কী করলে আসবে সেই মোক্ষ |

# মৃতদের মধ্যে আছেন নারায়ণ দেবীর নাতনি ( মেয়ের মেয়ে ) প্রিয়াঙ্কাও | গত ১৭ জুন তাঁর বাগদান হয় | এ বছরের শেষে বিয়ের কথা ছিল তথ্যপ্রযুক্তি কর্মী ৩৩ বছর বয়সী প্রিয়াঙ্কার | এছাড়াও একই ভাবে মৃত্যু হয়েছে নারায়ণ দেবীর দুই নাতিরও | দুজনেরই বয়স ১৫ বছর | 

# এই ঘটনায় কোনও গডম্যানের জড়িত থাকার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছে পুলিশ | নোটবুক পড়ে মনে করা হচ্ছে নিজের বাবার বয়ানে সেসব লিখতেন ললিত | বাড়ির বাকিদের তিনিই টেনে আনেন গণমোক্ষলাভের পথে |

তবে এই কাণ্ডে প্রচুর ধোয়াঁশা | ভাটিয়া পরিবারের বাড়ি থেকে ১১ টি পাইপ দেওয়াল ফুঁড়ে বেরিয়ে আছে | কিন্তু সেগুলো দিয়ে বাইরে জল বেরোনোর কোনও ব্যবস্থা নেই | উল্লেখযোগ্য‚ মৃতদেহও পাওয়া গেছে ১১ টি | কোনও যোগ আছে‚ নাকি নিছক সমাপতন‚ খতিয়ে দেখছেন গোয়েন্দারা |    

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.