আফ্রিকায় মিলল প্রাচীনতম মানুষের দেহাবশেষ, বদলে গেল মাইগ্রেশন সংক্রান্ত ধারণা

great migration of man

দু’ লক্ষ দশ হাজার বছরের পুরনো একটি মানুষের মাথার খুলি পাওয়া গেছে আফ্রিকার বাইরে। এটিই সম্ভবত সবচেয়ে পুরনো প্রাপ্ত মানব দেহাবশেষ। সময়ের হিসেব উলটে দিয়েছে এই নতুন আবিষ্কার। ইউরোপে মানুষ আসার সময় আরও দেড় লক্ষ বছর পিছিয়ে গেল। ইউরোপ মহাদেশে প্রথম মানুষের আগমন যে সময়ে এত দিন মনে করা হত, তার চেয়ে আরও অনেক আগেই সেখানে মানুষ এসে গেছে আসলে, একটি গবেষণায় সম্প্রতি জানানো হয়েছে এমনই। আধুনিক মানুষ আফ্রিকা থেকে ইউরেশিয়াতে দেশান্তরী হয়ে আসত মনে করা হয় এবং যে সময়ে তারা আসত বলে ধারণা করা হয়েছিল, সেই হিসেব গুলিয়ে দিল এই চমকপ্রদ আবিষ্কারটি।

বিজ্ঞানী গবেষকরা এ থেকে মনে করছেন, প্রায় দশ হাজার বছর ধরে অনেক বার আসলে মানুষ আফ্রিকা থেকে ইউরেশিয়াতে আসার সফল অথবা ব্যর্থ প্রচেষ্টা চালিয়েছে। আফ্রিকা আর ইউরোপ মহাদেশের সংযোগ স্থাপক পথ ছিল দক্ষিণ পূর্ব ইউরোপ , এই পথেই আফ্রিকা মহাদেশ থেকে ইউরোপে ঢুকত নব্য মানব। কিন্তু এতদিন মাত্র পঞ্চাশ হাজার বছর আগের সব চেয়ে পুরনো মনুষ্য দেহাবশেষ পাওয়া গেছিল ইউরোপে। ইতি পূর্বে প্রাচীন নিয়ানডারথাল বা প্রাক মানবের উপস্থিতির নানা প্রমাণ পাওয়া গেছে ইউরোপ মহাদেশে। জীবাশ্ম হয়ে যাওয়া দু’টি ক্ষতিগ্রস্ত খুলি ১৯৭০ সালে এক গ্রিক গুহা থেকে আবিষ্কৃত হয়েছিল। এটি নিয়ানডারথাল বলে জানা গেছে। আন্তর্জাতিক গবেষকরা ওই দুটি খুলি পরীক্ষা নিরীক্ষা করে জেনেছে যে তার মধ্যে একটি খুলি প্রায় এক লক্ষ সত্তর হাজার বছরের প্রাচীন এবং সত্যিই এটি নিয়ানডারথাল যুগের অর্থাৎ প্রাক মানব। কিন্তু অন্য খুলিটি তারও প্রায় ৪০,০০০ বছর আগের এবং এটি আধুনিক মানুষের। এপিডিমা ১ নামক এই খুলিটিই এতদিন পর্যন্ত ইউরোপে প্রাপ্ত সবচেয়ে পুরনো আধুনিক মানুষের দেহাবশেষ ছিল। আফ্রিকার বাইরে এটিই সবচেয়ে পুরনো আধুনিক মানুষের প্রামাণ্য চিহ্ন। জার্মানির এবারহার্ড কার্ল বিশ্ববিদ্যালয়ের জীবাশ্মবিজ্ঞানী ক্যাটরিনা হার্ভাটি জানান, ‘হোমো স্যাপিয়েন্সরা দুই লক্ষ বছরের আগেই আফ্রিকা থেকে অন্যত্র চলে যেতে শুরু করেছিল শুধু নয়, ইউরোপের অনেক দূর দূরান্ত অবধি পৌঁছে গেছিল তারা। ‘এরকমটা আমরা এর আগে কল্পনাই করতে পারিনি’। প্রাচীন মানুষের গতিবিধি পর্যালোচনার জন্য সাম্প্রতিক এই আবিষ্কারটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

মনে করা হয়, প্রায় ৬ মিলিয়ন বা ষাট লক্ষ বছরেরও আগে প্রাকমানব এবং আধুনিক মানব আফ্রিকাতে জন্ম নেয়। তারপর কুড়ি লক্ষ বছর আগে তারা আফ্রিকা থেকে অন্যত্র চলে যেতে শুরু করে। আফ্রিকায় প্রায় কুড়ি লক্ষ আশি হাজার বছরের পুরনো প্রাক মানবের জীবাশ্ম খুঁজে পাওয়া গেছে। ৩৫০০০ থেকে ৪৫,০০০ বছর আগে ইউরোপে প্রাক মানবের পরিবর্তে আধুনিক মানুষের নমুনা খুঁজে পাওয়ায় মনে করা হত, নিয়ান্ডারথাল আর হোমো স্যাপিয়েন্স দুই প্রজাতিই পাশাপাশি সহাবস্থান করত। তারপর ধীরে ধীরে অবলুপ্ত হয়েছে নিয়ান্ডারথাল প্রজাতি। কিন্তু গ্রিসের খুলি দুটি প্রমাণ করে একাধিক পর্যায়ে আফ্রিকা থেকে দক্ষিণ ইউরোপে আধুনিক মানুষ দেশান্তরী হয়েছিল। একেবারে একদিনে চলে আসেনি। দীর্ঘ দিন ধরে তারা ধারাবাহিক ভাবে আফ্রিকা থেকে ইউরোপে প্রবেশ করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.