জিমে যেতে ভয়? শরীরচর্চায় কাজে আসবে এই টিপসগুলি

জিমে যেতে ভয়? শরীরচর্চায় কাজে আসবে এই টিপসগুলি

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

অনেকেই নিজের বাড়তে থাকা ভুঁড়ির দিকে দেখে ভাবেন যে অনেক হয়েছে‚ আর নয় ! এবারে কমাতেই হবে শরীরের ওজন আর মেদের বাহুল্য | এখন যেহেতু বাড়িতে শারীরিক শক্তি প্রয়োগের কাজ কেউই বিশেষ করার সময় পান না তাই শরীরচর্চার জন্য  জিমে যান | কিন্তু জিমে শরীরচর্চা করতে করতে যেসব স্বাভাবিক সমস্যা দেখা দেয় তার জন্য বেশিদিন জিমে টিকতে পারেন না বেশিরইভাগই | শরীরচর্চা শুধু ওজন বা মেদ কমাতেই যে সাহায্য করে তা নয় | আপনাকে দেখতে আকর্ষণীয় করে তোলে‚ স্বাস্থ্য ভাল রাখতে সাহায্য করে‚ বয়সের ছাপকে সরিয়ে রাখে দূরে | তাই শরীরচর্চা করার ইচ্ছে হলে আপনাকে মনে রাখতে হবে কিছু সহজ টিপস |

১| প্রথমেই ভেবে নেবেন না যে শরীরচর্চা করা ঝামেলার কাজ | মনের মধ্যে যদি এরকম নেগেটিভ মনোভাব রাখেন তাহলে শরীরচর্চা করতে গিয়ে আরও বেশি সমস্যায় পড়বেন | শরীরচর্চা আপনার ইচ্ছের উপর নির্ভর করে‚ এটি বাধ্যতামূলক নয় | সঠিকভাবে শরীরচর্চা করতে পারলে আপনারই শরীর ভাল থাকবে | তাই মনে নেগেটিভ মনোভাব পোষণ না করে নিজেকে শরীরচর্চা করার জন্য উদ্বুদ্ধ করুন |

২| শুরুতেই মনে করে নেবেন না যে এক মাসে ১০ কেজি ওজন কমিয়ে ফেলবেন | প্রত্যেকের দেহের গ্রহণ করার একটি নির্দিষ্ট ক্ষমতা থাকে | প্রথমদিন জিমে গিয়ে ভারি ওজন তোলার চেষ্টা করলে সমস্যা আরও বাড়বে বৈ কমবে না | ছোট ছোট কিছু পরিকল্পনা করে নিন | যেমন ধরুন প্রথম মাসে ২ থেকে ৩ কেজি ওজন কমানোর চেষ্টা করুন | এর ফলে শরীরেরও আস্তে আস্তে শরীরচর্চার অভ্যেস হবে |

৩| প্রথম প্রথম শরীরচর্চা করলে গায়ে হাতে ব্যথা হবেই | কারণ শরীরচর্চা করা শুরু করলে আমাদের শরীরের পেশিগুলির সঞ্চলন শুরু হয় | আগে যে পেশিগুলি নিশ্চল হয়ে থাকত সেগুলিকে সঞ্চলন করা শুরু করলে ব্যথা হওয়া স্বাভাবিক | এই ব্যথার জন্যই জিমে যোগ দেওয়ার প্রথম সপ্তাহেই বেশিরভাগ মানুষ শরীরচর্চা করা ছেড়ে দেন | তা না করে যদি আস্তে আস্তে দেহকে শরীরচর্চায় অভ্যস্ত করে তুলতে পারেন তবে ব্যথাতেও আর ব্যথা লাগবেনা | বরং দেখবেন ওই ব্যথাই ভাললাগছে তখন |

৪| শরীরচর্চার সুফল আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন | যখন দেখবেন আগে যে জামাটি আপনার গায়ে ছোট হত সেই জামাটিই আপনার গায়ে ঢিলে হচ্ছে তখন নিজেরই মনে আনন্দ হবে | মাঝে মাঝে কিনে আনুন নিজের জামার সাইজের থেকে ছোট সাইজের জামা এবং মনে করে নিন এই জামাটিই পরতে হবে আপনাকে | দেখবেন কেমন আরও বেশি উদ্দীপনা পাচ্ছেন শরীরচর্চা করার | আর নতুন অবতারে আপনাকে দেখে চমকে যাবেন আপনার বন্ধুবান্ধবরাও |

৫| শরীরে পুষ্টির অভাব থাকলে বা শরীর দুর্বল হলে কিন্তু শরীরচর্চা করতে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন আপনি | তাই চর্চার সঙ্গে সঙ্গে সমানভাবে বজায় রাখতে হবে সঠিক খাওয়াদাওয়ার ডায়েট | শরীরচর্চা করলেই বেশি খিদে পাবে ‚ কিন্তু তাই বলে যেকোনও খাবার খেয়ে নিতে পারবেন না | অপুষ্টিকর সমস্ত খাবারকে বিদায় জানিয়ে খাদ্যতালিকায় যোগ করুন পুষ্টিকর উপাদান সমৃদ্ধ খাবার | স্বাস্থ্যকর খাওয়াদাওয়ার অভ্যাস ও শরীরচর্চা একসঙ্গে বজায় রাখতে পারলে নিজের শরীরের পরিবর্তন খুব কম সময়ের মধ্যে নিজেই অনুভব করতে পারবেন |

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on whatsapp

Leave a Reply

Social isolation to prevent coronavirus

অসামাজিকতাই একমাত্র রক্ষাকবচ

আপনি বাঁচলে বাপের নাম— এখন আর নয়। এখন সবাই বাঁচলে নিজের বাঁচার একটা সম্ভবনা আছে। সুতরাং বাধ্য হয়ে সবার কথা ভাবতে হবে। কেবল নিজের হাত ধোওয়ার ব্যবস্থা পাকা করলেই হবে না। অন্যের জন্য হাত ধোওয়ার ব্যবস্থা রাখতে হবে। এক ডজন স্যানিটাইজ়ার কিনে ঘরে মজুত রাখলে বাঁচা যাবে না। অন্যের জন্য দোকানে স্যানিটাইজার ছাড়তে হবে। আবেগে ভেসে গিয়ে থালা বাজিয়ে মিছিল করলে হবে না। মনে রাখতে হবে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, জানলায় বা বারান্দায় দাঁড়িয়ে থালা বাজাতে। যে ভাবে অন্যান্য দেশ নিজের মতো করে স্বাস্থ্যকর্মীদের উদ্বুদ্ধ করছে। রাস্তায় বেরিয়ে নয়। ঘরে থেকে।