মহারাজা টয়লেটে যাবেন ! ওরে কে আছিস ? ওঁর পায়জামার ফিতের গিঁট খুলে দিতে হবে…

4444

এই পর্বেও আছে এক মহারাজার কথা | তবে তার আগে রাজরাজড়াদের পোষ্যদের পর্ব | ব্রিটিশ ভারতে ভারতীয় রাজন্যদের বিলাসিতা কোথায় গিয়ে পৌঁছেছিল‚ তার এক টুকরো নমুনা দেখুন |

গুজরাতের জুনাগড় প্রাসাদে বসেছিল রাজকীয় বিয়ের আসর | জাঁকজমকের আর কিছু বাকি নেই | মহামূল্যবান অলঙ্কারে সজ্জিত কনে | গলায় ঝুলছে কয়েক লক্ষের মুক্তো-কণ্ঠহার | নাম তার রোশেনারা | বসে আছে বরের অপেক্ষায় |

জুনাগড়ের নবাব নিজে গেছেন স্টেশনে | বরযাত্রীদের স্বাগত জানাতে | একটা ট্রেন ভাড়া করে তারা আসছে ম্যাঙ্গালোর থেকে | প্রায় আড়াইশো জন বরযাত্রী নামল কামরা থেকে | বর সমেত তাদের বিশেষ অভ্যর্থনায় নিয়ে যাওয়া হল প্রাসাদে |

ধূমধামে বিয়ে হয়ে গেল | জুনাগাড়ের রাজার পোষা কুক্কুরীর সঙ্গে ম্যাঙ্গালোরের রাজার পোষা কুকুরের | খরচ হয়েছিল সেকালের যুগে কয়েক লাখ টাকা |

ঠিকই পড়ছেন | রোশেনারা ছিল জুনাগড়ের রাজার পোষা কুক্কুরী | সালঙ্কারা হয়ে বিয়ে করে গিয়েছিল ম্যাঙ্গালোর প্রাসাদে | বিয়ের সাক্ষী থাকতে ট্রেন ভাড়া করে আনা হয়েছিল ২৫০ জন কুকুর-বরযাত্রীকে |

এ বার অন্য পর্ব | জুনাগড়ের প্রাসাদ থেকে চলে আসুন পঞ্জাবের কাপুরথালায় | একবার কাপুরথালার মহারাজাকে আমন্ত্রণ জানানো হল বাকিংহাম প্যালেসে | গ্রেট ব্রিটেনের রাজারানির সঙ্গে দেখা করতে গেছেন | কাপুরথালার রাজার সাজ একেবারে দেখার মতো |

অফিশিয়াল সাজে রাজা পরেছেন চুড়িদার-পায়জামা‚ হিরে বসানো ব্রোকেডের আচকান‚ নীলকান্তমণি বসানো পাগড়ি‚ গলায় মুক্তোর কণ্ঠহার | কোমরবন্ধনী থেকে ঝুলছে ঐতিহাসিক তলোয়ার | ওই কোমরবন্ধনী ও তরবারি রাজার পূর্বপুরুষরা উপহার পেয়েছিলেন পারসিক আক্রমণকারী স্বয়ং নাদির শাহ-এর কাছ থেকে |

বাকিংহামের দ্বার থেকে সসম্মানে কাপুরথালার রাজাকে রাজারানির কাছে নিয়ে গেলেন লর্ড চেম্বারলেইন | আদর-আপ্যায়ন-মদিরা সেবনে রাজা তখন কিঞ্চিৎ মন্দ্রিত | আবেশে নেচে চলেছেন শ্বেতাঙ্গিনী সুন্দরীদের সঙ্গে |

এর মধ্যেই মনে হল একবার প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে হবে | কিন্তু নাচের আসরে রাজা একা আমন্ত্রিত | তাঁর কোনও চাকর বাকর বা সাহায্যকারীর প্রবেশাধিকার নেই | রাজা মহা সমস্যায় পড়লেন | পায়জামার ফিতের গিঁট কেউ না খুলে দিলে তিনি কী করে যাবেন !

ব্রিটেনের রাজার ব্যক্তিগত সচিবকে সব বললেন কাপুরথালার মহারাজা | সচিব সে কথা জানাতে লর্ড চেম্বারলেইন ভিতরে ডাকালেন ইন্দর সিংকে | তিনি ছিলেন কাপুরথালার মহারাজার মুখ্য সহায়ক | বাইরে গাড়িতে চালকের সঙ্গে অপেক্ষায় ছিলেন ইন্দর |

যাই হোক‚ আলাদা কক্ষে গিয়ে কাপুরথালার মহারাজার পায়জামার ফিতের গিঁট খুলে দিলেন ইন্দর সিং | তারপর টয়লেটে গেলেন রাজা | ইন্দর সিং দাঁড়িয়ে থাকলেন‚ রাজা বের হলে আবার ফিতে বেঁধে দেবেন | এটাই ছিল রীতি | রাজারা পায়জামার ফিতে বাঁধার কাজটুকু অবধি নিজে করতেন না |

পায়জামার ফিতেই যখন পারতেন না বাঁধতে‚ তখন পাগড়ি তো দূর অস্ত | মহীশূর থেকে আসত রেডিমেড পাগড়ি | সেগুলোই পরতেন কাপুরথালার মহারাজারা | তবে সেই রেডিমেড পাগড়ি পরিয়ে দেওয়ার জন্যেও নিযুক্ত থাকত আলাদা দুজন লোক |

রাজ অলিন্দের আরও কালিমা : ২৯৩০ টি হিরের দুর্মূল্য কণ্ঠহার‚ ২০ টি রোলসরয়েস থেকে ৩৩২ জন যৌনদাসী…বিলাসব্যসনের আর এক নাম মহারাজা ভূপিন্দর সিং https://banglalive.com/indias-kinkiest-maharaja/

পরকীয়ার মহিমা ! প্রেমিকের সঙ্গে সংসার পেতে বিবাহিতা রাজকন্যা হয়ে গেলেন ঘুঁটে কুড়ুনি https://banglalive.com/from-riches-to-rags-2/

মেয়েদের কৌমার্য হরণ ছিল নেশা ! সেই কামুক রাজার শেষ জীবনে এ কী রূপান্তর ! https://banglalive.com/the-transformation-of-lecherous-king/

ম্যা গো ! সভায় বসে রাজকার্য পরিচালনার সময় নবাব এটাও করতেন একইসঙ্গে ! https://banglalive.com/his-highness-the-nawab-his-toilet-seat/

 
 
 

Advertisements

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.