জেনে নিন গরমে টকদই খেলে কী কী উপকার পাবেন?

10294

দক্ষিণ ভারতের লোকেরা এত টকদই খায় কেন জানেন? টকদই শরীর ঠান্ডা রাখে, তাই| দুধের এই বিশেষ প্রোডাক্টটি থেকে আরও অনেক উপকার মেলে| সেগুলো জানার আগে জেনে নিন, একবাটি টক দই আপনার শরীরের কী কী অভাব পূরণ করতে পারে| ২০০-২৫০ গ্রাম টকদই থেকে আপনি পাবেন ১০০-১৫০ ক্যালোরি, ২ কিলো স্যাচুরেটেড ফ্যাট, ৩.৫ গ্রাম ফ্যাট, ২০ গ্রাম শর্করা, ৮-১০ গ্রাম প্রোটিন| বাড়তি পাওনা ভিটামিন ডি আর ক্যালসিয়াম| এবার জানুন উপকারিতা—

১. যাঁদের হজমের সমস্যা তাঁরা অবশ্যই ডায়েটে রাখুন টকদই| খাওয়ার পর একবাটি টকদই যেমন খাবার হজমে সাহায্য করে তেমনি অন্য খাবারের পুষ্টিগুণ শোষণে সাহায্য করে|নিয়মিত টকদই খেলে পেটের যাবতীয় সংক্রমণ সারে|

২. শরীরে গুড ব্যাকটিরিয়া তৈরি করে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় টকদই| আর আপনি যত কম রোগে ভুগবেন ততই সুস্থ থাকবে শরীর| রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি ভ্যাজাইনা ইস্ট ইনফেকশনও কমায় এই খাবার|

৩. আগেই বলা হয়েছে, টকদইয়ে প্রচুর ক্যালসিয়াম আছে| এই মিনারেলস হাড় আর দাঁত মজবুত করতে সাহায্য করে| শুধু তাই নয়, ক্যালসিয়ামের সঙ্গে ফসফরাস মিশে বাচ্চাদের নতুন হাড়, দাঁত আরো সুগঠিত করতেও সাহায্য করে| রোজ একবাটি টকদই খেলে হাড়ের রোগ, বাত, হাড়ের ক্ষয় হবে না|

৪. আজকের প্রতিযোগিতার বাজারে কে না দুশ্চিন্তা আর অবসাদে ভোগেন? এই সমস্যারও সমাধান লুকিয়ে টকদইয়ে| রোজ এই খাবার খেলে হাসতে হাসতে দুশ্চিন্তা, অবসাদের কবল থেকে মুক্ত থাকবেন আপনি| কীভাবে? টকদই শরীরের পাশাপাশি নার্ভ ঠান্ডা রাখে| আর স্নায়ু বশে থাকলে উত্তেজনা কম হয়|

৫. টকদইয়ের মধ্যে থাকা ক্যালসিয়াম ওজন কমাতে সাহায্য করে| ক্যালসিয়াম শরীরে কর্টিসল তৈরি হতে দেয় না| অনেকেই জানেন না, শরীরে মেদ জমে কর্টিসলের জন্য| এভাবেই কর্টিসলের ভারসাম্য নিয়ন্ত্রণ করে ওজন নিয়ন্ত্রণ করে টকদই| সঙ্গে কমায় হাইপার টেনসন|

৬. অনেক পুরুষ যৌন অক্ষমতা কমাতে নানা ধরনের ওষুধ খান| তাঁরা খাওয়ার আগে নিয়মিত টকদই খেলে যৌন অক্ষমতার হাত থেকে রেহাই পাবেন|

৭. টকদই যেমন বাড়তি মেদ জমতে দেয় না তেমনি ধমনীতে জমা কোলেস্টরেল নষ্ট করে| এতে হার্ট ভালো থাকে|

৮. ত্বক আর চুল ভালো রাখতেও সাহায্য করে টকদই| এর মধ্যে থাকা ল্যাকটিক অ্যাসিড খুসকি সমেত যেকোনো ফাঙ্গাল ইনফেকশন কমায়| টকদইয়ে থাকা ভিটামিন ই, জিঙ্ক, ফসফরাস রং উজ্জ্বল করে| রোদে পোড়া কালচেভাব কমায়|

সাবধানতা

দিনে ২০০-২৫০ গ্রামের বেশি টকদই খাবেন না| খেলে পেটখারাপ হতে পারে|

রায়তা, স্যালাড বা এমনি এমনি টকদই খেতে পারেন| চাইলে বিটনুন ছড়িয়ে ঘোল বা সরবত বানিয়েও খেতে পারেন| কিন্তু চিনি মিশিয়ে খাবেন না| এতে সব উপকারিতা নষ্ট হয়ে যাবে|

Advertisements

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.