মূল বাড়িটির বয়স ৩০০-রও বেশি, বাঙালির শৈল্পিক আড্ডার আঁতুড়ঘর কফি হাউজকে ঘিরে অজানা তথ্য

মান্না দে-এর গলায় অমর হয়ে আছে কফি হাউজের সেই আড্ডাটা

মঙ্গলবার‚ ১ মে প্রবাদপ্রতিম এই শিল্পীর ৯৯ তম জন্মবার্ষিকী | সেই উপলক্ষে কফি হাউজকে নিয়ে কিছু অজানা তথ্য |

# মূল বাড়িটির বয়স ৩০০-রও বেশি | কোনও এক সময়ে এখানে বাড়ি ছিল ব্রাহ্ম সমাজের প্রাণপুরুষ ও সমাজ সংস্কারক কেশবচন্দ্র সেনের  |

# ব্রিটিশ শাসনের পরবর্তী সময়ে এই ভবনকে উৎসর্গ করা হয় ওয়েলস-এর প্রিন্স অ্যালাবার্ট ভিক্টরের উদ্দেশে | বাড়ির নাম হয় অ্যালবার্ট হল |

# ১৯৪২ সালে দেশের Coffee Board ঠিক করে এখানে একটি কফি জয়েন্ট শুরু করবে |


# ১৯৪৭ সালে কেন্দ্রীয় সরকার এর নতুন নাম দেয় ইন্ডিয়ান কফি হাউজ | হয়ে ওঠে বাঙালির শৈল্পিক আড্ডার আঁতুড়ঘর |

# ১৯৫৮ সালে কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নেয় বন্ধ করে দেবে কফি হাউজ | কিন্তু কর্মীরা ঠিক করেন একে চালিয়ে যাবেন |

# সেই থেকে কলেজ স্ট্রিটের কফি হাউজকে চালাচ্ছে “India Coffee Board Worker’s Co-operative Society Ltd “ |

# ১৯৯৪ সালে এই বাড়িকে হেরিটেজ ভবনের তকমা দেওয়া হয়েছে |

One Response

  1. তিন শ’ বছরের পুরানো বাড়ি তার হদিস বা তথ্য কই ?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

কফি হাউসের আড্ডায় গানের চর্চা discussing music over coffee at coffee house

যদি বলো গান

ডোভার লেন মিউজিক কনফারেন্স-এ সারা রাত ক্লাসিক্যাল বাজনা বা গান শোনা ছিল শিক্ষিত ও রুচিমানের অভিজ্ঞান। বাড়িতে আনকোরা কেউ এলে দু-চার জন ওস্তাদজির নাম করে ফেলতে পারলে, অন্য পক্ষের চোখে অপার সম্ভ্রম। শিক্ষিত হওয়ার একটা লক্ষণ ছিল ক্লাসিক্যাল সংগীতের সঙ্গে একটা বন্ধুতা পাতানো।