চুলের সঠিক পরিচর্যায় তেল দেওয়া কতটা গুরুত্বপূর্ণ!?

668

শরীরের মতো চুলেরও পুষ্টির প্রয়োজন। তাই সুন্দর চুল পেতে প্রয়োজন সঠিক পুষ্টির। স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুলের মূল রহস্য হল সঠিক পরিচর্যা। সঠিক পুষ্টি ও পরিচর্যা না পেলে চুল লম্বা, শক্ত ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল হবে না। আর এ জন্য নিয়ম করে চুলে তেল দেওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

চুল হল একধরনের মৃত কোষ। চুলের গোড়ায় থাকে সিবাম গ্ল্যান্ড তার থেকে প্রাকৃতিক তেল নিঃসরণ হয়ে এই মৃত কোষকে পুষ্টি দেয় ও চুলকে শুষ্ক, ভেঙ্গে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করে। এই তেল চুলকে মজবুত রাখতেও সাহায্য করে।

তাই চুলকে ভাল রাখতে হেয়ার অয়েল খুবই প্রয়োজন। গবেষকদের মতে, যাদের স্ক্যাল্প শুষ্ক ও রুক্ষ তাদের বেশি করে হেয়ার অয়েল ব্যবহার করা দরকার । কোঁকড়া, মোটা ও ভারী চুলের জন্য তেল দেওয়া বেশি জরুরি। কারণ কোঁকড়া চুল প্রাকৃতিকভাবেই বেশি শুষ্ক হয়। এ ছাড়া যাদের চুলে কালার করা আছে বা কোনও কেমিক্যাল ট্রিটমেন্ট করানো রয়েছে, তাদের তেল দেওয়া প্রয়োজন।

চুলে তেল দেয়ার আগে তেল কিছুটা গরম করে নিন। হাল্কা গরম তেল তালুতে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি করে ফলে নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। এছাড়া সাধারণ নারকেল তেলের সঙ্গে কয়েকটি এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে নিতে পারেন। নতুন চুল গজানোর জন্য ক্যাস্টর অয়েল, ল্যাভেন্ডার অয়েল বা টি ট্রি অয়েলও মেশাতে পারেন।

তেল দেয়ার পর ভালোভাবে চুল আঁচড়ে নিন। হালকা হাতে চুলে ম্যাসাজ করুন। খুব বেশি জোড়ে তেল মাথায় ম্যাসাজ করবেন না এতে চুল আরও বেশি জট বেঁধে যাবে আর চুল ছিঁড়ে যাবে। তেল দেয়ার পর কমপক্ষে এক ঘন্টা অপেক্ষা করুন। তারপর শ্যাম্পু করে নিন। সবচেয়ে ভাল হয় তেল সারারাত মাথায় রাখুন। পরের দিন শ্যাম্পু করে ফেলুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.